BREAKING NEWS

১৯ আষাঢ়  ১৪২৭  রবিবার ৫ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

রেশনের ডাল নিয়ে কেন্দ্র-রাজ্য মনোমালিন্যে ইতি, রাজ্যের দাবি মেনে মুগডালই পাঠাচ্ছে দিল্লি

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: June 1, 2020 9:50 pm|    Updated: June 1, 2020 10:13 pm

An Images

ধ্রুবজ্যোতি বন্দ্যোপাধ্যায়: মুগ বা মসুর – কোনও ডালই মিলবে না। কেন্দ্রের তরফে একথা জানিয়ে বলা হয়েছিল, লকডাউন পরিস্থিতিতে দেশজুড়ে বিনামূল্যে রেশন বণ্টনে কেন্দ্রীয় প্রকল্পের সুবিধা বাবদ অন্য কোনও ডাল নিতে হবে। কেন্দ্রের এই প্রস্তাব পত্রপাঠ খারিজ করে দিয়েছিল বাংলা। এখানে মুগ বা মসুরডালই মানুষের খাদ্যাভ্যাস। অন্য কোনও ডালের চাহিদা সেভাবে নেই। এ নিয়ে একটা চোরা সংঘাত ছিল। এবার তাতে ইতি পড়ল। কেন্দ্র জানিয়ে দিয়েছে, মুগডালই পাঠানো হচ্ছে রাজ্যে।

জুন মাসের জন্য বরাদ্দ মসুর ডাল এর মধ্যেই পৌঁছে যাবে রাজ্যে। এরপর বাকি দু মাসের জন্য কেন্দ্রের কাছে মসুর বা মুগ – কোনও ডালই মজুত নেই বলে জুলাই ও অগাস্ট মাসের জন্য তা পাঠানো যাবে না বলে রাজ্যকে জানিয়েছিল কেন্দ্র। অন্য কোনও ডাল নেওয়ার প্রস্তাবও দেওয়া হয়েছিল। রাজ্য খাদ্যদপ্তর তা খারিজ করে জানায়, বাংলায় অন্য কোনও ডালের চাহিদা তেমন নেই। রেশনে তা দিলে, নাও নিতে পারেন কেউ। তবে এই সমস্যা এবার মিটেছে। আজ থেকে কলকারখানা, কৃষি, শিল্পক্ষেত্র সবই খুলেছে। ফলে ডালের জোগান বাড়বে এবং বাংলার চাহিদা অনুযায়ী অন্তত মুগডাল পাঠানো সম্ভব হবে।

[আরও পড়ুন: দুস্থদের পাশে থাকতে ‘অঞ্জলি’ কর্মসূচি মহিলা তৃণমূলের, বিলি করা হল সবজির প্যাকেট]

জানা গিয়েছে, এ মাসের ১৫ তারিখের পর থেকে রেশনে মসুর ডাল পাবেন গ্রাহকরা। পরিবার পিছু ১ কেজি করে ডাল দেওয়া হবে। আর জুলাই ও অগাস্টের মাঝামাঝি সময়েই রেশন দোকান থেকে ১ কেজি করে মুগডাল তুলতে পারবেন। কারণ, ডাল এসে পৌঁছতে একটু সময় লাগবে বলে জানানো হয়েছে। এছাড়া পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্য বরাদ্দ রেশন বণ্টনেও সোমবার ছাড়পত্র মিলেছে রাজ্য সরকারের। খাদ্যদপ্তরে পৌঁছেছে চাল ও ছোলা। খাদ্যদপ্তর এবার চাইলেই বণ্টন শুরু করতে পারে।

[আরও পড়ুন: বঙ্গে ঢুকে পড়ল পঙ্গপালের দল? একাধিক জেলায় জমিতে ফসলের দফারফা, তুঙ্গে আতঙ্ক]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement