২ শ্রাবণ  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

নিজস্ব সংবাদদাতা, বনগাঁ: প্রায় বছর খানেকের ব্যবধানে ভাগাড় কাণ্ডের রায় ঘোষণা করল বনগাঁ আদালত। ভাগার কাণ্ডে ৮ অভিযুক্তের মধ্যে ৬ জনকে বেকসুর খালাস করেছেন আদালতের এডিজি ওয়ান বিদ্যুৎ রায়। বাকি ২ অভিযুক্ত, যারা জামিনে মুক্ত ছিলেন, তাদের পাঁচ বছরের জেল হেফাজত ও ১ লক্ষ টাকা জরিমানার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

[আরও পড়ুন: ছদ্মবেশে রোমিও অভিযানে নামল পুলিশ, মহেশতলায় হাতেনাতে ধৃত ৫]

বছর খানেক আগে ভাগাড় কাণ্ডে উত্তাল হয়ে উঠেছিল রাজ্য। বিভিন্ন প্রান্ত থেকে উদ্ধার হয়েছিল পচা মাংস। ২০১৮ সালের ১৯ এপ্রিল ভাগাড় কাণ্ডের তদন্ত শুরু করেছিল ডায়মন্ড হারবার জেলা পুলিশ। এই কাণ্ডের তদন্তে গঠিত হয়েছিল ‘সিট’ বা বিশেষ তদন্তকারী দল। তদন্তে নেমে একে একে ‘মাংস বিশু’-সহ মোট ১২ জনকে গ্রেপ্তার করেছিল সিট। কিন্তু প্রমাণের অভাবে গ্রেপ্তারের পরেই জামিনে ছাড়া পেয়ে যায় ধৃত প্রদীপ রায় ও সামসুল ইসলাম। এরপর জামিন পায় রাজা মল্লিক ও ভিকি সাইমন্স, ইয়ং চাই, মহম্মদ ফিরোজ আহমেদ, সারাফত হোসেন, মহম্মদ গোলা ও উত্তর ২৪ পরগনার সিপিএমের প্রাক্তন কাউন্সিলর মানিক মুখোপাধ্যায়। বেশ কিছুদিন পর জামিনে মুক্তি পায় বিশ্বনাথ ঘড়ুই ওরফে ‘মাংস বিশু’ এবং সিকান্দর আলি। তবে শেষ পর্যন্ত মোট ৮ জনের বিরুদ্ধে চলছিল মামলা।

[আরও পড়ুন: স্কুলের শৌচালয়ের বাইরে অশ্লীল অঙ্গভঙ্গির অভিযোগ, গ্রেপ্তার সিভিক ভলান্টিয়ার]

বুধবার সেই মামলার রায় শোনাল বনগাঁ আদালত। সূত্রের খবর, তথ্য প্রমাণের ভিত্তিতে এদিন ২ অভিযুক্তকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড ও ১ লক্ষ টাকা জরিমানা দেওয়ার নির্দেশ দেন আদালতের বিচারক বিদ্যুৎ রায়। তবে প্রথম থেকেই ঘটনার মূলচক্রী হিসেবে চিহ্নিত ‘মাংস বিশু’-সহ বাকি ৬ জনকে বেকসুর খালাস করেছে আদালত। কারণ হিসেবে বলা হয়েছে, একাধিকবার তদন্ত করা হলেও তাঁদের কাছে থেকে মাংস উদ্ধার হয়নি। মামলার রায় ঘোযণার পর স্বস্তিতে অভিযুক্তরা।   

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং