BREAKING NEWS

৩ বৈশাখ  ১৪২৮  শনিবার ১৭ এপ্রিল ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

‘সোনার বাংলা গড়ার দাবি গিমিক, ধাপ্পা’, খোদ বিজেপি নেতার পোস্ট ঘিরে তুমুল বিতর্ক

Published by: Biswadip Dey |    Posted: March 21, 2021 9:44 pm|    Updated: March 21, 2021 9:44 pm

An Images

সৌরভ মাজি, বর্ধমান: প্রার্থী তালিকা ঘোষণা হওয়ার পর থেকেই ক্ষোভ বিক্ষোভ বাড়ছে বিজেপির (BJP) মধ্যে। কোথাও তা পার্টি অফিস ভাঙচুর, টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ আবার কখনও তা সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্টের মাধ্যমে প্রকাশ পাচ্ছে। যা বার বার রাজ্যের বিজেপিকে বিড়ম্বনায় ফেলছে। এই তালিকায় সাম্প্রতিক সংযোজন বর্ধমান পূর্ব লোকসভা কেন্দ্রে উনিশের বিজেপি প্রার্থী পরেশচন্দ্র দাসের ফেসবুক পোস্ট। যেখানে তিনি দলের ‘সোনার বাংলা’ গড়ার দাবিকে গিমিক, ধাপ্পা বলে দাবি করেন। পরে সেই পোস্ট ডিলিট করলেও তার স্ক্রিন শট ভাইরাল হয়ে যায়। যদিও বিষয়টিকে চক্রান্ত বলে ড্যামেজ কন্ট্রোলে নেমেছে বিজেপি।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ-সহ দলের ছোট বড় নেতারা স্লোগান তুলে দাবি করছেন ভোটে জিতলে সোনার বাংলা গড়বেন। কিন্তু রাজ্যে বিজেপির নেতা কর্মীরা সেটা কতটা আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে বলেন তা নিয়েই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। কারণ, গত লোকসভায় দলের প্রার্থীর মতো নেতা যখন সোনার বাংলা গড়ার দাবিকে ধাপ্পাবাজি বলে মনে করছেন।

[আরও পডু়ন: নতুন আইফোনের বাক্সে নেই চার্জার, প্রায় সাড়ে ১৪ কোটি টাকা জরিমানা অ্যাপেলকে]

শনিবার রাতে পরেশচন্দ্র দাস নিজের ফেসবুকে একটি পোস্ট করেন বলে জানা গিয়েছে। সেখানে তিনি লেখেন, “১৯৫৭-র পর থেকে বাংলা সেই যে সোনা চুরি হচ্ছে আজও সেই ট্র্যাডিশন চলছে। হয় তো ভবিষ্যত প্রজন্মও এর সাক্ষী থাকবে।… অথচ এখন আমরা সবাই বলছি সোনার বাংলা গড়ব। কি করে করবেন তা কিন্তু কেউ বলছেন না। এ নেহাতই গিমিক মনে হয়, ধাপ্পা ছাড়া কিছুই নয়”।

পোস্টটিতে ভুরি ভুরি লাইক কমেন্ট পড়তে দেরি করেনি। পোস্টটি ভাইরাল হওয়ার পরই তা তুলেও নেন পরেশচন্দ্র দাস। কিন্তু ততক্ষণে তার স্ক্রিনশট নিয়ে নিয়েছিলেন কয়েক জন। পরে যা সোশ্যাল মিডিয়া এবং মেসেজিং অ্যাপে ছড়িয়ে পড়ে।

[আরও পডু়ন: হাথরাসে নির্যাতিতার পরিবারকে হুমকি, মামলা সরানোর ভাবনা এলাহাবাদ হাই কোর্টের]

গোটা বিষয়টি নিয়ে রাত পর্যন্ত পরেশচন্দ্র পাল বা পূর্ব বর্ধমান (Purba Bardhaman)জেলার কোনও বিজেপি নেতার প্রতিক্রিয়া পওয়া যায়নি। যদিও জেলা বিজেপির একাংশের দাবি চক্রান্ত করা হচ্ছে দলের বিরুদ্ধে। তবে কে কেন চক্রান্ত করছে তা স্পষ্ট কোনও ইঙ্গিত মেলেনি। তবে আপাতত বিষয়টি নিয়ে জলঘোলা চলছেই।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement