BREAKING NEWS

১২ কার্তিক  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৯ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

অনলাইনে কেনা জামা নাপসন্দ, ফেরত দিতে গিয়ে প্রায় লাখ টাকা খোয়ালেন খড়গপুরের বাসিন্দা!

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: October 13, 2020 8:24 pm|    Updated: October 13, 2020 8:24 pm

An Images

ছবি: প্রতীকী

অংশুপ্রতিম পাল, খড়গপুর: করোনা কালে (Coronavirus) ভিড় এড়াতে অনেকেই অনলাইনে কেনাকাটা সারছেন। স্রোতে গা ভাসিয়ে অনলাইনে পুজোর বাজার সারতে গিয়ে প্রতারণার শিকার খড়গপুরের বাসিন্দা এক ব্যাক্তি। জানা গিয়েছে, কয়েক মুহূর্তে তাঁর অ্যাকাউন্ট থেকে উধাও হয়ে গিয়েছে প্রায় এক লাখ টাকা! গোটা বিষয়টি জানিয়ে পুলিশের দ্বারস্থ হয়েছেন প্রতারিত ব্যক্তি।

খড়গপুরের (Kharagpur) মালঞ্চের বাসিন্দা ওই ব্যক্তির নাম দীপঙ্কর চৌধুরি। সম্প্রতি তাঁর মেয়ে একটি জনপ্রিয় অনলাইন শপিং সংস্থার অ্যাপের মাধ্যমে একটি জামা অর্ডার করেন। কিন্তু জামাটি হাতে পাওয়ার পর তাঁর পছন্দ হয়নি। সেই কারণে সেটি ফেরত দেওয়ার জন্য অ্যাপের মাধ্যমেই আবেদন করেন তিনি। জানা গিয়েছে, এরপর অ্যামাজনের এক ডেলিভারি বয় যান দীপঙ্করবাবুর বাড়িতে। কিন্তু দামের ট্যাগ না থাকায় জামাটি ফেরত না নিয়েই চলে যান সেই ডেলিভারি বয়। তবে তিনি পরামর্শ দেন কাস্টমার কেয়ারে অভিযোগ জানানোর। এর ঠিক মিনিট কুড়ি পর কাস্টমার কেয়ার থেকে একটি ফোন যায় দীপঙ্করবাবুর কাছে। কিন্তু প্রথমবারে ফোনটি তিনি ধরতে পারেননি। কয়েক মিনিট পর আবার ফোন গেলে তা ধরেন দীপঙ্করবাবুর মেয়ে। এরপরই চরমভাবে প্রতারিত হন তাঁরা। দু’ দফায় এক লক্ষ টাকা মুহূর্তে উধাও হয়ে যায় দীপঙ্করবাবুর অ্যাকাউন্ট থেকে। মাথায় আকাশ ভেঙে পড়ে তাঁদের।

[আরও পড়ুন: দেখা নেই স্বাস্থ্যকর্মীর, করোনায় মৃতের দেহ অ্যাম্বুল্যান্সে তুললেন ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট!]

কিন্তু কীভাবে কাটল টাকা? জানা গিয়েছে, কাস্টমার কেয়ার থেকে ফোন করে দীপঙ্করবাবুর মেয়ের থেকে ব্যাংকের অ্যাকাউন্ট নম্বর ও আইডি নম্বর জেনে নিয়ে একটি অ্যাপ ডাউনলোড করার পরামর্শ দিয়েছিল। সেটি ডাউনলোড করতেই ঘটে বিপত্তি। ইতিমধ্যেই থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন দীপঙ্করবাবু। পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, ঘটনার তদন্ত চলছে, তবে এখনও পর্যন্ত এই ঘটনায় কাউকে গ্রেপ্তার করা যায়নি। এবিষয়ে ওই অনলাইন শপিং সংস্থার তরফে এখনও কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি।

[আরও পড়ুন: আজও লাগানো হয়নি আমফানে উড়ে যাওয়া জাতীয় পতাকা, রেলের ওয়ার্কশপে তেরঙ্গার ‘অপমান’]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement