১৭ চৈত্র  ১৪২৬  মঙ্গলবার ৩১ মার্চ ২০২০ 

Advertisement

তৃণমূলের পথে হেঁটে এবার ‘বিজেপিকে বলো’ কর্মসূচি আনছে গেরুয়া শিবির

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: February 15, 2020 8:45 pm|    Updated: February 15, 2020 8:45 pm

An Images

রূপায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়: লোকসভা নির্বাচনে আশাতীত ফল না হওয়ার পর ভোট কৌশলী প্রশান্ত কিশোরের দ্বারস্থ হয়েছিল তৃণমূল। দায়িত্ব নিয়েই পিকের প্রথম মাস্টারস্ট্রোক ছিল, ‘দিদিকে বলো’। টোল ফ্রি নম্বরে ফোন করে রাজ্যের বহু মানুষ তাংদের অভাব-অভিযোগ জানিয়েছেন। কিছু সুরাহা হয়েছে, কিছু হয়নি। মোটের উপর সফল সেই কর্মসূচি। এবার তৃণমূলের পথে হেঁটেই ‘বিজেপিকে বলো’ কর্মসূচি আনছে গেরুয়া শিবির। পুরভোটের আগে সব পুরসভার দূর্নীতি জানতে টোল ফ্রি নম্বর চালু হচ্ছে। সেখানে এলাকার মানুষ ফোন করে তূণমূল পরিচালিত পুরসভার বিরুদ্ধে অভিযোগ জানাতে পারবে। নির্বাচনী প্রচারে যা হাতিয়ার করবে বিজেপি।

টোল ফ্রি নম্বরের উদ্দেশ্য হল, বিভিন্ন পুরসভার কাজকর্ম, দুর্নীতি, পরিষেবার অভাব ইত্যাদি ওই নম্বরে জানাতে পারবেন সাধারণ মানুষ। পুরভোটের প্রস্তুতিতে সাধারণ মানুষের অভাব-অভিযোগ কাজে লাগবে। এতে ভাল সাড়া মিলবে বলে আশা বঙ্গ বিজেপি নেতৃত্বের। রাজ্যের প্রতিটি পুরসভার জন্য আলাদা আলাদা ইস্তেহার প্রকাশের পরিকল্পনা নিয়েছে রাজ্য বিজেপি। রাজ্যস্তরে একটি ইস্তেহারও প্রকাশ করা হবে।

[আরও পড়ুন: পুরভোটে তৃণমূলকে চ্যালেঞ্জ দিতে ডাকাবুকো প্রার্থীই প্রথম পছন্দ বিজেপির]

রাজ্যে আসন্ন পুরভোটের প্রস্তুতি নিয়ে শনিবার কলকাতায় আইসিসিআর অডিটোরিয়ামে দলের সাংসদ, বিধায়ক, জেলা সভাপতি ও রাজ্য পদাধিকারীদের নিয়ে রুদ্ধদ্বার বৈঠক করল বিজেপি। উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের দায়িত্বপ্রাপ্ত বিজেপির দুই কেন্দ্রীয় নেতা শিবপ্রকাশ ও অরবিন্দ মেনন, রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ, রাহুল সিনহা, নির্বাচনী ম্যানেজমেন্ট কমিটির আহ্বায়ক মুকুল রায়, সুব্রত চট্টোপাধ্যায়, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরি প্রমুখ। কোন পুরসভার কী পরিস্থিতি রয়েছে, সেখানকার দলের সাংসদদের বিশেষ দায়িত্ব দেওয়া, প্রতিটি পুরসভার নির্বাচনী কমিটি করা-এসব বিষয় নিয়েই আলোচনা হয়।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement