BREAKING NEWS

১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  মঙ্গলবার ১ ডিসেম্বর ২০২০ 

Advertisement

বীরভূমের মল্লারপুর থানায় যুবকের অস্বাভাবিক মৃত্যু, পুলিশের বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগ পরিবারের

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: October 30, 2020 12:45 pm|    Updated: October 30, 2020 4:37 pm

An Images

নন্দন দত্ত, সিউড়ি: ফের বাংলায় পুলিশ লকআপে মৃত্যু হল ধৃতের। এবার ঘটনাস্থল বীরভূমের (Birbhum) মল্লারপুর। মৃতের পরিবারের অভিযোগ, পুলিশি অত্যাচারের জেরেই মৃত্যু হয়েছে ওই যুবকের। যদিও অভিযোগ মানতে নারাজ পুলিশ আধিকারিকরা। প্রসঙ্গত, বিজেপির দাবি মৃত যুবক তাঁদের দলের কর্মী। সেই কারণে আগামিকাল মল্লারপুরে ১২ ঘণ্টা বনধ ডেকেছে গেরুয়া শিবির।

ঘটনার সূত্রপাত বৃহস্পতিবার। এদিন চুরির অভিযোগে মল্লারপুরের বারুইপাড়ার বাসিন্দা শুভ মেহেনা নামে
এক যুবককে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। নিয়ে যাওয়া হয় থানায়। গভীর রাতে মৃত্যু হয় শুভর। এরপরই পুলিশের বিরুদ্ধে একরাশ ক্ষোভ উগরে দেন মৃতের পরিবারের সদস্যরা। তাঁদের অভিযোগ, লকআপে অমানুষিক অত্যাচারের কারণেই মৃত্যু হয়েছে শুভর। পুলিশই খুন করেছে তাঁদের পরিবারের সদস্যকে। অভিযুক্ত পুলিশ কর্মীদের শাস্তির দাবিও জানিয়েছেন তাঁরা।

[আরও পড়ুন: পানের দাম নিয়ে বচসার জেরে ক্রেতার হাতে খুন দোকানি, রণক্ষেত্র রঘুনাথগঞ্জ]

যদিও এই অভিযোগ সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন বলেই দাবি মল্লারপুর থানার পুলিশের। তাঁদের কথায়, “লকআপে থাকাকালীন গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মঘাতী হয়েছেন শুভ। পুলিশ কর্মীরা তাঁকে কোনওরকম নিগ্রহ করেনি।”
এবিষয়ে বীরভূমের পুলিশ সুপার শ্যাং সিং বলেন, “লকআপে শুভ মেহেনা নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে।
যেহেতু থানায় মৃত্য হয়েছে, তাই পর্যাপ্ত তদন্ত হবে। আসল সত্য প্রকাশ্যে আসবে।” লকআপে ফের এহেন
ঘটনায় প্রশ্নের মুখে পুলিশের ভূমিকা।

[আরও পড়ুন: ভোর ও রাতে নামছে তাপমাত্রার পারদ, কবে জাঁকিয়ে শীত পড়বে বঙ্গে? জানাল হাওয়া অফিস]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement