১০ মাঘ  ১৪২৬  শুক্রবার ২৪ জানুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

শংকরকুমার রায়, রায়গঞ্জ: ২ বছরের পুত্রসন্তানকে খুন করে আত্মঘাতী মা। বৃহ্স্পতিবার সকালে মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে রায়গঞ্জের মারাইগুড়া গ্রাম পঞ্চায়েতের নস্যাতপুর এলাকায়। ইতিমধ্যেই দেহ দুটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে পুলিশ। তদন্তের স্বার্থে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে মৃতার স্বামীকে।

রায়গঞ্জের মারাইগুড়া গ্রাম পঞ্চায়েতের নস্যাতপুর এলাকার বাসিন্দা ভব রাজবংশী। স্ত্রী সাবিত্রী দাস রাজবংশী ও দু’বছরের ছেলেকে নিয়ে ওই বাড়িতেই থাকতেন। পাশেই থাকতেন আত্মীয়রা। বৃহস্পতিবার সকালে স্বামীকে সাবান কিনে আনতে বলেন সাবিত্রী। সেই সময় সাবান কেনার জন্য বাড়ি থেকে বের হন পেশায় রংয়ের মিস্ত্রি ভব। ফিরে এসে তিনি দেখেন ঘরে ফ্যানে গলায় দড়ি দিয়ে ঝুলছে ছেলে, একই দড়িতে ঝুলছে স্ত্রীও। খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে হাজির হয় পাড়া-প্রতিবেশী। যায় রায়গঞ্জ থানার পুলিশ। ইতিমধ্যেই পুলিশ দেহদুটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে।

[আরও পড়ুন: দেড় লক্ষ টাকায় সদ্যোজাত পুত্রসন্তান বিক্রি! পুলিশের জালে বাবা]

কেন ছেলেকে খুন করে আত্মঘাতী হলেন বধূ? জানা গিয়েছে, দীর্ঘদিন ধরেই মানসিক সমস্যায় ভুগছিলেন সাবিত্রী। চিকিৎসাও চলছিল তাঁর। প্রায়ই পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে অশান্তি করতেন বধূ। মৃতার জায়ের কথায়, বুধবার রাতে স্বামীর সঙ্গে অশান্তি হচ্ছিল সাবিত্রীর। এরপর সকালে বাপের বাড়ি চলে যাওয়ার জন্য স্বামীর কাছে টাকা চেয়েছিলেন বধূ। তা দিতে রাজি হননি ভব। এরপরই স্বামীকে সাবান কিনতে বাজার পাঠান তিনি। প্রাথমিকভাবে পুলিশের অনুমান, মানসিক সমস্যার কারণেই আত্মঘাতী হয়েছেন সাবিত্রী। তবে এই ঘটনার পিছনে অন্য কোনও রহস্য রয়েছে কি না তা জানতে তদন্ত শুরু করেছে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ।

[আরও পড়ুন: নবীনবরণ অনুষ্ঠানে চটুল নাচ, বিতর্কে বেলডাঙার কলেজ]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং