BREAKING NEWS

২৮ শ্রাবণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১৩ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

‘জনবিরোধী’ সরকার গড়ার ডাক, তৃণমূল প্রার্থীর দেওয়াল লিখন ঘিরে বিতর্ক

Published by: Sayani Sen |    Posted: March 25, 2019 7:02 pm|    Updated: March 25, 2019 7:08 pm

An Images

শংকর রায়, রায়গঞ্জ: বেজে গিয়েছে ভোটের দামামা৷ পাড়ায় পাড়ায় জোরকদমে চলছে দেওয়াল লিখনের কাজ৷ এরই মাঝে তৃণমূল প্রার্থীর দেওয়াল লিখন নিয়ে উঠেছে সমালোচনার ঝড়৷ দেওয়ালে লেখা ‘জনবিরোধী’ শব্দ নিয়েই তৈরি হয়েছে বিতর্ক৷ কীভাবে তৃণমূল প্রার্থীর দেওয়াল লিখনে এমন শব্দবিভ্রাট ঘটল, তা নিয়ে রাজনৈতিক মহলে চলছে জোর তরজা৷ এই ঘটনার নেপথ্যে বিজেপির যোগসাজশ দেখছে ঘাসফুল শিবির৷ তবে এনিয়ে মুখে কুলুপ বিজেপি নেতৃত্বের৷ 

[ আরও পড়ুন: ‘বাংলায় গণতন্ত্র নেই’, তারাপীঠে পুজো দিয়ে রাজ্যের বিরুদ্ধে সরব দুধকুমার]

নির্বাচনের দিনক্ষণ ঘোষণা হয়েছে আগেই৷ বেশি সময় নষ্ট না করে সবার আগে প্রার্থীতালিকা ঘোষণা করেছেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ রায়গঞ্জ লোকসভা কেন্দ্র থেকে চলতি লোকসভা নির্বাচনে ঘাসফুল শিবিরের হয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ইসলামপুরের বিধায়ক কানাইয়ালাল আগরওয়াল৷ তাঁর প্রচারে ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে দেওয়াল লিখনের কাজ৷ রায়গঞ্জের কলেজপাড়ায় একটি দেওয়াল লিখন ঘিরেই যত বিতর্কের সূত্রপাত৷ ওই দেওয়াল লিখনে জ্বলজ্বল করছে –  ‘কেন্দ্রে ‘‘জনবিরোধী’’ সরকার গড়ে তুলতে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী কানাইয়ালাল আগরওয়ালকে ভোট দিন৷’ দেওয়াল লিখনে শব্দবিভ্রাট ঘিরে আলোচনার শেষ নেই৷ ‘জনদরদী’র পরিবর্তে কীভাবে কোনও রাজনৈতিক দলের দেওয়াল লিখনে ‘জনবিরোধী’ শব্দ লেখা হল, তা নিয়ে উঠেছে সমালোচনার ঝড়৷ 

[ আরও পড়ুন: গান গাওয়ার আবদার সমর্থকের, ভরা সভায় মেজাজ হারালেন শতাব্দী রায়]

এই বিষয়টি নিয়ে রাজনৈতিক তরজাও ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে৷ তৃণমূল প্রার্থী কানাইয়ালালের দাবি, দেওয়াল লিখন কোনও দলীয় কর্মী করেননি৷ এজেন্সির মাধ্যমে তা করানো হয়েছে৷ আর এজেন্সির কাজেই বিজেপির চক্রান্তে এমন শব্দবিভ্রাট বলেই জানিয়েছেন তৃণমূল প্রার্থী৷ একই সুর জেলা তৃণমূল সভাপতি অমল আচার্যের গলাতেও৷ তিনিও গোটা ঘটনার নেপথ্যে গেরুয়া শিবিরের ইন্ধনকেই দায়ী করেছেন৷ এই বিষয়টি নিয়ে ঘোলা জলে মাছ ধরতে নেমে পড়েছেন বিরোধীরাও৷ সিপিএম নেতা মহম্মদ সেলিম বলেন, ‘‘এ বিষয়ে ব্যক্তিগতভাবে কিছুই বলব না৷ তবে মানুষ বিচার করবেন জনবিরোধী কারা৷’’ কংগ্রেস প্রার্থী দীপা দাশমুন্সি বলেন, ‘‘মানুষ দেখছেন বাংলার শাসকদল জনদরদী নাকি জনবিরোধী৷ দেওয়াল লিখনে তারই বহিঃপ্রকাশ৷’’

[ আরও পড়ুন: ‘বাংলায় গণতন্ত্র নেই’, তারাপীঠে পুজো দিয়ে রাজ্যের বিরুদ্ধে সরব দুধকুমার]

রাজনীতিকরা যাই বলুন না কেন, নেটিজেনরা কে দায়ী আর কে নয়, তা নিয়ে মাথা ঘামাতে নারাজ৷ পরিবর্তে এই দেওয়াল লিখনই এখন কার্যত সোশ্যাল মিডিয়া তথা এলাকাবাসীর হাসির খোরাকে পরিণত হয়েছে৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement