BREAKING NEWS

০৯ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  মঙ্গলবার ২৪ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

রাম নবমীতে গোষ্ঠী সংঘর্ষে উত্তপ্ত রানিগঞ্জ, বোমাবাজিতে হাত উড়ল ডিসি-র

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: March 26, 2018 5:59 pm|    Updated: July 20, 2019 3:35 pm

Clashes in Raniganj during Ram Navami rally, cop sustains injury

চন্দ্রশেখর চট্টোপাধ্যায়: রাম নবমীকে কেন্দ্র করে গোষ্ঠী সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়ে উঠল রানিগঞ্জ। প্রবল বোমাবাজিতে গুরুতর জখম হলেন আসানসোল-দুর্গাপুর ডিসি হেড কোয়ার্টার অরিন্দম দত্ত চৌধুরি। ডান হাত ক্ষতবিক্ষত হয়ে গিয়েছে তাঁর। আহত হয়েছেন আরও বেশ কয়েকজন পুলিশকর্মী।

জানা যাচ্ছে, রাম নবমীকে কেন্দ্র করেই উত্তেজনার সূত্রপাত। বিভিন্ন আখড়া থেকে মিছিল আসার কথা ছিল। এরকমই একটি মিছিল ঢুকে পড়ে স্পর্শকাতর এলাকায়। পুলিশ বাধা দিতে এলে তখনই ঝামেলা শুরু হয়। পুলিশের সঙ্গে আখড়ার সদস্যদের খণ্ডযুদ্ধ বেধে যায়। চলে ব্যাপক বোমাবাজি। অভিযোগ, পুলিশকে লক্ষ্য করেও বোমা ছোড়া হয়। তাতেই মারাত্মক জখম হন ডিসি সদর অরিন্দম দত্ত চৌধুরি। তাঁকে দুর্গাপুর মিশন হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে। চিকিৎসার জন্য মেডিক্যাল বোর্ড গঠন করা হয়েছে। আঘাতের নমুনা দেখে তাঁদের অনুমান, হাত লক্ষ্য করেই বোমাটি ছোড়া হয়েছিল।

[  রাম নবমীর মিছিলকে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্র কান্দি, পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটবৃষ্টি ]

এদিকে ঘটনাকে কেন্দ্র করে রীতিমতো রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় রানিগঞ্জ। আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয় ঘরবাড়ি ও দোকানপাটে। প্রায় ১৫টি বাড়িতে আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয়। ভেঙে দেওয়া হয় দোকানপাট। পুলিশ সূত্রে খবর, ‌ এদিন সকালে পুলিশের অনুমতি নিয়ে সেখানে রামনবমীর মিছিল বের করেন স্থানীয় উদ্যোক্তারা। আচমকাই মিছিলের উপরে একদল দুষ্কৃতী হামলা শুরু করে। জানা গিয়েছে, মিছিলকে লক্ষ্য করে ইট, বোমা ছোড়া শুরু হলে গোলমালের সূত্রপাত শুরু হয়। মিছিলের লোকজন ছত্রভঙ্গ হয়ে গেলে পালটা ওই দুষ্কৃতীরা তাদের ঘিরে ধরে হামলা শুরু করে। চলে যথেচ্ছ বোমা, গুলি। সামাল দিতে গিয়ে গুরুতর জখম হন ডিসি সদর অরিন্দম দত্ত চৌধুরি, এক ইন্সপেক্টর-সহ কমপক্ষে ২০ জন পুলিশকর্মী। বোমার আঘাতে অরিন্দমবাবুর ডান হাত ক্ষতবিক্ষত হয়ে যায়। দুষ্কৃতী হামলায় পুলিশ ছাড়াও কমপক্ষে ১৫জন মিছিলে অংশ নেওয়া মানুষ গুরুতর জখম হয়েছেন।

[  ত্রিশূল হাতে রাম নবমীর মিছিল, লকেটের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের পুলিশের ]

খবর পেয়েই এদিন রানিগঞ্জে যান কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। তিনি অভিযোগ করেন, এটা দিদির পক্ষপাতিত্বর কারণে হয়েছে। এক পক্ষকে মাথায় তুলে রাখছে বলেই এমন হামলার সুযোগ পাচ্ছে তারা। পুলিশ ব্যর্থ। অন্যদিকে পুর নিগমের মেয়র জীতেন্দ্র তেওয়ারির দাবি, তেমন কিছু হয়নি। গুজবে কান দেবেন না। মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত তিনি সেখানেই থাকবেন বলে জানান।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে