BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

মন্ত্রক নিয়ে বাবুলকে কটাক্ষ আসানসোলের মেয়রের, মিলল কড়া জবাব

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: June 2, 2019 9:05 pm|    Updated: June 2, 2019 9:05 pm

An Images

চন্দ্রশেখর চট্টোপাধ্যায়, আসানসোল : আসানসোলের মেয়রের সঙ্গে সাংসদের উত্তপ্ত বাক্যবিনিময় অব্যাহত। শনিবার জিতেন্দ্র তিওয়ারি বাবুল সুপ্রিয়র মন্ত্রক নিয়ে তীব্র কটাক্ষ করেছিলেন। রবিবার তার জবাবে তৃণমূল কংগ্রেসকে আক্রমণ করলেন বাবুল।

তিনি টুইট করেন, আসানসোলকে দূষণমুক্ত করতে ও অভব্য জনবিরোধী #TMছিঃ গুন্ডা, মাফিয়া অমানুষগুলিকে জঙ্গলে(Forest-এ) ছেড়ে দিয়ে এসে, যাতে আসানসোলের নোংরা তৃণমূলী রাজনীতির ‘Environment & Climate Change’করতে পারি, সেই জন্যই তো মন্ত্রকটি আমাকে দেওয়া হয়েছে. বোকা তৃণমূলীগুলি এটুকুও বোঝে না. বাচ্চা ছেলের মতো পুলিশের কাছে কান্নাকাটি করে। ভোট শেষ, মানুষ রায় দিয়ে দিয়েছে, এবার মানুষের টাকায় মানুষের কাজ হবে, #TMchhiর নোংরামি চলবে না।” গত শুক্রবার বনমন্ত্রকের দায়িত্বভার নিয়েছেন বাবুল সুপ্রিয়। এরপর শনিবারই আসানসোলের মেয়রের সঙ্গে তাঁর ফোনে উত্তপ্ত বাক্যবিনিময় হয়।

[আরও পড়ুন- শিলিগুড়িতে ইভটিজিংয়ের জেরে আত্মঘাতী কিশোরী]

জানা গিয়েছে, শনিবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় ফোন করেছিলেন আসানসোলের মেয়র জিতেন্দ্র তিওয়ারিকে। অভিযোগ ছিল, মেয়র কয়েকদিন ধরেই বাবুলের নাম করে অশালীন ভাষায় আক্রমণ করছেন। এর প্রেক্ষিতেই বাবুল ফোন করেন তাঁকে। অশালীন ভাষার ব্যবহার বন্ধ করে আসানোলের মানুষের উন্নয়নের জন্য তাঁকে সহযোগিতা করতে আহ্বান জানান। ৩ মিনিট ৩৭ সেকেন্ডের কথাবার্তায় দু’পক্ষের মধ্যে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় হয়। এরপরই আসানসোল দক্ষিণ থানায় বাবুলের নামে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ দায়ের করেন মেয়র।

[আরও পড়ুন- সিভিক ভলান্টিয়ারের ‘তোলাবাজি’! দুর্ঘটনায় যুবকের মৃত্যু ঘিরে রণক্ষেত্র]

সেসময়ই তিনি কটাক্ষ করে বলেন, “ওনাকে(বাবুলকে) প্রধানমন্ত্রী ভাল মন্ত্রক দেয়নি তো আমি কী করব? হতাশা থেকেই সেই রাগ আমার ওপর ঝাড়ছে।” বাবুলকে পরামর্শ দিয়েছিলেন, “আসানসোলের আবহাওয়া খুব গরম। তাই ঠান্ডা করতে বেশি বেশি গাছ লাগান।” তাঁর এই মন্তব্যের প্রেক্ষিতেই রবিবার টুইট করেন বাবুল সুপ্রিয়। টুইটে তিনি টিএমসিকে টিএমছিঃ বলে কটূক্তি করেছেন। উল্লেখ করেছেন, তৃণমূলের অভব্য আচরণ ও জনবিরোধী কার্যকলাপের ফলে আসানসোল তথা রাজ্যে দূষণ তৈরি হয়েছে। সেই দূষণ দূর করে মুক্ত পরিবেশ তৈরি করবেন তিনি।

বাবুল সুপ্রিয়র অভিযোগ, গত পাঁচ বছর ধরে তাঁকে কাজ করতে দেওয়া হয়নি। নোংরা রাজনীতি করে মানুষের কাজ আটকে দেওয়া হয়েছে। এর যোগ্য জবাব মানুষই দিয়েছেন। ভোট শেষ, মানুষ রায় দিয়েছেন। এবার মানুষের টাকায় কাজ হবে বলে আশাপ্রকাশ করেছেন তিনি।

রবিবার বাবুল সুপ্রিয়র টুইট নিয়ে মুখ খোলেন মেয়র জিতেন্দ্র তিওয়ারিও। তিনি বলেন, “আগে বাবুল সুপ্রিয় নিজের দলের শুদ্ধিকরণ করুন। দলের নোংরা লোককে দূর করে দূষণমুক্ত করুন। তৃণমূলকে নিয়ে তাঁকে ভাবতে হবে না। বাবুল সুপ্রিয় যা করেন ফেসবুক, টুইটার আর ফোনে। আবারও বলছি মাঠে নেমে লড়াই করুন না। ওনার মহিশীলাতে যে ফ্ল্যাট রয়েছে সেখানকার মাঠে ১৫ দিনের মধ্যে সভা করব। জিতেন্দ্র তিওয়ারি কী জিনিস বুঝবে সেদিন। ক্ষমতা থাকলে সেখানে আসুন। বাবুল একটা বাচ্চা ছেলে হুজুগে জিতে গেছে। ওরকম বাবুল সুপ্রিয়কে পকেটে রাখি।”

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement