BREAKING NEWS

১৩ কার্তিক  ১৪২৭  শুক্রবার ৩০ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

দল থেকে ‘কুকুরের মতো’ তাড়ানোর হুমকি, তৃণমূল ব্লক সভাপতির মন্তব্যে বাঁকুড়ায় চরমে অন্তর্দ্বন্দ্ব

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: September 22, 2020 4:15 pm|    Updated: September 23, 2020 2:11 pm

An Images

দেবব্রত দাস, খাতড়া: প্রকাশ্য সভায় দলের অঞ্চল ও বুথ সভাপতিদের অশালীন ভাষায় অপমান। কাঠগড়ায় অভিযোগ উঠল বাঁকুড়ার (Bankura) রানিবাঁধ ব্লক তৃণমূল সভাপতি চিত্তরঞ্জন মাহাতো (TMC Block President Chittaranjan Mahato)। অভিযোগ, ওনার সঙ্গে দল না করলে ‘কুকুরের মতো’ দল থেকে তাড়ানোর হুমকি দিয়েছেন। আর তাঁর মন্তব্যের বিরোধিতায় সরাসরি সোশ্যাল মিডিয়ায় তোপ দাগতে শুরু করেছেন দলের কর্মী, সমর্থকদের একাংশ। ভাইরাল সেসব পোস্ট। ফলে আরও চরমে শাসকদলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব।

 

রানিবাঁধের তৃণমূল দলের ব্লক সভাপতির বিরুদ্ধে সোশ্যাল মিডিয়ায় কর্মীদের বিষোদ্গার ঘিরে ব্যাপক শোরগোল পড়ে গিয়েছে তৃণমূলের অন্দরে। এই ঘটনায় শাসদকলের গোষ্ঠী কোন্দল ফের প্রকাশ্যে এসে পড়েছে। বাঁকুড়া জেলা যুব তৃণমূল কংগ্রেসের সহ-সভাপতি বিদ্যুৎ দাস অভিযোগ করেন, “রবিবার ঝিলিমিলিতে দলের একটি কর্মসূচিতে গিয়ে প্রকাশ্য সভায় দলের ব্লক সভাপতি চিত্ত মাহাতো রীতিমত হুমকি (Abusive Language) দিয়ে দলের অঞ্চল ও বুথ সভাপতিদের অপমান করেছেন। বলেছেন, ওনার সঙ্গে দল না করলে ‘কুকুরের মতো’ দল থেকে তাড়াবেন।’’ তিনি আরও বলেন, “সদ্য দলের ব্লক সভাপতির দায়িত্ব নিয়েই দীর্ঘদিনের একনিষ্ঠ কর্মীদের এইরকম জঘন্য ভাষায় অপমানজনক কথাবার্তার আমরা তীব্র প্রতিবাদ করেছি। আর এটা নিয়েই এলাকায় দলের নিচুতলার কর্মীদের মধ্যে ক্ষোভের আগুন জ্বলছে। তারই প্রতিবাদে কর্মীদের একাংশ সোশ্যাল মিডিয়ায় সরব হয়েছেন। এটা ব্লক সভাপতির বিরুদ্ধে ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ।”

[আরও পড়ুন: ধারের টাকা ফেরত চেয়ে অনুব্রতকে খুনের হুমকি, গ্রেপ্তার গুসকরার তৃণমূল নেতা]

উল্লেখ্য, কিছুদিন আগে তৃণমূলে বড়সড় সাংগঠনিক রদবদল করেছেন দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাতে দলের দীর্ঘদিনের ব্লক সভাপতি সুনীল মণ্ডলকে সরিয়ে চিত্তরঞ্জন মাহাতোকে রানিবাঁধ ব্লক সভাপতি করা হয়েছে। এই পরিবর্তন মানতে এখনও নারাজ দলের একাংশ। আর তা নিয়ে তৃণমূলের অন্দরে চোরাস্রোত বইছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় সেই ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ ঘটছে বলে অভিমত রাজনৈতিক মহলের একাংশের।

যদিও দলের প্রকাশ্য সভায় অঞ্চল ও বুথ সভাপতিদের প্রতি ভাষা প্রয়োগ করে অপমানের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন রানিবাঁধ ব্লক তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি চিত্তরঞ্জন মাহাতো। তিনি বলেন, “দলের মধ্যে যারা গুন্ডামি, তোলাবাজি করবে তাদেরকে সতর্ক থাকার জন্য বলেছি। তা নাহলে জনগণ কুকুরের মতো তাড়াবে বলেছি। কোনও বুথ বা অঞ্চল সভাপতিকে কুকুরের মত দল থেকে তাড়ানোর কথা বলিনি। আমি ব্লক সভাপতি হওয়ার জন্য কিছু নেতার গাত্রদাহ হচ্ছে। তারাই আমার বিরুদ্ধে কুৎসা রটনার জন্য সোশ্যাল মিডিয়ায় ভুয়ো পোস্ট করছে। পুরোটাই অপপ্রচার। বিষয়টি দলের জেলা নেতৃত্বকে জানিয়েছি।”

[আরও পড়ুন: বাঁকুড়ায় চরমে বিজেপির গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব, সৌমিত্র খাঁ’কে কাজ করতে না দেওয়ায় ‘হুমকি’ জেলা সভাপতির!]

বাঁকুড়া জেলা তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি তথা মন্ত্রী শ্যামল সাঁতরা বলেন, “দল সব কিছু নজর রাখছে। দলবিরোধী কাজ করলে দল কড়া ব্যবস্থা নেবে।” তবে সোশ্যাল মিডিয়ায় যেভাবে বিষয়টি ভাইরাল হয়েছে, তাতে নতুন ব্লক সভাপতি চিত্তরঞ্জন মাহাতো বেশ কোণঠাসা হয়েছেন বলেই ধারণা একাংশের।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement