১২ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  মঙ্গলবার ২৯ নভেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

‘অ্যাম্বুল্যান্স আটকেছি, আবার আটকাব’, সমালোচনার মাঝে হুঁশিয়ারি দিলীপের

Published by: Sayani Sen |    Posted: January 7, 2020 4:27 pm|    Updated: January 7, 2020 4:29 pm

BJP leader Dilip Gosh opens up on ambulance row

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সভা চলাকালীন অ্যাম্বুল্যান্সকে রাস্তা না ছেড়ে বিতর্কে বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। এই ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর থেকেই উঠেছে সমালোচনার ঝড়। বিতর্কের মাঝেও গেরুয়া শিবিরের সৈনিক নিজের অবস্থানে অনড়। তাঁর দাবি, ওই অ্যাম্বুল্যান্সে কোনও রোগী ছিল না। সভা বানচাল করতেই এসব করা হয়েছে। ‘অ্যাম্বুল্যান্স আটকেছি, আবার আটকাব’, সমালোচনার মাঝে হুঁশিয়ারি দিলীপ ঘোষের।

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের (CAA) সমর্থনে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে মিছিল করছে বিজেপি। সেই মতো সোমবার কৃষ্ণনগরে মিছিল করে গেরুয়া শিবির। রাজবাড়ি থেকে জেলা প্রশাসনিক ভবন পর্যন্ত মিছিলে হাঁটেন দলীয় নেতা-কর্মীরা। তারপর জেলা প্রশাসনিক ভবনের সামনে একটি সভাও করা হয়। ওই সভায় উপস্থিত ছিলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। সভামঞ্চ থেকে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন প্রসঙ্গে বক্তব্য রাখছিলেন তিনি।

[আরও পড়ুন: হায়দরাবাদ কাণ্ডের ছায়া দক্ষিণ দিনাজপুরে, কিশোরীকে গণধর্ষণের পর পুড়িয়ে খুনের অভিযোগ]

এমন সময় একটি অ্যাম্বুল্যান্স সভাস্থলের কাছাকাছি এসে পৌঁছয়। প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি, ওই অ্যাম্বুল্যান্সে সেই সময় রোগী ছিলেন। তবে সভার জেরে এলাকায় তীব্র যানজট হওয়ায় রাস্তা দিয়ে অ্যাম্বুল্যান্স যাওয়ার সুযোগ পাচ্ছিল না। সভায় যোগদানকারী কেউ ওই অ্যাম্বুল্যান্সটিকে রাস্তা ছেড়ে দেওয়ার চেষ্টা করেনি। অ্যাম্বুল্যান্স আটকে পড়ার ঘটনাটি নজর এড়ায়নি বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষেরও। তবে তা সত্ত্বেও অ্যাম্বুল্যান্স যাওয়ার জন্য রাস্তা করে দেওয়ার কোনও উদ্যোগ নেননি। পরিবর্তে তিনি মঞ্চ থেকে বলেন, ‘‘এখান দিয়ে যেতে দেওয়া যাবে না। লোকে রাস্তায় বসে রয়েছে। ডিসটার্ব হয়ে যাবে। ঘুরিয়ে অন্য দিক দিয়ে নিয়ে যান।’’ বিজেপি রাজ্য সভাপতির এহেন অমানবিক আচরণ নেটদুনিয়ায় ভাইরাল হয়ে গিয়েছে নিমেষেই। কীভাবে একজন সাংসদ এতটা অমানবিক হতে পারেন সেই প্রশ্ন তুলেছেন অনেকে।

এই নেটিজেনদের সমালোচনায় কিছুই যায় আসে না বিজেপি রাজ্য সভাপতির। কিন্তু এই ‘অমানবিক’ কাজ কেন করলেন দিলীপ? যদিও সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তর দিতে গিয়ে মেজাজ হারান বিজেপি নেতা। ‘এসব বাজে বিষয়ে তাঁর কথা বলার সময় নেই’ বলেই দাবি তাঁর। দিলীপ ঘোষের সাফাই, “এ রাজ্যে অ্যাম্বুল্যান্সে করে নেশার দ্রব্য পাচার করা হয়। সভা বানচাল করতে ওই এলাকায় ফাঁকা অ্যাম্বুল্যান্সটি পাঠানো হয়েছিল।” তবে নেটিজেনদের দাবি, অ্যাম্বুল্যান্স মোটেও ফাঁকা ছিল না। ‘অমানবিক’ কাজের দায় এড়াতে একথা বলছেন দিলীপ ঘোষ।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে