১৩ মাঘ  ১৪২৬  সোমবার ২৭ জানুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সম্যক খান, মেদিনীপুর: ফের শিশু মৃত্যুতে কাঠগড়ায় হাসপাতাল। অভিযোগ, হাসপাতালের গাফিলতির জেরেই মৃত্যু হয়েছে স্ক্রাব টাইফাসে আক্রান্ত ১৪ মাসের শিশুকন্যার। মৃত্যুর খবর প্রকাশ্যে আসতেই হাসপাতালের বাইরে দীর্ঘক্ষণ বিক্ষোভ দেখান রোগীর পরিবারের সদস্যরা। দীর্ঘক্ষণ পর কোতোয়ালি থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে আয়ত্তে আসে পরিস্থিতি।

জানা গিয়েছে, পশ্চিম মেদিনীপুরের ডেবরার বাসিন্দা প্রত্যুষা মিশ্র নামে ১ বছর ২ মাস বয়সের ওই শিশুটি। কয়েকদিন ধরেই জ্বরে ভুগছিল সে। এরপর রক্তপরীক্ষায় তার স্ক্রাব টাইফাস ধরা পড়ে। চলতি মাসের ৫ তারিখ ধর্মার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভরতি করা হয় শিশুটিকে। সেখানেই চিকিৎসা চলছিল তার। রবিবার সকাল পর্যন্ত চিকিৎসা চলে। এদিন ভোর ৬ টায় একটি ইঞ্জেকশন দেওয়া হয় খুদেকে। সকাল ৭ টায় মৃত্যু হয় শিশুর। এরপর চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগ তুলে হাসপাতালের বাইরে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন মৃত শিশুর পরিবারের সদস্যরা। পরিস্থিতি আয়ত্তে আনতে ঘটনাস্থলে যায় কোতোয়ালি থানার পুলিশ। দীর্ঘক্ষণ পর স্বাভাবিক হয় পরিস্থিতি। তবে এখনও থমথমে হাসপাতাল।

[আরও পড়ুন: সঠিক শাস্তি হয়েছে, হায়দরাবাদ এনকাউন্টারের ভূয়সী প্রশংসা অনুব্রতর গলায়]

যদিও শিশুর পরিবারের অভিযোগ ভিত্তিহীন বলেই দাবি হাসপাতালের চিকিৎসক ইন্দ্রাণী মণ্ডলের। তাঁর কথায়, কয়েকদিন ধরেই শিশুটির চিকিৎসা চলছিল। চিকিৎসায় সাড়াও দিচ্ছিল সে। কিন্তু রবিবার সকালে শেষ ইঞ্জেকশনটি দেওয়ার পর হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয় শিশুর। তিনি জানান, স্ক্রাব টাইফাস এতটাই ভয়ংকর যে অনেকক্ষএ্রেই যথাযথ চিকিৎসা সত্ত্বেও রোগীদের বাঁচানো সম্ভব হচ্ছে না। প্রসঙ্গত, শেষ ৬ মাস ধরে রাজ্যে থাবা বসিয়েছে ডেঙ্গু, স্ক্রাব টাইফাসের মতো রোগ। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে ক্রমশ ভয়ংকর চেহারা নিচ্ছে এই রোগ। ইতিমধ্যেই রাজ্যের বহু মানুষের মৃত্যু হয়েছে স্ক্রাব টাইফাস ও ডেঙ্গুর দাপটে। পুরসভার তরফে বিভিন্ন পদক্ষেপ নেওয়া সত্ত্বেও কিছুতেই আয়ত্তে আসছে না পরিস্থিতি।

[আরও পড়ুন: গ্রামবাসীদের সমস্যার কথা শুনতে নদী পেরিয়ে, হেঁটে গ্রামে পৌঁছলেন জেলাশাসক]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং