BREAKING NEWS

১২ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

‘পরিবর্তন যাত্রা’য় বেরিয়ে আক্রান্ত দিলীপ ঘোষ, মিনাখাঁয় তাঁর কনভয়ে বোমাবাজি

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: February 20, 2021 5:52 pm|    Updated: February 20, 2021 8:21 pm

Attack on Dilip Ghosh's convoy at parivartan Rally at Basirhat, bombing |SangbadPratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিজেপির (BJP) ‘পরিবর্তন যাত্রা’ ঘিরে ধুন্ধুমার। উত্তর ২৪ পরগনার বসিরহাটের মালঞ্চ এলাকায় বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের কনভয় লক্ষ্য করে বোমাবাজির অভিযোগ। শনিবার বিকেলে মিনাখাঁ-বাসন্তী হাইওয়ে দিয়ে দিলীপ ঘোষের নেতৃত্বে রথযাত্রা যাওয়ার সময়ে আটকানো হয়, চলে বোমাবাজি। ট্যাবলোয় ভাঙচুর করা হয়। তা ঘিরেই ধুন্ধুমার বেধে যায়। অভিযোগ তৃণমূল (TMC) সমর্থকদের দিকে। পালটা আবার এলাকার তৃণমূল পার্টি অফিসেও হামলা চলে বলে অভিযোগ। দীর্ঘক্ষণের চেষ্টায় বিশাল পুলিশবাহিনী, র‍্যাফ, কমব্যাট ফোর্স পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। জখম হয়েছেন দু’পক্ষের বেশ কয়েকজন।

রাজ্যে বিধানসভা ভোটের আগে জানুয়ারিতে বিজেপি সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নাড্ডার হাত ধরে ‘পরিবর্তন যাত্রা’র (Partivartan Rally) সূচনা হয়। এরপর প্রচারে এসে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে রথযাত্রার আনুষ্ঠানিক সূচনা করে দিয়েছেন দিল্লির নেতারা। এবার রাজ্য বিজেপির নেতানেত্রীদের হাতে ‘রথে’র রশি। সেভাবেই দিলীপ ঘোষের নেতৃত্বে শনিবার রথযাত্রা বেরিয়েছিল উত্তর ২৪ পরগনার বসিরহাটের (Basirhat) মালঞ্চ থেকে। অভিযোগ, কিছুক্ষণ পরই রথের ট্যাবলো লক্ষ্য করে বোমাবাজি হয়। তা ছিঁড়ে ফেলা হয়। পাশাপাশি, দিলীপ ঘোষের কনভয় লক্ষ্য করে বোমাবাজি হয় বলেও অভিযোগ। হামলায় তাঁর কনভয়ের দুটি গাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তবে দিলীপ ঘোষ নিরাপদেই রয়েছেন। রথের সঙ্গে বাইক মিছিলও করছিলেন বিজেপির কর্মী, সমর্থকরা। সেসময় তৃণমূলের কর্মীদের সঙ্গে তাঁদের বচসা বাধে। সেখান থেকে শুরু হয় হাতাহাতি। এরপরই পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। 

[আরও পড়ুন: আরও মসৃণ হচ্ছে রাজ্যের যোগাযোগ ব্যবস্থা, হাবড়া থেকে চালু ৪ দূরপাল্লার রুটের বাস]

এর আগে গত ১২ তারিখ বামেদের বাংলা বন্‌ধের দিন মুর্শিদাবাদের কান্দিতে বিজেপির রথযাত্রা নিয়ে উত্তেজনা ছড়িয়েছিল। ওইদিন আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি অবনতি এবং নিরাপত্তার কথা ভেবে ওই এলাকায় দুপুরে রথ আটকে দিয়েছিল পুলিশ। বিজেপি কর্মীদের সঙ্গে বচসাও হয় তাঁদের। যদিও পুলিশের দাবি ছিল, রথ আটকে দেওয়া হয়নি। বন্‌ধের কারণে নিরাপত্তার কথা ভেবে তা থামাতে বলা হয়েছিল। পরবর্তী সময়ে ফের রথ এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার অনুমতি দেওয়া হতো। ওইদিন কিছুক্ষণ পরই অবশ্য রথযাত্রা এগিয়ে যায় জিয়াগঞ্জের দিকে। কিন্তু বসিরহাটের মালঞ্চ এলাকায় শনিবার রথযাত্রা ঘিরে যে পরিস্থিতি তৈরি হল, তা ভোটের আগে বেশ উদ্বেগের বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল। 

[আরও পড়ুন: ভোটের আগে স্বস্তি, গুরুংয়ের বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহারের প্রক্রিয়া শুরু রাজ্য সরকারের]

 এ নিয়ে দিলীপ ঘোষ বলেন, “রাজ্যজুড়ে যে পরিবর্তন যাত্রা রথ বেরিয়েছে, সেই কর্মসূচিতে ভয় পেয়েছে তৃণমূল। সে জন্য বিভিন্ন জায়গায় তারা পরিকল্পিত আক্রমণ করে এই রথযাত্রার ভেস্তে দিতে চাইছিল ৷” জেলা তৃণমূল সভাপতি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের পালটা প্রতিক্রিয়া, “এদিনের ঘটনাটি বিজেপির পরিকল্পিত চক্রান্ত । তারা নিজেরাই ইট-পাথর জোগাড় করে কনভয়ে ছুঁড়েছে তৃণমূলকে বদনাম করতে”। 

 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে