১৯ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  সোমবার ৬ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

জঙ্গলে ঢুকে গাড়ি ভরতি চোরাই কয়লা আটক বাবুল সুপ্রিয়র

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: March 12, 2019 9:00 am|    Updated: March 12, 2019 9:00 am

Babul Supriyo detained illegal truck of coal

চন্দ্রশেখর চট্টোপাধ্যায়, আসানসোল :  নিজের কেন্দ্রে বরাবরই সক্রিয় আসানসোলের সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়। নানা বিষয়ে তাঁকে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে দেখা গিয়েছে আগেও। এবারও চোরা কারবার রুখতে নেমে পড়লেন নিজেই। জঙ্গলে নেমে চোরাই কয়লা ট্রাক আটকালেন বাবুল সুপ্রিয়। রবিবার তিনি দলীয় অনুষ্ঠানে যোগ দিতে যাওয়ার সময় হঠাৎই রাস্তা থেকে নেমে জঙ্গলের মধ্যে ঢুকে পড়েন অবৈধ এক  খনি এলাকায়। কয়লা বোঝাই লরিকে হাতেনাতে ধরে ফেলেন সাংসদ। 

কুপ্রস্তাব মানেননি ব্লক স্বাস্থ্য আধিকারিক, বেধড়ক মারধর আশাকর্মীর

শুধু এখানেই থেমে রইলেন না। ব্যবস্থা নিলেন যথাযথ। লরিতে  উঠে চাবি খুলে নেন বাবুল সুপ্রিয়। আসানসোল দক্ষিণ থানায় অভিযোগও দায়ের করেন আসানসোলের সাংসদ। কিন্তু কিছুক্ষণ পরই ঘটনাস্থল থেকে উধাও হয়ে যায় লরিটি। তারপরই পুলিশের দিকে আঙুল তুললেন বাবুল। ঘটনাটি ঘটেছে আসানসোল দক্ষিণ থানার অর্ন্তগত কালিপাহাড়ির কাছে চেলোদ এলাকায়। রবিবার সন্ধ্যায় রানিগঞ্জের চেলোদ এলাকায় বিজেপির একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে যাচ্ছিলেন তিনি। কালিপাহাড়ি জঙ্গলের রাস্তা দিয়ে যাওয়ার সময় তাঁর কাছে খবর আসে, জঙ্গলের ভিতর বেআইনি কয়লার ডিপো চলছে। বিষয়টি খতিয়ে দেখতে জঙ্গলের ভিতর দলীয় কর্মী ও নিরাপত্তাবাহিনী নিয়ে ঢুকে পড়েন বাবুল। জঙ্গলে ঢুকতেই বেআইনি কয়লার ডিপো দেখতে পান।

তৃণমূলের প্রার্থীতালিকায় চমক, থাকছেন একাধিক সুপারস্টার

এলাকার খোদ সাংসদ-সহ এত লোক দেখে বেআইনি কারবারিরা গা ঢাকা দেন। ঘটনাস্থলে গিয়ে নিজেই কয়লার গাড়িতে উঠে লরির চাবি খুলে নেন বাবুল। অনুষ্ঠানের পরে সেই ঘটনার ভিডিও তিনি ফেসবুকে ছড়িয়ে দেন। এরপর দলীয় সভায় গিয়ে বাবুল সুপ্রিয় বলেন, “লরিটিকে ধরে চাবি নিয়ে চলে এসেছি। চিন্তা করবেন না, সব বন্ধ করে দেব। চাবি আমার পকেটে রয়েছে। কারোর হিম্মত থাকলে চাবি নিয়ে যাক।” যদিও ফেরার পথে দেখা যায়, লরিটি ঘটনাস্থল থেকে উধাও হয়ে গেছে। পুলিশ কমিশনার লক্ষ্মীনারায়ণ মিনা জানিয়েছেন, জঙ্গলের কাছে অবৈধ খনি থেকে কয়লা উত্তোলন এবং পাচার নিয়ে তাঁর কাছে কোনও লিখিত অভিযোগ আসেনি। তিনি বিষয়টি খোঁজ
নিয়ে দেখবেন। সম্প্রতি চেলোদ গ্রামে ও এগারা গ্রামে তৃণমূল ছেড়ে বেশ কয়েকজন বিজেপিতে যোগ দেন। বিজেপির দাবি, প্রায় তিনশো কর্মী বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। ফলে পাল্লা আরও ভারী হয়েছে বিজেপি সাংসদের।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে