Advertisement
Advertisement

পঞ্চায়েতের বোর্ড গঠনকে ঘিরে উত্তপ্ত ইসলামপুর, মৃত এক

তৃণমূল কর্মীকে বোমা মারার অভিযোগ বিজেপির বিরুদ্ধে৷

Clashes between TMC workers and independent supporters in Islampur
Published by: Tanujit Das
  • Posted:August 25, 2018 1:49 pm
  • Updated:August 25, 2018 2:02 pm

শংকরকুমার রায় ও নন্দন দত্ত: পঞ্চায়েত বোর্ড গঠন করাকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত হয়ে উঠল উত্তর দিনাজপুরের ইসলামপুর৷ শাসক-নির্দল সংঘর্ষে উত্তেজনা ছড়াল পণ্ডিতপোঁতা-১ গ্রাম পঞ্চায়েতে৷ শনিবার সকাল থেকেই সেখানে শুরু হয় গুলি ও বোমাবাজি৷ ঘটনায়, ইতিমধ্যে নিহত হয়েছেন এক নির্দল সমর্থক৷ মৃতের নাম লাল মহম্মদ, বয়স ৪৫৷ আতঙ্কে রয়েছে এলাকার সাধারণ মানুষ৷

[প্রসবের সময় চিকিৎসকের হাতে ছিন্ন সদ্যোজাতর মাথা, মৃত্যু প্রসূতির]

Advertisement

জানা গিয়েছে, ইসলামপুরের পণ্ডিতপোঁতা-১ গ্রাম পঞ্চায়েতে ছয়টি আসনে জয়ী হয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস এবং পাঁচটি আসনে জয়লাভ করেছে নির্দল প্রার্থীরা। ভোট পরবর্তী সময়ে জয়ী নির্দল সদস্যরা তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দেয়৷ এরপর থেকেই শুরু হয় নয়া দ্বন্দ্ব৷ পঞ্চায়েত প্রধানের পদ নিয়ে ঝামেলা শুরু হয় দু’পক্ষের মধ্যে। শনিবার ছিল বোর্ড গঠনের দিন৷ সূত্রের খবর, বিষয়টিকে কেন্দ্র করে এদিন সকাল থেকেই তৃণমূল কংগ্রেস ও নির্দল সদস্যদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ বেধে যায়। বোমা ও গুলির শব্দে কাঁপতে থাকে গোটা এলাকা৷ তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মী দালাল বস্তির নামে অপহরণেরও অভিযোগ আনা হয়েছে৷ অভিযোগ, এই ব্যক্তি নাকি মোজাফ্ফর হোসেন নামে এক নির্দল কর্মীকে অপহরণ করেছে৷ সংঘর্ষে দু’পক্ষের কমপক্ষে দশজন আহত হয়েছে। মৃত্যু হয়েছে এক জনের৷ এখনও চরম আতঙ্ক গ্রাস করে রয়েছে গোটা এলাকা৷ ইতিমধ্যে, একে অপরের বিরুদ্ধে বোমাবাজি এবং ইট, পাথর ও গুলি ছোঁড়ার অভিযোগ এনেছে তৃণমূল কংগ্রেস ও নির্দল সদস্যরা৷ সংঘর্ষে এলাকা এতটাই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে যে, পরিস্থিতি সামাল দিতে এলাকায় নামে বিশাল পুলিশ বাহিনী ও র‍্যাফ৷ ঘটনায় এখনও ছ’জনকে আটক করেছে পুলিশ।

Advertisement

পাশাপাশি, বীরভূমের সদাইপুর থানার তুরুপগড়ীহাট গ্রামে তৃণমূল কংগ্রেসকর্মীকে লক্ষ্য করে বোমা মারার অভিযোগ উঠল৷ অভিযোগের তির বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে। স্থানীয় সূত্রে খবর, শুক্রবার রাতে বিজয় মিছিল করে বাড়ি ফিরছিলেন তৃণমূল কংগ্রেসকর্মী আপসার হোসেন৷ তখনই তাঁকে লক্ষ্য করে বোমা মারা হয়৷ বোমার আঘাতে গুরুতর আহত হন তিনি৷ সেই অবস্থায় তাঁকে ভরতি করা হয় সিউড়ি হাসপাতালে৷ থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয় বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতী শেখ গরিব ও তার দলবলের বিরুদ্ধে৷ যদিও ঘটনায় এখন কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ৷

[সুপ্রিম রায়ে অবৈধ ই-মনোনয়ন, অনিশ্চিত ভাঙড়ের পাঁচ নির্দল সদস্যের ভবিষ্যৎ]

উল্লেখ্য, গতকালই কেটে গিয়েছে ত্রিস্তরীয় পঞ্চায়েত নির্বাচন সংক্রান্ত জট৷ রায় দান করেছে দেশের শীর্ষ আদালত৷ ৩৪ শতাংশ বিনা প্রতিদ্বন্দ্বী জয়ী আসনে ফল ঘোষণা করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে৷ পঞ্চায়েত দপ্তরও জানিয়ে দিয়েছে, দ্রুত শুরু হবে বোর্ড গঠনের কাজ৷ এরপর থেকেই রাজ্যের জায়গায় জায়গায় শুরু হয়ে গিয়েছে শাসক-বিরোধী সংঘর্ষ বা শাসকের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব৷

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ