BREAKING NEWS

৯ আষাঢ়  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২৪ জুন ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

‘বিষক্রিয়া’য় মৃত বাবা-ছেলে, উদ্ধার মায়ের ঝুলন্ত দেহ, এক পরিবারের ৩ জনের মৃত্যুতে রহস্য

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: June 1, 2021 2:32 pm|    Updated: June 1, 2021 2:49 pm

Body of Three person found in house in Habra, investigation underway | Sangbad Pratidin

অর্ণব দাস, বারাসত: একই পরিবারের তিন সদস্যের রহস্যমৃত্যুকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়াল উত্তর ২৪ পরগনার হাবড়ায় (Habra)। ইতিমধ্যেই দেহ তিনটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে পুলিশ। প্রাথমিকভাবে জানা গিয়েছে, গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মঘাতী হয়েছে বধূ। তাঁর স্বামী ও সন্তানের মৃত্যুর কারণ বিষক্রিয়া।

জানা গিয়েছে, হাবড়ার ১৮ নম্বর ওয়ার্ডে স্ত্রী ও সন্তানকে নিয়ে থাকতেন পেশায় রাজমিস্ত্রি প্রকাশ বিশ্বাস। স্থানীয়দের দাবি, বেশ কয়েকদিন ধরেই শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন তিনি। জ্বরও ছিল। প্রতিবেশিদের জানিয়ে ওষুধ আনার ব্যবস্থাও করেছিলেন। এলাকারই বাসিন্দা এক ব্যক্তি জানিয়েছেন, প্রকাশের করোনার (Corona virus) উপসর্গ থাকায় তাঁর স্ত্রীকে বারবার ঘরবন্দি থাকতে বলেছিলেন। তা সত্ত্বেও এলাকায় ঘোরাফেরা করছিলেন তিনি। এই নিয়ে ঝামেলাও হয়। এই পরিস্থিতিতে মঙ্গলবার বাড়ি থেকে উদ্ধার হয় প্রকাশ, তাঁর স্ত্রী ও ছেলের দেহ। ঘরে শোওয়া অবস্থায় মিলেছে প্রকাশ ও তাঁর ছেলের দেহ। ফাঁস দেওয়া অবস্থায় মিলেছে বধূর নিথর দেহ। ইতিমধ্যেই দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে পুলিশ। প্রাথমিকভাবে বিষক্রিয়ায় প্রকাশ ও তাঁর ছেলের মৃত্যু হয়েছে বলে মনে করা হলেও এবিষয়ে নিশ্চিত নয় পুলিশ। একসঙ্গে পরিবারের তিন সদস্যের মৃত্যুর নেপথ্যে কী কারণ রয়েছে, তা জানতে শুরু হয়েছে তদন্ত।

[আরও পড়ুন: রাজ্য পুলিশে বড়সড় রদবদল, কম্পালসারি ওয়েটিংয়ে মেদিনীপুরের ডিআইজি]

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রকাশের দ্বিতীয় পক্ষের স্ত্রী মৃত মহিলা। প্রথম পক্ষের সন্তানকে সঙ্গে নিয়েই প্রকাশের সঙ্গে ঘর বেঁধেছিলেন তিনি। পেশায় রাজমিস্ত্রি ওই যুবক স্ত্রী, সন্তানকে খুশি রাখার সবরকম চেষ্টাও করেছিলেন। কিন্তু স্ত্রী কারও সঙ্গে মিশতে দিতেন না প্রকাশকে। তা নিয়ে অশান্তিও চলছিল।

[আরও পড়ুন: ‘যশ’ কেড়েছে আশ্রয়, পেটের টানে কাঁকড়া ধরতে গিয়ে বাঘের মুখে পড়ে নিহত মহিলা]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement