১ কার্তিক  ১৪২৬  শনিবার ১৯ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

১ কার্তিক  ১৪২৬  শনিবার ১৯ অক্টোবর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

নন্দন দত্ত, সিউড়ি: ভর সন্ধ্যায় এক বিজেপি কর্মীর বাড়িতে বোমা বিস্ফোরণ৷ বিস্ফোরণের জেরে উড়ে যায় বিজেপি কর্মী বাবলু মণ্ডলের দোতলা বাড়ির টিনের চালা। শুক্রবার সকালে ঘটনাটি ঘটেছে বীরভূমের খয়রাশোল ব্লকের লোকপুর থানার গাংপুর গ্রামে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ৷ যদিও বাবলুকে তাঁদের কর্মী বলতে নারাজ স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্ব৷

[ আরও পড়ুন: ফের বিশ্বভারতীতে চন্দন গাছ চুরির চেষ্টা, প্রশ্নের মুখে নিরাপত্তা ব্যবস্থা ]

পুলিশ সূত্রে খবর, ওই বিজেপি কর্মীর বাড়িতে প্রচুর বোমা মজুত ছিল। হঠাৎ বিস্ফোরণের ফলে উড়ে যায় তার মাটির দোতলা বাড়ির টিনের চালা৷ ঘটনার সময় ঘরে কেউ ছিল না, তাই হতাহতের কোনও ঘটনা ঘটেনি৷ নাহলে বড়সড় দুর্ঘটনা ঘটতে পারত৷ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছেন পুলিশ আধিকারিকরা৷ ঘটনার পরেই বাবলু মণ্ডলের বাড়ি ঘিরে ফেলে লোকপুর থানার পুলিশ। বাড়িতে কি ধরনের বোমা ছিল, সেই তদন্তে নেমেছে পুলিশ। পুলিশ সুপার শ্যাম সিং জানান, যারা বোমা মজুত
রেখেছে, তারা যে রাজনৈতিক দলেরই হোক, তাদের ছাড়া হবে না। পুলিশ সূত্রে খবর, শনিবার ঘটনাস্থলে যাবে সিআইডির দল৷ ঘটনাস্থল ঘুরে তদন্ত করবেন তাঁরা।

[ আরও পড়ুন: যাদবপুরে বাবুলকে নিগ্রহে নাম জড়িয়েছে ছেলের, আতঙ্কে দেবাঞ্জনের পরিবার ]

বাবলু মণ্ডলের পরিচয় এলাকার দাপুটে বিজেপি নেতা হিসাবে হলেও, এই ঘটনার পর থেকে তাঁর রাজনৈতিক পরিচয় নিয়ে ধন্দ তৈরি হয়েছে। বাবুলকে শাসকদলের নেতা বলে দাবি করেন বিজেপির মণ্ডল নেতা অরিন্দম মুখোপাধ্যায়৷ তিনি বলেন, ‘‘বাবলু তৃণমূলের কর্মী। তার সঙ্গে বিজেপির কোনও যোগ নেই। দলের ক্ষমতাসীন গোষ্ঠীর সঙ্গে বিরোধের জেরেই, তার দলের নেতারা এই ঘটনা ঘটাতে পারে।’’ অন্যদিকে খয়রাশোল ব্লকের তৃণমূল নেতা স্বপন মণ্ডল বলেন, ‘‘বাবলু এলাকায়
বিজেপির নেতৃত্ব দেয়। ওকে সবাই বিজেপির নেতা বলে চেনে।’’ বীরভূম জেলার পুলিশ সুপার শ্যাম সিং জানান, লোকপুর থানার পুলিশ বিষয়টির তদন্তে নেমেছে।

[ আরও পড়ুন: শাসকের রাজনৈতিক সৌজন্য, বিক্ষোভরত সিপিএম কর্মীদের গোলাপ উপহার বোরো চেয়ারম্যানের ]


এ নিয়ে একমাসে পরপর চারটি বাড়িতে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটল বীরভূমে। বড়রা, সদাইপুর, খোওয়াজ মহম্মদপুরের পর এবার গাংপুরে। প্রতিটি বিস্ফোরণের পিছনে রাজনৈতিক নেতা কর্মীদের যোগ রয়েছে। এলাকাবাসীরা জানিয়েছে, শুক্রবার সন্ধ্যা ছ’টা নাগাদ একটি প্রচণ্ড শব্দ হয়৷ চমকে ওঠেন তাঁরা। ঝাড়খণ্ড লাগোয়া লোকপুরের এই গ্রামে শব্দের সঙ্গে বহুদূর থেকে আলোর ঝলকানি দেখা যায়। স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্বের দাবি, বাবলু মণ্ডল এলাকার সগরভাঙ্গা এলাকার দখলদারির জন্য
বাড়িতে ওই বোমা মজুত করেছিল। স্থানীয় তৃণমূল নেতা স্বপন মণ্ডল বলেন, ‘‘বাবলু বিজেপির হয়ে সগরভাঙ্গায় দখলদারির চেষ্টা করছিল। সে জন্যই বাড়ির দোতলায় অবৈধভাবে বোমা মজুত করছিল।’’ বাবলুকে শাসকদলের বিক্ষুদ্ধ বলে বিজেপি দাবি করলেও, তিনি অস্বীকার করেননি স্বপন বাবু। তিনি আরও বলেন, ‘‘আমাদের দলে দুষ্কৃতীদের কোনও জায়গা নেই।’’

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং