BREAKING NEWS

২৩ শ্রাবণ  ১৪২৭  রবিবার ৯ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

করোনার গোষ্ঠী সংক্রমণ রুখতে ‘সেফ হোম’ বেশ উপযোগী, বাংলার প্রশংসায় কেন্দ্র

Published by: Sayani Sen |    Posted: July 5, 2020 12:14 pm|    Updated: July 5, 2020 12:17 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: উপসর্গহীন করোনা (Coronavirus) রোগীদের জন্য ‘সেফ হোম’ চালু করে রাজ্য সরকার। ইতিমধ্যে রাজ্যে ১০৬টি ‘সেফ হোম’ তৈরিও করা হয়েছে। এই উদ্যোগেরই প্রশংসা করল কেন্দ্রীয় সরকার। এই পদক্ষেপের মাধ্যমে বাংলায় গোষ্ঠী সংক্রমণ রোধ করা সম্ভব হয়েছে বলেই জানান কেন্দ্রীয় ক্যাবিনেট সচিব রাজীব গৌরা।

ভিনরাজ্য থেকে পরিযায়ী শ্রমিকরা বাংলায় ফেরার পর থেকেই করোনা সংক্রমণের গ্রাফ বেশ উর্ধ্বমুখী। অনেককেই দেখা গিয়েছে, করোনার কোনও উপসর্গ না থাকা সত্ত্বেও পরীক্ষার রিপোর্টে মিলেছে কোভিড সংক্রমণের প্রমাণ। আর উপসর্গহীন করোনা রোগীদের মাধ্যমে অন্যান্যদের সংক্রমণের আশঙ্কা নেহাত কম কিছু নয়। তাই উপসর্গহীন কিংবা মৃদু উপসর্গযুক্ত রোগীদের নিয়ে ভাবনাচিন্তা শুরু করে বাংলার সরকার। রাজ্য সরকারের তরফে তাঁদের বাড়িতে থেকে চিকিৎসার পরামর্শ দেওয়া হয়। সেলফ আইসোলেশনে থাকাকালীন ওই রোগীদের দেখবেন স্বাস্থ্য আধিকারিকরা। শ্বাসকষ্ট হলে তবেই তাঁদের ভরতি করা হবে হাসপাতালে। ওই সমস্ত রোগীদের থাকার জন্য ‘সেফ হোম’ চালু করে রাজ্য। ইতিমধ্যেই কলকাতা-সহ গোটা রাজ্যে ১০৬টি ‘সেফ হোম’ রয়েছে।

[আরও পড়ুন: বাঁশ-দা দিয়ে নৃশংস অত্যাচার, বাংলাদেশি পাচারকারীদের হামলায় জখম ৩ বিএসএফ জওয়ান]

শনিবার সব রাজ্যের মুখ্যসচিবদের সঙ্গে বৈঠক করেন কেন্দ্রীয় ক্যাবিনেট সচিব রাজীব গৌরা। ওই বৈঠকে বাংলার মুখ্যসচিব রাজীব সিনহা (Rajib Sinha) ‘সেফ হোমের’ কথা জানান। কলকাতা-সহ বিভিন্ন জেলায় মোট ১০৬টি ‘সেফ হোম’ তৈরি করা হয়েছে বলেও জানান তিনি। কেন্দ্রীয় ক্যাবিনেট সচিব রাজীব গৌরা এই উদ্যোগের কথা শুনে অবাক হয়ে যান। গোষ্ঠী সংক্রমণ রুখতে ‘সেফ হোম’ অত্যন্ত কার্যকরী বলেই জানান তিনি। রাজ্যের এই উদ্যোগের প্রশংসাও করেন কেন্দ্রীয় ক্যাবিনেট সচিব। সূত্রের খবর, পশ্চিমবঙ্গের এই ‘সেফ হোম’ মডেল অনুসরণ করে উপকৃত হয়েছে রাজস্থানও।

[আরও পড়ুন: করোনা রোগীর চিকিৎসায় ‘গাফিলতি’ বেসরকারি হাসপাতালের, নয়া গাইডলাইন প্রকাশ রাজ্যের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement