BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

শ্বাসকষ্টের রোগীকে অ্যাম্বুল্যান্সে তোলার সময়ে পড়ে গিয়ে মৃত্যু, করোনাতঙ্কে কাছে গেল না কেউ

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: July 26, 2020 8:56 am|    Updated: July 26, 2020 8:57 am

An Images

জ্যোতি চক্রবর্তী, বনগাঁ: অমানবিক দৃশ্য এবার বনগাঁ হাসপাতালে (Bangaon Hospital)। রেফার করা রোগীকে অন্য হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার জন্য অ্যাম্বুল্যান্সে তোলার সময় পড়ে গিয়ে মৃত্যু হয় তাঁর। সেভাবেই হাসপাতালের সামনে দীর্ঘক্ষণ পরে থাকে দেহ। স্রেফ সংক্রমণের আতঙ্কে কাছে যাননি কেউ। অনেকটা সময় পেরিয়ে যাওয়ার পর উদ্ধার করা হয় তাঁর দেহ।

জানা গিয়েছে, শনিবার বিকেলে বনগাঁর বাসিন্দা ব্যবসায়ী মাধবনারায়ণ দত্তকে শ্বাসকষ্টের সমস্যার জন্য বনগাঁ মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যান পরিবারের সদস্যরা। করোনার (Corona Virus) উপসর্গ থাকায় তাঁকে ভরতি করা হয় বিশেষ ওয়ার্ডে। কিন্তু ভরতির পর থেকেই ক্রমশ তাঁর অবস্থার অবনতি হতে শুরু করে। সেই কারণে ওই ব্যবসায়ীকে কলকাতার হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন ডাক্তাররা। মাধবনারায়ণ দত্তকে অ্যাম্বুল্যান্সে তোলার জন্য স্ত্রী আলপনা দত্ত হাসপাতাল থেকে বের করতেই মাটিতে লুটিয়ে পড়েন ওই ব্যক্তি। দীর্ঘক্ষণ হাসাপাতালের বাইরে পড়ে থাকেন তিনি। কারণ, স্ত্রীর একার পক্ষে তাঁকে তোলা সম্ভব হয়নি। দীর্ঘক্ষণ পর খবর পেয়ে ডাক্তাররা এসে তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

[আরও পড়ুন: সরকারি হাসপাতালে দেহ বদল! সৎকারের আগে মৃতের মুখের প্লাস্টিক সরাতেই হতবাক পরিবার]

মৃতের স্ত্রীর কথায়, “স্বামীকে অ্যাম্বুল্যান্সে তোলার জন্য অনেকের সাহায্য চেয়েছি। কেউ এগিয়ে আসেনি। বাধ্য হয়ে নিজেই তোলার চেষ্টা করছিলাম। সেই সময়ই ও পড়ে যায়। তখনও কেউ এগিয়ে আসেন।” উপসর্গযুক্ত হওয়ায় সংক্রমণের আতঙ্কেই কেউ ওই ব্যক্তির কাছে যাননি বলেই মনে করা হচ্ছে। লাগাতার প্রকাশ্যে আসা এধরণের অমানবিক ঘটনার তীব্র নিন্দা করছেন সকলেই। প্রসঙ্গত, রাজ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমশ বেড়েই চলেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড সংক্রমণ হয়েছে রাজ্যে। রেকর্ড গড়েছে মৃতের সংখ্যাও। একদিনে করোনার বলিহয়েছেন রাজ্যের ৪২ জন।

[আরও পড়ুন: ‘সোজা বাংলায় বলছি’, জনতার মন পেতে নয়া প্রচারাভিযানে নামছে তৃণমূল কংগ্রেস]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement