২১  আষাঢ়  ১৪২৯  বুধবার ৬ জুলাই ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

নাড্ডার ছেলের বিয়ের অনুষ্ঠানে হাজির ‘ফেরার’ বিমল-রোশন, ছবি ঘিরে পাহাড়ে চাঞ্চল্য

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: March 7, 2020 9:34 pm|    Updated: March 7, 2020 9:35 pm

Absconding Bimal Gurung and Roshan Giri seen at Delhi

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: তাকে শেষ প্রকাশ্যে কোনও অনুষ্ঠানে দেখা গিয়েছিল ২০১৭ সালের ১৫ আগস্ট। স্বাধীনতা দিবসে পাহাড়ে দলীয় অনুষ্ঠানে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেছিল গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার প্রাক্তন সুপ্রিমো বিমল গুরুং। তারপর অশান্তির আগুন জ্বলে পাহাড়ে। আর সেই থেকেই বেপাত্তা হয়ে যায় পাহাড়ের ‘বেতাজ বাদশা’। তার সঙ্গী তথা মোর্চার প্রাক্তন সাধারণ সম্পাদক রোশন গিরি। পুলিশের খাতায় তারা ফেরার। সেই বিমল-রোশনকেই ফের দেখা গেল কোনও অনুষ্ঠানে। তাও আবার যে-সে অনুষ্ঠান নয়, একেবারে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতির ছেলের বিয়ের অনুষ্ঠানে। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে ভাইরাল হয়েছে সেই ছবি। যা নিয়ে ফের চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

শুক্রবারই ছিল জেপি নাড্ডার ছেলের বিয়ের অনুষ্ঠান। সেই অনুষ্ঠানেই দেখা গিয়েছে বিমল-রোশনকে। একেবারে নবদম্পতি ও নাড্ডার পাশে দাঁড়িয়ে হাসিমুখে ছবি তুলছিল তারা। যদিও সেই ছবির সত্যতা যাচাই করেনি সংবাদ প্রতিদিন ডট ইন। পুলিশের খাতায় দীর্ঘদিন ফেরার বিমল গুরুং ও রোশন গিরি। পাহাড়ে অশান্তি ছড়ানো, খুন, হিংসার শতাধিক মামলা দায়ের রয়েছে তাদের বিরুদ্ধে। ফেরার থাকলেও মাঝে মধ্যেই নেপালি চ্যানেলের মাধ্যমে পাহাড়ে বিমল ভিডিও বার্তা ছড়িয়েছে। গত লোকসভা নির্বাচনেও উন্নয়নের স্বার্থে বিজেপিকে ভোট দেওয়ার আবেদন করেছিল প্রাক্তন মোর্চা সুপ্রিমো। বেশ কয়েকবার গুরুং ফিরছে বলে পাহাড়ে পোস্টারও পড়েছিল। কিন্তু সশরীরে দেখা দেয়নি গুরুং। তেমনই টিকি খুঁজে পাওয়া যায়নি রোশনের।

[আরও পড়ুন: ‘ব্যানার-পোস্টার লাগালেই বাংলার গর্ব হওয়া যায় না’, মমতাকে খোঁচা দিলীপের]

তারপরই গুঞ্জন ওঠে, দিল্লিতে ঘাপটি মেরে রয়েছে গুরু-শিষ্য। কখনও আবার এটাও রটেছে, দুজনে নেপালে ঘাঁটি গেড়েছে। এদিকে রাজ্য পুলিশ, গোয়েন্দারা দুজনকে হন্যে হয়ে খুঁজে গিয়েছে গত দুবছর। তবে এবার বিজেপির নবনির্বাচিত সর্বভারতীয় সভাপতির ছেলের বিয়ের অনুষ্ঠানে বিমল ও রোশনের ছবি নিয়ে জল্পনা দানা বেঁধেছে। তবে কি বিজেপির আশ্রয়ে রয়েছে পাহাড়ে অশান্তি ছড়ানোর নেপথ্য কারিগর? যদিও এ বিষয়ে দার্জিলিংয়ের বিজেপি নেতারা মুখে কুলুপ এঁটেছেন। মোর্চার তরফেও কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি।

[আরও পড়ুন: নতুন কর্মসূচির প্রথম দিনই প্রকাশ্যে তৃণমূলের অন্তর্দ্বন্দ্ব, ক্ষোভ ক্যানিংয়ে]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে