১২ কার্তিক  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৯ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

‘বিক্রি করে দেওয়া হচ্ছে দেশের গর্ব’, রেল বেসরকারিকরণের প্রতিবাদে বিক্ষোভ তৃণমূলের

Published by: Paramita Paul |    Posted: September 20, 2020 7:51 pm|    Updated: September 21, 2020 1:42 pm

An Images

সুব্রত বিশ্বাস: রেল বেসরকারিকরণের প্রতিবাদে রবিবার হাওড়া স্টেশনের সামনে বিক্ষোভ দেখাল তৃণমূলের শ্রমিক সংগঠন। তৃণমূলের জেলার চেয়ারম্যান অরূপ রায় ও শ্রমিক সংগঠনের জেলার সভাপতি অরূপেশ ভট্টাচার্যের নেতৃত্বে এই বিক্ষোভে প্রধানমন্ত্রীর কুশপুতুল দাহ করা হয়। এদিন কেন্দ্রের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগড়ে দেন তৃণমূল শ্রমিক সংগঠনের নেতা কর্মীরা।এ দিন সাতরাগাছি, শালিমার, বেলুড়, লিলুয়া স্টেশন সংলগ্ন এলাকায় এনিয়ে বিক্ষোভ দেখায় তৃণমূলের তাঁরা।

প্রসঙ্গত, বেসরকারি সংস্থার হাতে তুলে দেওয়া ১৫১টি ট্রেন। এর মধ্যে রয়েছে ১৫টি রুটের দূরপাল্লার ট্রেনও। গত ডিসেম্বর মাসেই এই ১৫১টি ট্রেনকে বেসরকারি হাতে তুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল নীতি আয়োগ। বেশ কিছু সংস্থা ইতিমধ্যেই ওই ট্রেন চালাতে আগ্রহী বলে জানিয়েছিল। তারপর থেকেই দেশজুড়ে আমজনতার মধ্যে ক্ষোভ বেড়েছে। তাঁদের কথায়, রেল বেসরকারি হাতে গেলে পরিষেবা নিয়ে অনিশ্চয়তা তৈরি হবে। বাড়বে ভাড়াও। এমনকী, বহু কর্মী চাকরি এই বেসরকারিকরণের প্রতিবাদেই এদিন বিক্ষোভের ডাক দিয়েছিল তৃণমূল কংগ্রেস।

[আরও পড়ুন : ধর্ষণের পর বিষ খেয়ে আত্মঘাতী ছাত্রী, মৃত্যুর আগে ভিডিও বার্তায় ধরিয়ে দিল অপরাধীকে]

এদিন মন্ত্রী অরূপ রায় বলেন, “দেশের গর্ব ভারতীয় রেল। তা বিক্রি করে দিচ্ছে কেন্দ্র। দেশের ক্ষতির পাশাপাশি কর্মীরাও চাকরি হারাতে চলেছেন। রেল যাতে বেসরকারিকরণ না হয় কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে দাবি জানাচ্ছি। লাভজনক সংস্থাগুলিকে বেসরকারিকরণের বিরুদ্ধে আমাদের লাগাতার আন্দোলন চলবে।” অরূপেশ ভট্টাচার্য বলেন, রেল বেসরকারিকরণ হলে এর সর্বাত্মক প্রভাব পড়বে। ট্রেনের টিকিটের দাম বাড়বে। দ্রব্যমূল্যের উপর প্রভাব পড়বে। অনেকে কাজ হারাবেন। এর বিরুদ্ধে একমাত্র আমাদের নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আন্দোলন করছেন। কেন্দ্রের এই নীতি বিরুদ্ধ কাজ বন্ধ না হলে আগামী দিনে বৃহত্তর আন্দোলনে নামব।

[আরও পড়ুন : এক দশকের পুরনো মামলায় NIA’র সক্রিয়তা, তৃতীয়বার জেরার মুখে ছত্রধর মাহাতো]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement