BREAKING NEWS

৫ মাঘ  ১৪২৭  মঙ্গলবার ১৯ জানুয়ারি ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

‘শুভেন্দুর জন্য গঙ্গাপারের একটি ভোটও পাবে না তৃণমূল’, আশাবাদী দিলীপ

Published by: Sayani Sen |    Posted: December 31, 2020 9:08 am|    Updated: December 31, 2020 9:08 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিধানসভা নির্বাচন (Assembly Election 2021) যত এগিয়ে আসছে, ততই বাড়ছে কথার ঝাঁজ। ব্যতিক্রম নন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। প্রায় প্রতিদিনই সকাল বেলা চায়ে পে চর্চায় শাসকদলের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দেন তিনি। সেই ধারাবাহিকতা বজায় রইল বৃহস্পতিবারও। খড়গপুরে প্রাতঃভ্রমণে বেরিয়ে রাজ্য সরকারকে নানা ইস্যুতে আক্রমণ করলেন দিলীপ ঘোষ। আসন্ন ভোটে জয়ের জন্য আশাপ্রকাশও করলেন তিনি।

জল্পনা ছিল। আর সেই জল্পনাকে বাস্তব রূপ দিয়ে সদ্যই দলবদল করেছেন শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari)। ঘাসফুল ছেড়ে নাম লিখিয়েছেন পদ্মশিবিরে। তৃণমূলের জয়ের নেপথ্যে তাঁর এবং অধিকারী পরিবারের বিশেষ ভূমিকা রয়েছে বলে বারবার দাবি জানিয়েছেন তিনি। তা খণ্ডনও করেছে শাসকদল তৃণমূল। তবে বিজেপির অন্দরে অন্য সুর। কমপক্ষে দিলীপ ঘোষের কথায় তা স্পষ্ট। শুভেন্দুর কাঁধে ভর করেই আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনের বৈতরণী পার করা কিছুটা সহজসাধ্য হবে বলেই মনে করছেন তিনি। এদিন খড়গপুরে চায়ে পে চর্চায় তাঁর দাবি, “শুভেন্দু অধিকারীও এখন আমাদের দিকে চলে এসেছেন। তাই গঙ্গার এপারের একটিও ভোট তৃণমূল পাবে না।” 

[আরও পড়ুন: মহিলাদের সম্মান বাঁচাতে হিন্দু যুবকদের অস্ত্র তোলার নিদান দিলেন দিলীপ ঘোষ]

বর্ষশেষের চায়ে পে চর্চায় শাসকদলের বিরুদ্ধে ফের দুর্নীতির অভিযোগেও সুর চড়িয়েছেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh)। তাঁর দাবি, আমফান-সহ একাধিক ক্ষেত্রে কাটমানি ‘হজম’ করেছেন তৃণমূল নেতা-মন্ত্রীরা। যার ফলে বাংলার মানুষ বঞ্চিত হয়েছেন। এমনকী প্রধানমন্ত্রীর জনদরদী একাধিক প্রকল্পকে প্রত্যাখ্যানের মাধ্যমেও বাংলার সরকার কৃষক থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষ সকলের সঙ্গে প্রতারণা করেছে বলেও দাবি বিজেপি রাজ্য সভাপতির। এদিনের চায়ে পে চর্চায় আরও একবার সোনার বাংলা গড়ার আহ্বানও জানিয়েছেন বিজেপি সাংসদ। তাঁর দাবি, রাজনৈতিক ক্ষেত্র হোক কিংবা অন্য কোনও জায়গা ২০২০ সাল সকলেরই কমবেশি খারাপই কেটেছে। আগামী বছর বিধানসভা নির্বাচনে বাংলার মানুষকে ভাগ্যবদল করতেই হবে। তাই আগামী নির্বাচনে ভারতীয় জনতা পার্টিকে বিপুলভাবে সমর্থন করে তাদের জেতানোর দাবি জানিয়েছেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি। অমিত শাহের (Amit Shah) বেঁধে দেওয়া লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী বিপুল ভোটে বিজেপি জিতবে বলেও আশাবাদী তিনি।

[আরও পড়ুন: ‘বাংলার মানুষই জবাব দেবে’, রাজ্যপালের অপসারণের দাবি নিয়ে তৃণমূলকে পালটা বাবুলের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement