Advertisement
Advertisement
Raiganj

এলোপাথাড়ি মার, বালি পাচার রুখতে গিয়ে মাথা ফাটল BLRO-সহ ২ সরকারি কর্মীর

নিরাপত্তার দাবিতে অতিরিক্ত জেলাশাসকের দ্বারস্থ ভূমি ও ভূমি সংস্কার দপ্তরের ব্লক আধিকারিকরা।

BLRO allegedly hackled by sand smugglers in Raiganj
Published by: Sayani Sen
  • Posted:May 15, 2024 8:16 pm
  • Updated:May 15, 2024 8:16 pm

শংকরকুমার রায়, রায়গঞ্জ: লরিবোঝাই বালি পাচার রুখতে গিয়ে আক্রান্ত ভূমি ও ভূমি সংস্কার দপ্তরের ব্লক আধিকারিক (বিএলআরও)। দিনের বেলায় রাস্তায় ফেলে কাঠের বাটামের এলোপাথাড়ি আঘাতে মাথা ফাটিয়ে দিল একদল দুষ্কৃতী। হামলায় হাত ভেঙে গুরুতর জখম আরও দুই সরকারি কর্মী। সেইসঙ্গে ভাঙচুর চালানো হয় সরকারি আধিকারিকের গাড়িতেও। চিৎকার শুনে স্থানীয় গ্রামবাসীরা ছুটে আসেন। শেষ পর্যন্ত সরকারি আধিকারিক-সহ তিন জখম কর্মীকে কোনওক্রমে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হয়। বুধবার সকালের ঘটনায় উত্তর দিনাজপুরের করণদিঘি ব্লকের আলতাপুর (১) পঞ্চায়েতের খোয়াসপুর সংলগ্ন ঝাপড়টোল এলাকার ঘটনায় তীব্র চাঞ্চল্য। খবর পেয়ে পুলিশবাহিনী ঘটনাস্থলে পৌঁছে তদন্তে নামে। মারধরের অভিযোগে স্থানীয় দুই দুষ্কৃতীকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। অন্যদিকে, আতঙ্কিত সমস্ত ব্লকের ভূমি ও ভূমি সংস্কার আধিকারিকরা। নিরাপত্তার দাবিতে বিকেলে কর্ণজোড়ায় অতিরিক্ত জেলাশাসকের দ্বারস্থ হন তাঁরা।

রায়গঞ্জের পুলিশ সুপার সানা আকতার বলেন, “বিএলআরও-সহ সরকারি কর্মীদের মারধরের জড়িত অভিযোগে ইতিমধ্যে দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকি অভিযুক্তদের খোঁজে তল্লাশি চলছে। ধৃতদের বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা রুজু করে ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে।” মাথা ফেটে রায়গঞ্জ মেডিক্যাল হাসপাতালের বেডে শুয়ে করণদিঘি বিএলআরও গৌড় সোরেন।

Advertisement

[আরও পড়ুন: ৩৫ থেকে সোজা ২৪, চার দফার নির্বাচনের পর ফের বাংলার টার্গেট কমালেন শাহ]

তিনি বলেন, “করণদিঘির নদীঘাট রেড করতে আমি ও এক ডি গ্রুপের কর্মী নিয়ে গাড়ি করে বেরিয়েছিলাম। সেখান থেকে ফেরার পথে বালি ভর্তি লরি দেখতে পাই। চলন্ত লরিকে রাস্তার পাশে দাঁড় করিয়ে বালির চালান রসিদ দেখতে চাই। কিন্তু প্রকৃত নথি না দেখিয়ে সেইসময় লরি চালক বলেন, বালির মালিক আসবেন। তার পরই দুটো বাইক থেকে পরপর পাঁচ যুবক নেমে রাস্তার ধারে কাঠের বাটাম নিয়ে একনাগাড়ে মাথায় পিঠে আর হাতে মারতে থাকে। মাথা ফেটে রাস্তায় পড়ে যাই আমি। গ্রামবাসীরা আমাদের রক্ষা করেন। গ্রামবাসীরা না আসলে আমরা মরেই যেতাম।”

Advertisement

অন্যদিকে, এই ঘটনায় উদ্বিগ্ন ভূমি ও ভূমি সংস্কার দপ্তরের ইটাহার ব্লক আধিকারিক মনতোষ অধিকারী। কর্ণজোড়ার কার্যালয়ে অতিরিক্ত জেলাশাসকের সঙ্গে দেখা করেন। বলেন,”একজন বিএলআরও আক্রান্ত হয়েছেন। সমস্ত ঘটনা উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। সদর্থক ভূমিকা মিলবে।” তবে করণদিঘির নাগর নদী কিংবা চোপড়ার মহানন্দার নদীর চিতলঘাটা থেকে বালি পাচার রুখতে গিয়ে আক্রান্ত হওয়ার ঘটনায় অতিরিক্ত জেলাশাসক রবি আগরওয়াল বলেন,”অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু হয়েছে।”

[আরও পড়ুন: মনোনয়ন জমার পর রাতে অপহরণ! পরদিনই প্রার্থীপদ প্রত্যাহার বারাসতের কাকলির]

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ