BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

সরকারি হাসপাতালে দেহ বদল! সৎকারের আগে মৃতের মুখের প্লাস্টিক সরাতেই হতবাক পরিবার

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: July 25, 2020 8:54 pm|    Updated: July 25, 2020 8:54 pm

An Images

অঙ্কন: সুযোগ বন্দ্যোপাধ্যায়

সৌরভ মাজি, বর্ধমান: এবার ‘দেহ বদল’ হল বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজে (Burdwan Medical College)। সৎকারের আগে মৃতদেহের মুখে ঢাকা দেওয়া প্লাস্টিক সরাতেই চক্ষুচড়কগাছ পরিবারের। এ দেহ তো তাঁদের প্রিয়জনের নয়! সঙ্গে সঙ্গে হাসপাতালে যোগাযোগ করা হয়। পরে পরিবারের সদস্যের দেহ হাতে পান পরিজনরা।

বর্ধমানের (Bardhaman) গলসি থানার পশ্চিম খাসপাড়ার বাসিন্দা বছর সত্তরের রহমতুন্নেসা বিবি। শুক্রবার তাঁকে ভরতি করা হয়েছিল বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে। কিছুক্ষণ পরই মৃত্যু হয় তাঁর। কিন্তু করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট না আসায় ওইদিন দেহ পাননি পরিবারের লোকেরা। শনিবার বিকেলের দিকে দেহ দেওয়া হয় তাঁদের হাতে। আর দেহ আনার সময়ই ঘটে বিপত্তি। এদিন অনেকগুলি মৃতদেহ সংশ্লিষ্ট পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হয়। এক এক করে দেহগুলি বিভিন্ন গাড়িতে তোলা হয়। জানা গিয়েছে, রহমতুন্নেসার পরিবারের লোকজন অন্য একটি মৃতদেহের গাড়ি নিয়ে বাড়ি চলে আসেন।

[আরও পড়ুন: করোনা কালেও পুরোদমে কাজ, ৫১টি ইঞ্জিন তৈরি করে নজির চিত্তরঞ্জন রেল কারখানার]

সৎকারের আগে ভুল বুঝতে পারেন। ফের বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে গিয়ে রহমতুন্নেসার দেহ নিয়ে আসেন তাঁরা। তাঁরা যার দেহটি নিয়ে গিয়েছিলেন সেটি ফিরিয়ে দেন তাঁর পরিবারের লোকজনের হাতে। রহমতুন্নেসার পরিবারের লোকজন জানিয়েছেন, ভুলটা তাঁদেরই হয়েছে। হাসপাতালের কোনও ত্রুটি ছিল না।

[আরও পড়ুন: মাত্র ১ ঘণ্টায় মিলবে রিপোর্ট, করোনা পরীক্ষার যন্ত্র আবিষ্কার করে তাক লাগাল IIT খড়গপুর]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement