BREAKING NEWS

১২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  রবিবার ২৯ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

‘মারের বদলা মার!’ দায়িত্ব নিয়েই প্রতিহিংসার দাওয়াই শ্রীরামপুরের বিজেপি সভাপতির

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: July 4, 2019 4:00 pm|    Updated: July 5, 2019 11:13 am

BJP leader warns of counter violence if administration don’t act.

ফাইল ছবি

দিব্যেন্দু মজুমদার, হুগলি: সদ্য বিজেপির শ্রীরামপুর সাংগঠনিক জেলার সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন। তারপরই বুধবার শ্রীরামপুরের জেলা পার্টি অফিসে বসে সুর চড়ালেন দলীয় কর্মীদের নিরাপত্তার প্রশ্নে। বললেন, “মারের বদলে মার হবে।” সম্প্রতি রাজ্যে অশান্ত রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটের পরিপ্রেক্ষিতে বিভিন্ন জায়গায় আক্রান্ত হচ্ছেন বিজেপি কর্মীরা। এই বিষয়ে প্রশ্ন করা হয় শ্রীরামপুরের বিজেপি সভাপতি শ্যামল বসুকে। জিজ্ঞাসা করা হয়, দলীয় কর্মীদের কীভাবে নিরাপত্তা দেবেন।

[আরও পড়ুন- বাড়ি তৈরির জন্য দেড় লক্ষ টাকা কাটমানি! বৃদ্ধের মৃত্যুতে কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে অভিযোগ]

এর জবাবে শ্যামলবাবু বলেন, “মারের বদলে মার হবে, যদি না তারা সতর্ক হয়। আমাদের কর্মীরাও তৈরি আছেন।” এভাবেই মারের পালটা মার এই দাওয়াই দিয়ে দলীয় কর্মীদের তাতালেন তিনি। সম্প্রতি বিজেপির শ্রীরামপুর সাংগঠনিক জেলার সভাপতি সুমন ঘোষকে সরিয়ে শ্যামল বসুকে সেই পদে নিয়ে আসা হয়েছে। তাঁকে শ্রীরামপুর, চাঁপদানি, উত্তরপাড়া, চণ্ডীতলা ও জাঙ্গিপাড়া এই পাঁচটি বিধানসভার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। বুধবার তিনি জানান, আগামী ৬ জুলাই শ্রীরামপুরে একটি জনসভার মধ্যে দিয়ে মুকুল রায়ের নেতৃত্বে দলের সদস্য সংগ্রহ অভিযান শুরু হবে। এরপর প্রত্যেক বুথ স্তরে এই সদস্য সংগ্রহ অভিযান চলবে ১৮ আগস্ট পর্যন্ত। ৬ তারিখ মুকুল রায়ের হাত ধরে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল থেকে প্রায় দেড় হাজার কর্মী বিজেপিতে যোগ দেবেন। শ্যামলবাবু আরও দাবি করেন, ৬ তারিখের পর দু’তিনটি পুরসভা বিজেপির হাতে চলে আসবে। ইতিমধ্যে ওই পুরসভাগুলির কাউন্সিলররা তাদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন।

[আরও পড়ুন- হুগলিতে তৃণমূলের জেলা সভাপতি বদল, পদ খোয়ালেন মন্ত্রী তপন দাশগুপ্ত]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে