BREAKING NEWS

১৯ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  সোমবার ৬ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

মিহিদানা খেয়ে বিপত্তি, মুর্শিদাবাদে অসুস্থ অন্তত ৪৫ জন শিশু

Published by: Sayani Sen |    Posted: November 22, 2021 8:46 pm|    Updated: November 22, 2021 8:46 pm

At least 45 babies hospitalized with food poisoning । Sangbad Pratidin

ছবি: প্রতীকী

চন্দ্রজিৎ মজুমদার, কান্দি: মিহিদানা খাওয়াই কাল। অসুস্থ অন্তত ৪৫ জন। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে মুর্শিদাবাদের (Murshidabad) ভরতপুর থানার আমরাই গ্রাম পঞ্চায়েতের আমলায় গ্রামে ব্যাপক চাঞ্চল্য। অসুস্থরা ভরতপুর গ্রামীণ হাসপাতালে ভরতি। 

সোমবার সকালে একজন মিহিদানা বিক্রেতা আসেন। ওই মিহিদানাই খাবার পর থেকেই গ্রামের একের পর এক শিশু অসুস্থ হতে শুরু করে। তাদের প্রত্যেকের উপসর্গ প্রায় একইরকম। শিশুদের বমি এবং পায়খানা শুরু হয়। সন্ধেয় অসুস্থতা  আরও বাড়তে থাকে। তাদের ভরতপুর গ্রামীণ হাসপাতালে ভরতি করা হয়। আপাতত সেখানেই চিকিৎসা চলছে শিশুদের। চিকিৎসকরা জানান, প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে খাদ্যে বিষক্রিয়ার জেরে এই ঘটনা ঘটেছে। তাদের প্রত্যেকের শারীরিক অবস্থাই স্থিতিশীল। 

[আরও পড়ুন: SSC গ্রুপ ডি নিয়োগে ‘বেনিয়ম’, সিবিআই তদন্তের নির্দেশ কলকাতা হাই কোর্টের]

মিহিদানা খেয়ে শিশুদের অসুস্থ হয়ে পড়ার ঘটনায় আতঙ্কিত গ্রামবাসীরা। আমলাই গ্রামের বাসিন্দারা জানিয়েছেন, “সন্ধে থেকেই আমাদের বাড়ির বাচ্চারা বমি, পায়খানা করতে শুরু করে। তারা ক্রমশ অসুস্থ হয়ে পড়ছে দেখে আমরা ভরতপুর গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যাই। চিকিৎসকেরা প্রাথমিকভাবে দেখে খাদ্যে বিষক্রিয়ার জন্যই এই ঘটনা বলে আমাদের জানিয়েছেন।”

ভরতপুরের ব্লক স্বাস্থ্য আধিকারিক অবিনাশ কুমার জানিয়েছেন, প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে খাদ্যে বিষক্রিয়ার জন্যই অসুস্থতা । এখনও পর্যন্ত ৪৫ জন শিশুকে ভরতি করা হয়েছে। চিকিৎসা চলছে সকলের। এ প্রসঙ্গে আমলাই গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান মিঠু দাস জানিয়েছেন, “আমরা খবর পাওয়ার পরই বাচ্চাদের উদ্ধার করে ভরতপুর ব্লক হাসপাতালে নিয়ে গিয়েছি। পুলিশকে সব কিছু জানানো হয়েছে।”  ভরতপুর থানার পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, ওই মিহিদানা বিক্রেতার খোঁজ শুরু করা হয়েছে।  

[আরও পড়ুন: গাড়ির ধাক্কায় নাগেরবাজার উড়ালপুল থেকে ছিটকে নিচে পড়লেন মহিলা, হাসপাতালে মৃত্যু]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে