BREAKING NEWS

১২  আষাঢ়  ১৪২৯  মঙ্গলবার ২৮ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

‘তৃণমূলের যুব নেতারা আমফানের ত্রাণের টাকা ও রেশনের চাল লুট করেছে’, বিস্ফোরক দিলীপ

Published by: Sayani Sen |    Posted: July 18, 2020 10:12 pm|    Updated: July 18, 2020 10:17 pm

BJP state president Dilip Ghosh again attacks TMC

অংশুপ্রতিম পাল, খড়গপুর: লকডাউনের (Lockdown) সময় রেশনের চাল চুরির অভিযোগ উঠেছিল তৃণমূলের বিরুদ্ধে। আমফানের ত্রাণ নিয়ে তাঁদের দিকে কম আঙুল তোলেনি গেরুয়া শিবির। এবার সরাসরি তৃণমূলের যুব নেতাদের কড়া ভাষায় আক্রমণ করলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি তথা মেদিনীপুরের সাংসদ দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh)। তাঁরাই আমফানের ত্রাণ এবং রেশনের চাল লুট করেছেন বলেই অভিযোগ বিজেপি নেতার।

শনিবার তিনি ঘাটাল জেলা সাংগঠনিক সভায় যোগ দিতে ডেবরা থানার রাধামোহনপুরে যান। সেখানে বক্তৃতা দিতে গিয়ে তৃণমূলকে একাধিক ইস্যুতে বারবার আক্রমণ করে বসেন দিলীপ ঘোষ। তৃণমূল যুব নেতাদের খোঁচা দিয়ে তিনি বলেন, “যুব নেতাদের কাউকে তো বিপর্যয়ের সময় রাস্তায় দেখা যায়নি। এই চার মাস তাঁরা রেশন লুট করেছে। আমফানের টাকা লুট করেছে। প্রধানমন্ত্রী রেশন পাঠালেন। আর এরা লুট করে নিল।” অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে কটাক্ষ করে বিজেপি সাংসদ বলেন, “কোথায় ছিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়? লন্ডনে ছিলেন? তাঁকে তো খুঁজে পেলাম না।”

[আরও পড়ুন: বাঘের পেটে মাথা থেকে গলা, অবশিষ্টাংশ দেখে আঁতকে উঠল সুন্দরবনে নিহত মৎস্যজীবীর পরিবার]

করোনা পরিস্থিতি নিয়ে রাজ্য সরকারকে খোঁচা দিতেও ছাড়েননি তিনি। দিলীপ ঘোষের দাবি, কোভিড পরিস্থিতি মোকাবিলায় রাজ্য সরকার ‘ব্যর্থ’। তিনি বলেন, “করোনা এখন কলকাতা ছাড়িয়ে জেলা ও গ্ৰামে ছড়িয়েছে। পরিস্থিতি সরকারের হাতের বাইরে চলে গিয়েছে।” এদিকে, এদিন বিকেলে রাধামোহনপুরে দিলীপ ঘোষের সভাস্থলের কাছ থেকে একটি দেশি পিস্তল ও ৬ রাউন্ড গুলি-সহ তিনজনকে ডেবরা থানার পুলিশ গ্ৰেপ্তার করেছে। পুলিশ জানিয়েছে, ধৃতরা হল সৌরভ দণ্ডপাট, উজ্জ্বল দণ্ডপাট ও সুনীল মুখি। প্রথম দু’জন দাঁতন থানার বড়া এলাকার বাসিন্দা। তারা সম্পর্কে দুই ভাই। আর সুনীল মুখি নয়াগ্ৰামের বাসিন্দা। বিজেপির ঘাটাল সাংগঠনিক জেলার সভাপতি অন্তরা ভট্টাচার্যের বলেন, “দলের রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের উপর হামলার ছক কষেছিল তৃণমূল। গ্রেপ্তারের ফলে সমস্ত পরিকল্পনা বানচাল হয়ে গিয়েছে।” অপরদিকে, তৃণমূলের জেলা সভাপতি অজিত মাইতি বলেছেন, “ধৃতরা বিজেপির লোক। বিজেপি গুন্ডা ও দুষ্কৃতীদের নিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে।”

[আরও পড়ুন: লুকিয়ে করোনায় মৃতের দেহ সৎকারের অভিযোগে ধুন্ধুমার, পুলিশকে ঘিরে বিক্ষোভ জনতার]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে