BREAKING NEWS

১৯ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  সোমবার ৬ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

পুজোয় জনসংযোগ, তৃণমূল-বামেদের টেক্কা দিতে বুক স্টলে গুরুত্ব বিজেপিরও

Published by: Kumaresh Halder |    Posted: October 13, 2018 9:17 pm|    Updated: October 13, 2018 9:17 pm

bjp-to-give-importance-to-TMC-left-to-raise-public-relations

সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, দুর্গাপুর: পুজোর ময়দানে তৃণমূল-সিপিএমের সঙ্গে সমানে-সমানে টক্কর দিতে মাঠে নামছে বিজেপি৷ সিপিএমের কায়দায় শারদীয়া উৎসবে  ‘বুক স্টল’  দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে গেরুয়া শিবির৷ উৎসবের দিনগুলিতে সিপিএমের একচেটিয়া বুক স্টলে ‘কারবারে’ ভাঙন ধরাতেই উদ্যোগ বলে বিজেপি সূত্রে খবর৷

[‘ছেলেই যখন নেই, তখন কীসের পুজো?’ উৎসবেও শোকের ছায়া দাড়িভিটে]

এতদিন, দুর্গাপুজোর দিনগুলিতে মণ্ডপের সামনে বামেদের স্টল ছিল বাঁধাধরা৷ দলীয় পুস্তক নিয়ে বসে থাকতেন দলের প্রবীণ সদস্যরা৷ স্টলে খুব একটা কাউকে দেখা না গেলেও দলীয় কর্মীরা আড্ডার ছলে মাঝেমধ্যে প্রবীণদের দেখা দিয়ে যেতেন৷ রাজ্যে পালাবদলের পর যদিও সেই ‘কারবার’ অনেকটাই কমেছে৷ শাসকদলের তরফে ‘জাগো বাংলা’র স্টল দেওয়ার রেওয়াজ বেড়েছে৷  এবার, বাম-তৃণমূলের দেখানো পথেই জনসংযোগ বাড়ানোর পথে বিজেপিও৷

[গুলিবিদ্ধ শুভেন্দু অধিকারীর নিরাপত্তারক্ষী, তদন্তে পুলিশ]

দুর্গাপুজোর পরেই লোকসভা ভোট৷ এবার পুজো মণ্ডপে বিজেপিরও বুক স্টল থাকবে৷ লক্ষ্য সেই একই, জনসংযোগ৷ দলীয় পুস্তক ছাড়াও স্টলে নানান ধরনের পত্র-পত্রিকা থাকবে বলেই দাবি বিজেপির৷ পশ্চিম বর্ধমান জেলায় ষোলোটি বিগ বাজেটের পুজোমণ্ডপে সামনে এবার স্টল দিচ্ছে গেরুয়া শিবির৷ দুর্গাপুর, আসানসোল ছাড়াও রানিগঞ্জ, কুলটিতেও থাকবে বিজেপির স্টল৷ স্টলের সঙ্গে জলসত্র, মেডিক্যাল দল ও প্রয়োজনীয় ওষুধ সহ থাকবে ফাস্ট এইডের ব্যবস্থা৷ বিজেপির কর্মীরাই চালাবেন স্টল৷ বিজেপির পশ্চিম বর্ধমান জেলার সভাপতি লক্ষণ ঘরুই জানান, “বারবারই আমরা স্টল দিতাম৷ কিন্তু, সংখ্যায় কম থাকত বলে চোখে পড়ত না৷ এবার মানুষের দাবি মেনে আমরা বেশি সংখ্যক স্টল দিচ্ছি৷ মানুষের সঙ্গে সম্পর্ক তৈরি করাই উদ্দেশ্য৷”

[পুজোয় নাশকতার ছক! হুগলিতে উদ্ধার প্রচুর পরিমাণের অস্ত্র]

সপ্তমী থেকে শুরু হবে বিজেপির স্টলের উদ্বোধন৷ পিছিয়ে নেই সিপিএমও৷ বিজেপির সঙ্গে টক্কর দিতে এবার তারাও স্টলের সংখ্যা বাড়াচ্ছে৷ জেলায় এবার ৭০টি স্টল করা হবে বলে জানিয়েছেন দলের জেলা কমিটির সদস্য পঙ্কজ রায় সরকার৷ মূলত বিগ বাজেটের পুজোগুলিতেই বসানো হবে স্টল৷ পঙ্কজ রায় সরকার বলেন, “বিজেপির বই মানেই ইতিহাসকে বিকৃতি করে দেখানোর অপচেষ্টা৷ আমরা শুধুমাত্র প্রগতিশীল চিন্তা চেতনা ও বৈজ্ঞানিক মতাদর্শের উপর ভিত্তি করেই স্টলের জন্যে বাছাই করা বই রাখি৷” শাসকদল তৃণমূলও ‘জাগো বাংলা’ স্টলের প্রস্তুতি সেরে ফেলেছে৷ জেলার সব বিগ বাজেটের মণ্ডপেই স্টল দেবে তৃণমূল৷ তৃণমূলের জেলার কার্যকরী সভাপতি উত্তম মুখোপাধ্যায় বলেন, ‘‘এবারও জাগো বাংলার স্টল নিয়ে আমরা হাজির থাকব৷ বিজেপি সামনের লোকসভা নির্বাচনের জন্যেই এবার স্টল দিচ্ছে৷ কিন্তু, বাংলার মানুষ আগেই বিজেপিকে প্রত্যাখ্যান করেছে৷”

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে