BREAKING NEWS

১০  আশ্বিন  ১৪২৯  মঙ্গলবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

পুরভোটের আগে ফের অশান্তি বহরমপুরে, তৃণমূল কর্মীদের হুমকির অভিযোগ অধীরের বিরুদ্ধে

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: February 25, 2022 12:32 pm|    Updated: February 25, 2022 4:19 pm

Adhir Chowdhury accused of threatening TMC supporters | Sangbad Pratidin

কল্যাণ চন্দ, বহরমপুর: তৃণমূল কর্মীদের প্রকাশ্যে হুমকি দিয়েছেন তিনি, এমনই অভিযোগ উঠল কংগ্রেস সাংসদ অধীর চৌধুরীর (Adhir Chowdhury) বিরুদ্ধে। আগামী রবিবার পুরভোটের (Corporation Election) আগেই এই ঘটনায় উত্তেজিত বহরমপুর। বৃহস্পতিবার ঘটনাটি ঘটে বহরমপুর পুরসভার ২৭ নম্বর ওয়ার্ডে। অভিযোগ, এদিন গভীর রাতে অধীর চৌধুরী বহরমপুর(Berhampore) পৌঁছন। এরপরই ওই হুমকি দেওয়ার ঘটনাটি ঘটে। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

ঠিক কী ঘটেছিল? সূত্রের খবর অনুযায়ী, বহরমপুর পৌঁছেই অধীরের কাছে অভিযোগ আসে, কংগ্রেস কর্মীদের মারধর করেছে তৃণমূলের কর্মী-সমর্থকেরা। একথা জানতে পেরেই অধীর চৌধুরী এবং কংগ্রেস কর্মীরা ২৭ নম্বর ওয়ার্ডের উদ্দেশে রওনা দেন। এরপরই ২৭ নম্বর ওয়ার্ডের কায়েস শেখ নামে এক তৃণমূল কর্মীকে বাড়ি থেকে তুলে আনার হুমকি দেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি। অভিযোগের ভিত্তিতে বহরমপুর থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। পুলিশের কাছে কংগ্রেস সাংসদ অভিযোগ করেন, ‘তৃণমূল কর্মীরাই মারধর করেছে আমার দলের কর্মীদের। ভয় দেখাচ্ছে শাসক দলের গুন্ডারা। বিরোধীশূন্য পুরভোট চায় তৃণমূল। সেই কারণই প্রতিবাদ করতে আমি এখানে এসেছি।’

[আরও পড়ুন: বড়সড় সাফল্য এসটিএফের, শিলিগুড়ি থেকে গ্রেপ্তার KLO জঙ্গি

 

এই ঘটনায় মুখ খুলেছেন স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্বও। বহরমপুর টাউনের তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি নাড়ুগোপাল মুখোপাধ্যায় পালটা আঙুল তুলেছেন অধীরের দিকেই। তাঁর বক্তব্য, ‘অধীর চৌধুরী একজন সাংসদ। তিনিও এভাবে বাড়ি গিয়ে অন্য দলের কর্মীদের হুমকি দিতে পারেন না।’ অধীর চৌধুরী যে তৃণমূল কর্মীকে তুলে আনার হুমকি দিয়েছেন বলে অভিযোগ, সেই কায়েস শেখ জানান, ‘আমি ভোটের প্রচারে গিয়েছিলাম অন্য কর্মীদের সঙ্গে। সেখান থেকে রাত দশটার মধ্যে আমি বাড়ি ফিরে আসি। তারপর অধীর চৌধুরী আমার পাড়ায় আসেন। তিনি হুমকি দিয়েছেন আমাকে যেন বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়।’ আগামী ২৭ ফেব্রুয়ারি, রবিবার বহরমপুরে পুর নির্বাচন। তার মধ্যেই উত্তেজনা ছড়াল শহরে। বহরমপুর থানার পুলিশ এই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

[আরও পড়ুন: Russia-Ukraine Crisis: ইউক্রেনে আটকে বহু মেডিক্যাল পড়ুয়া, উদ্বেগ বাংলার বিভিন্ন প্রান্তে]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে