BREAKING NEWS

২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ২৪ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

‘দিদি, জনগণ আপনাকে লাথি মারতে তৈরি’, জনসভায় কুরুচিকর আক্রমণ সায়ন্তনের

Published by: Sayani Sen |    Posted: May 9, 2019 5:19 pm|    Updated: May 9, 2019 5:19 pm

An Images

নবেন্দু ঘোষ, বসিরহাট: নির্বাচনী আবহে রাজনীতিকদের কুকথার অন্ত নেই৷ ফের সেই তালিকায় নিজের নাম জুড়লেন বসিরহাটের বিজেপি প্রার্থী সায়ন্তন বসু৷ মমতার গণতন্ত্রের চড়ের পালটা জবাব দিলেন তিনি৷ জনগণ মুখ্যমন্ত্রীকে লাথি মারবে বলেই হুঁশিয়ারি তাঁর৷ বাংলার মুখ্যমন্ত্রীকে ‘পাগল’ বলেও কটাক্ষ করেন তিনি৷ যদিও বিজেপি প্রার্থীর ব্যক্তিগত আক্রমণকে মোটেও ভাল চোখে দেখছেন না কেউই৷

[আরও পড়ুন: কবিগুরুর জন্মস্থান বীরভূম! প্রচারে ভুল তথ্য দেওয়ায় অমিত শাহকে কটাক্ষ তৃণমূলের]

সপ্তম দফায় বসিরহাটে নির্বাচন৷ তার আগে দিনভর বিভিন্ন জায়গায় প্রচার করছেন বসিরহাটের বিজেপি প্রার্থী সায়ন্তন বসু৷ বৃহস্পতিবার গোপালপুরের পপুলার অ্যাকাডেমির স্কুলমাঠে সভা করেন তিনি৷ মাঠ প্রায় ফাঁকা হলেও, চাঁচাছোলা ভাষায় আক্রমণ করেন পদ্ম শিবিরের সৈনিক৷ জনসভার মঞ্চ থেকে তৃণমূলকে আক্রমণ করতে গিয়ে বেফাঁস মন্তব্য করে বসলেন তিনি৷ বাংলার মুখ্যমন্ত্রীকে সরাসরি আক্রমণ করে তিনি বলেন, ‘‘দিদি আপনি প্রধানমন্ত্রীকে চড় মারুন৷ আমাদের তাতে কিছু যায় আসে না৷ বাংলার জনগণ আপনাকে লাথি মারার জন্য তৈরি হয়ে আছে৷ এমন লাথি পড়বে এখান থেকে আকাশে উঠবেন৷ ত্রিপুরা পেরিয়ে বাংলাদেশে গিয়ে পড়বেন পদ্মার জলে৷ সেরকম পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে৷’’ এখানেই শেষ নয়৷ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ‘পাগল’ বলেও কটাক্ষ করেছেন তিনি৷ বাংলার মুখ্যমন্ত্রীকে ব্যক্তিগত আক্রমণ করে বিজেপি প্রার্থী বলেন, ‘‘ভোট যত আসছে, তত দিদি পাগল-পাগল আচরণ করছেন৷ ঘোরাঘুরি বেশি হচ্ছে৷ লাফালাফি বেশি হচ্ছে৷’’

[ আরও পড়ুন: ‘দুর্নীতি প্রমাণে ব্যর্থ হলে ১০০ বার কান ধরে ওঠবোস করতে হবে’, মোদিকে চ্যালেঞ্জ মমতার]

প্রথম দফা নির্বাচনের আগে থেকেই হাইভোল্টেজ ভোটপ্রচার শুরু করেছেন নরেন্দ্র মোদি এবং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ জনসভার মঞ্চ থেকে নানা ইস্যুতে রাজনৈতিক আকচাআকচি লেগেই রয়েছে৷ মাঝে মাঝে ব্যক্তি আক্রমণেও শামিল হচ্ছেন কেউ কেউ৷ ইতিমধ্যেই কৃষ্ণনগরের তৃণমূল প্রার্থী মহুয়া মৈত্রকে ব্যক্তিগত আক্রমণ করে বিপাকে পড়েছিলেন বিজেপি জেলা সভাপতি মহাদেব সরকার৷ নির্বাচন কমিশন নজিরবিহীন সিদ্ধান্ত নিয়ে তাঁর প্রচারে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল৷ এর আগে প্রচারে বিতর্কিত মন্তব্য করার জন্য সায়ন্তন বসুকে নোটিস দিয়েছিল কমিশন। পুলিশ স্বতঃপ্রণোদিতভাবে এফআইআরও দায়ের করে। কিন্তু আবারও তিনি কুকথা বলার জন্য শিরোনামে চলে এলেন। 

দেখুন ভিডিও:

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement