২ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

বিবাদের জেরে ছেলের সামনেই কুপিয়ে খুন বাবাকে

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 6, 2018 4:02 pm|    Updated: January 6, 2018 4:02 pm

An Images

পলাশ পাত্র, তেহট্ট: জমি থেকে শাক তোলাকে ঘিরে বিবাদ। আর সেই বিবাদেই ছোট্ট ছেলের সামনে বাবাকে খুন হতে হল। তেহট্টের কালীগঞ্জ থানার দেবগ্রাম নেতাজী নগরে শনিবারের এই ঘটনায় চাঞ্চল্য দেখা দিয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, মৃতের নাম মোস্তাফা শেখ(৩৮)। তিনি বিভিন্ন সময়ে আম বা মরশুমী ফল নিয়ে ব্যবসা করতেন। ইদানীং নাকি গরুর ব্যবসাও করছিলেন বলে খবর।

[একই রসিদে বারবার জরিমানা, রেলের টাকা যাচ্ছে টিকিট পরীক্ষকদের পকেটে]

জানা গিয়েছে, এক সময় দেবগ্রাম রাধাকান্তপুরে থাকতেন মোস্তাফারা। সেখানে থাকত আসাদুল্লারাও। অনেক বছর আগে দুটি পরিবার উঠে আসে ৩৪ নং জাতীয় সড়কের পাশের নেতাজী নগরে। বছর পঁচিশ আগে জমি-জমা সংক্রান্ত একটা সমস্যা দেখা দেয়। মাঝে সেসব বন্ধ ছিল। কিন্তু গত শুক্রবার জমি সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে ফের দু’পক্ষের মধ্যে ঝগড়া হয়। এদিন দেবগ্রাম বিবেকানন্দ হাইস্কুলের নবমশ্রেণীর ছাত্র কামিরুদ্দিন স্কুলে যায়নি। বেলা এগারোটা নাগাদ বাড়ির সামনের জমি থেকে সে শাক তুলে খাচ্ছিল। এরপর প্রতিবেশী আসাদুল্লা ছোট্ট কামিরুদ্দিনকে এজন্য খিস্তি দেয়। মোস্তাফা সঙ্গে সঙ্গে এর প্রতিবাদ করে বলেন, ‘ও ছোট ছেলে। এরকম কুকথা ওকে বলছ কেন?’ এ নিয়ে বেশ কিছুক্ষণ তর্কাতর্কি চলার পরে মোস্তাফা সেখান থেকে চলে যায়। তবে আধ ঘন্টার মধ্যে ফিরেও আসে। সেসময় বাড়ির সামনে বাবার জন্য তখন অপেক্ষা করছিল ছেলে কামিরুদ্দিন। ওই সময় ঘটনাটি ঘটে।

[কানে হেডফোন, হাসনাবাদ লোকালের ধাক্কায় মর্মান্তিক মৃত্যু যুবকের]

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, এরপর হঠাৎ করেই মোস্তাফার ওপর চড়াও হয় আসাদুল্লা। বাড়ি থেকে কিছুটা দূরে জাতীয় সড়কের ওপর আসাদুল্লা সাঙ্গপাঙ্গ নিয়ে ছেলের সামনেই মোস্তাফাকে কোপায়। গোটা রাস্তা লাল রক্তে ভরে যায়। পেট, কাঁধ-সহ শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাত পাওয়ায় ঘটনাস্থলেই মারা যান মোস্তাফা। ঘটনার আকস্মিকতায় এরপর থেকে নাবালক কামিরুদ্দিন কার্যত বোবা হয়ে গিয়েছে। মুখ দিয়ে কোনও কথা বের হচ্ছে না। পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনার পর থেকে অভিযুক্তরা পলাতক। তদন্ত চলছে।

[বেড়াতে গিয়ে মাঝ নদী থেকে উধাও যুবক, সুন্দরবনে ঘনাল রহস্য]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement