BREAKING NEWS

১৪  আশ্বিন  ১৪২৯  বুধবার ৫ অক্টোবর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

শান্তিনিকেতনে শিশু খুন: লকেট চট্টোপাধ্যায়কে গ্রামে ঢুকতে বাধা, পুলিশি নিষ্ক্রিয়তা নিয়ে সরব নেত্রী

Published by: Paramita Paul |    Posted: September 21, 2022 7:19 pm|    Updated: September 21, 2022 7:46 pm

BJP delegation in Shantinekatan after todler murder, stages protest | Sangbad Pratidin

নন্দন দত্ত, সিউড়ি: শিশু খুনে উত্তাল শান্তিনিকেতনের (Shantinekatan) মোলডাঙা। সকাল থেকে দফায় দফায় থানা বিক্ষোভ বাম, বিজেপির (BJP)। মৃতের পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে যাওয়ার পথে বাধার মুখে পড়লেন বিজেপির সাংসদ তথা রাজ্য সম্পাদক লকেট চট্টোপাধ্যায়। পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে না পারে থানার বাইরে ধরনায় বসেন তিনি। এমনকী, পুলিশের সঙ্গেও বচসা জড়িয়েছেন। পুলিশের নিষ্ক্রিয়তার নিয়ে সরব লকেট। এদিকে ধৃত রুবিবিবির ৮ দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দেয় আদালত।

তিনদিন নিখোঁজ থাকার পর প্রতিবেশীর ছাদ থেকে শিশুর দেহ উদ্ধার হয়। সেই ঘটনায় ধুন্ধুমার বেঁধে যায় মোলডাঙা গ্রামে। উত্তেজনা সামাল দিতে গ্রামে পুলিশ পিকেট বসানো হয়েছিল মঙ্গলবার রাতেই। বুধবার সকাল থেকে থমথমে ছিল গোটা এলাকা। গোটা এলাকায় কার্যত অরন্ধন পালিত হয়। তবে পরিস্থিত পুলিশের নিয়ন্ত্রণে ছিল। গ্রামে হাজার তিনেক মানুষের বসতি। অধিকাংশই সংখ্যালঘু মানুষের বাস। প্রতিবেশীরা মৃত শিশুর বাড়িতে এসে তাঁর মাকে শান্ত্বনা দেন। অভিযুক্তদের চরম শাস্তির দাবিতে সরব হন শিশুর পরিবার এবং প্রতিবেশীরা। তাদের দাবি, অভিযুক্তর ফাঁসি হোক। নয়তো গ্রামবাসীর হাতে ছেড়ে দেওয়া হোক। তারাই শাস্তি দেবে।

[আরও পড়ুন: প্রাথমিকে দুর্নীতি: ‘পরীক্ষা না দিয়েই নিয়োগপত্র, ব্যাপক অনিয়ম প্রাথমিকে’, হাই কোর্টে দাবি CBI-এর]

এরমধ্যে স্থানীয় বাম সমর্থকরা শান্তিনিকেতন থানায় এসে ডেপুটেশন জমা করেন। শ্রীনিকেতন মোড়ে বিক্ষোভও দেখান তাঁরা। পথ অবরোধ করে অভিযুক্তর চরম শাস্তি দাবি করেন। এদিনে বেলা বারোটা নাগাদ বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায় শান্তিনিকেতনে আসনে। কিন্তু গ্রামে ঢোকার আগে তাঁর পথ অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন স্থানীয় মহিলারা। তাঁদের দাবি, এই মৃত্যুতে কোনও রাজনৈতিক রং লাগতে দিতে চান না। এই এলাকায় বিজেপিকে ঢুকতে দেওয়া হবে না। এরমাঝেই চন্দ্রপুর থানার ওসি এসে বিজেপি নেত্রীকে আটকান। পালটা নেত্রীর দাবি, “আমি অনুমতি নিয়ে এসেছি। মায়ের কোল খালি হয়েছে, তার বিচারের দাবি করছি।” এরপরই তিনি চলে যান শান্তিনিকেতন থানায়। বাইরে ধরনায় বসেন বিজেপি নেত্রী এবং কর্মী-সমর্থকরা।

 

বিজেপি সাংসদের অভিযোগ, নিখোঁজ থাকা ৭২ ঘণ্টার পর পাশের বাড়ির ছাদ থেকে শিশুর দেহ উদ্ধার হল। পুলিশ কেন শিশুকে খুঁজে পেল না?” পুলিশি ব্যর্থতার জন্য শান্তিনিকেতন থানার ওসি পার্থ ঘোষ এবং বীরভূমের পুলিশ সুপার নগেন্দ্রনাথ ত্রিপাঠী কঠোর শাস্তির দাবি জানান সাংসদ। লকেট আরও বলেন, “শুনেছি, অভিযুক্তর আত্মীয় অনুব্রত মণ্ডলের গাড়ির চালক। গোটা মামলাটা পুলিশ পরিচালনা করছে।” এদিকে ধৃতের মাকেও গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বীরভূমের পুলিশ সুপার নগেন্দ্রনাথ ত্রিপাঠীর দাবি, খুনের ঘটনায় রুবিবিবকে সাহায্য় করেছে তার মা।

[আরও পড়ুন: ফের খারিজ জামিনের আবেদন, এবার পুজোয় জেলেই থাকতে হবে পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে