BREAKING NEWS

৪ আশ্বিন  ১৪২৮  মঙ্গলবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

স্টিমে চলা ডুলি অচল, ৪ ঘণ্টা খনিগর্ভেই আটকে কোলিয়ারির শ্রমিকরা

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: November 3, 2019 3:54 pm|    Updated: November 3, 2019 3:54 pm

Atleast 70 labours trapped into the colliary in Durgapur for 4 hours

সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়,দুর্গাপুর: কাজের দিনে খনির ডুলি অচল হয়ে পড়ায় খনিগর্ভে টানা চার ঘণ্টা আটকে রইলেন শ্রমিকরা। দুর্গাপুরে ইসিএলের কাজোরা এরিয়ার পরাশকোলে মুকুন্দপুর কোলিয়ারিতে আটকে পড়া ৭০ জন শ্রমিককে আজ দুপুরে উদ্ধার করা হয়েছে। কোলিয়ারি সেফটি অফিসারের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগে আজ দিনের প্রথমার্ধ্বে উৎপাদন বন্ধ রাখলেন শ্রমিকরা। সেইসঙ্গে চলল বিক্ষোভও।
শনিবার রাতের শিফটে বারোটা নাগাদ ইসিএলের কাজোরা এরিয়ার পরাশকোলের মুকুন্দপুর ইস্ট কোলিয়ারির খনিগর্ভে কাজে নামেন ৭০ জন খনি শ্রমিক। ডুলির সাহায্যে খনির ভিতরে নামেন তাঁরা। এই ডুলি বয়লারের স্টিমের সাহায্যে ওঠানামা করে। নিয়ম অনুযায়ী, রাতের শিফট শেষ হয় সকাল ৮ টা নাগাদ। কিন্তু রবিবার ভোর থেকেই শুরু হয়েছে বয়লার সংস্কারের কাজ। তার জন্য বয়লার থেকে বের করে ফেলা হয় সমস্ত স্টিম। ফলে সময়মতো খনিগর্ভ থেকে উঠতে পারেননি শ্রমিকরা।

[আরও পড়ুন: পারিবারিক বিবাদের জেরে স্ত্রীকে খুন মদ্যপের, চাঞ্চল্য আলিপুরদুয়ারে]

রবিবার সকালে এভাবে শ্রমিকরা আটকে থাকার খবর ছড়িয়ে পড়তেই কোলিয়ারিতে পৌঁছে যায় শ্রমিকদের উদ্বিগ্ন পরিবার। চলে আসেন শ্রমিক সংগঠনের নেতা, কর্মীরাও। কোলিয়ারির সেফটি অফিসার গৌতম সাহার বিরুদ্ধে ক্ষোভে ফেটে পড়েন তাঁরা। আইএনটিটিইউসি অনুমোদিত শ্রমিক সংগঠন কয়লা খাদান শ্রমিক কংগ্রেসের কোলিয়ারির সম্পাদক গৌতম মণ্ডলের অভিযোগ, “সেফটি অফিসারের দায়িত্বজ্ঞানহীন কাজের ফলেই এই শ্রমিকদের জীবন সংশয় হতে যাচ্ছিল। কাজের দিনে এইভাবে বয়লার সংস্কারের নির্দেশ কে দিল, তা নিয়ে পূর্নাঙ্গ তদন্ত করতে হবে।’’

[আরও পড়ুন: সংসার থেকে আলাদা হতে চায় ছেলে, কোদালের কোপে সন্তানকে খুন বাবার]

সকাল থেকেই উৎপাদন বন্ধ করে বিক্ষোভে শামিল হন শ্রমিকরা। খনিগর্ভে আটকে থাকা শ্রমিকদের জন্যে কর্তৃপক্ষ খাবার, জল-সহ প্রয়োজনীয় ওষুধও পাঠায়। দুপুর বারোটা নাগাদ বয়লারের সংস্কারের কাজ শেষ হলে একে একে ডুলির সাহায্যে উপরে তোলা হয় খনি শ্রমিকদের। পরাশকোলের মুকুন্দপুর ইস্ট কোলিয়ারির এজেন্ট সত্যকান্ত আনন্দ জানান, “কী করে এই ঘটনা ঘটল, তদন্ত করে দেখা হবে।” শ্রমিকরা সুস্থ শরীরে খনিগর্ভ থেকে ওঠার পর দুপুর সাড়ে বারোটা নাগাদ ফের শুরু হয় কোলিয়ারির উৎপাদন।

DGP-colliary1
ছবি: উদয়ন গুহরায়।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

×