BREAKING NEWS

১০ মাঘ  ১৪২৮  সোমবার ২৪ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

কোচবিহারে অবাক কাণ্ড! ব্যালট বাক্স কুড়িয়ে পেয়ে বানানো হল মুড়ির টিন

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: May 16, 2018 10:14 am|    Updated: May 16, 2018 10:14 am

Ballot box turned into puffed rice container in Cooch Behar

বিক্রম রায়, কোচবিহার: ছিল ব্যালট, হয়ে গেল মুড়ি। ভোটের ব্যালট বাক্সে মুড়ি! তাও আবার কুড়িয়ে পেয়ে ঘরে নিয়ে গিয়ে। ব্যালট বাক্স লুঠ, জলে ফেলে দেওয়া, আগুন দেওয়ার পাশাপাশি এবার এমনই আজব কাণ্ড ঘটল কোচবিহারের পানিশালা এলাকার ভজনপুরের একটি বুথে।

[কড়া নিরাপত্তায় রাজ্যের ৫৭১টি বুথে শুরু হল পুনর্নির্বাচন]

সোমবার ভোটের দিনভর ব্যালট বাক্স নিয়ে টানাটানি, লুঠ, জলে ফেলা, আগুন ধরিয়ে দেওয়ার মতো ঘটনার সাক্ষী থেকেছে কোচবিহার। সেই ট্র‌্যাডিশন চলেছে গভীর রাত পর্যন্ত। কোচবিহারের আমবাড়ি এলাকার একটি বুথে ব্যালট বাক্সে জল ঢেলে দেওয়া হয়। সিতাই ব্লকের একটি বুথে ব্যালট বাক্সে আগুন ধরিয়ে দেওয়ার অভিযোগও উঠেছে। কিন্তু সেসব ছাপিয়ে গিয়েছে মুড়ির টিন বানানোর ঘটনা। এই ঘটনায় এখন ফিরছে লোকের মুখে মুখে। কোচবিহারের ভোজনপুর এলাকায় মঙ্গলবার সকালেও ব্যালট বাক্স রাস্তার ধারে পড়ে থাকতে দেখা গিয়েছে। সেখানে রাতভর তাণ্ডব চলে। ব্যালট বাক্স ভাঙচুর করে রাস্তায় ফেলে রেখে পালিয়ে যায় দুষ্কৃতীরা। তারই একটি কুড়িয়ে পেয়ে বাড়িতে নিয়ে যান সেখানকার এক ব্যক্তি। বাড়িতে নিয়ে গিয়ে সেই বাক্সেই মুড়ি রেখে দেন তিনি। খবর জানাজানি হতেই প্রশাসনিক মহলে চাঞ্চল্য ছড়ায়। তবে পুনর্নির্বাচন হওয়ায় ওই ব্যালট বাক্স আর দরকার পড়েনি। তবে রাত পর্যন্ত ওই ব্যালট বাক্স প্রশাসনের পক্ষ থেকে উদ্ধারের জন্য কেউ ওই ব্যক্তির বাড়িতে যাননি বলেই খবর।

উল্লেখ্য, নির্বাচন কমিশন নিরাপত্তার আশ্বাস দিলেও নবম পঞ্চায়েত নির্বাচনে রোখা যায়নি মৃত্যুমিছিল৷ গত দু’দিনে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে ভোটসংক্রান্ত হিংসার বলি হয়েছেন ২৩ জন। আক্রান্ত হয়েছে শাসক-বিরোধ উভয়েই| কোথাও পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে ব্যালট বাক্স, আবার কথাও ঢেলে দেওয়া হয়েছে জল| অশান্তির জেরে বুধবার বা আজ ফের ভোটগ্রহণ ৫৭১টি বুথে। এবার হিংসা রুখতে বুথে মোতায়েন করা হয়েছে পর্যাপ্ত সশস্ত্র বাহিনী।

[পুরুলিয়ায় গভীর রাত পর্যন্ত চলল ভোট, বুথের বাইরেই ঘুমিয়ে গেলেন ভোটাররা]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে