BREAKING NEWS

৪ আষাঢ়  ১৪২৮  শনিবার ১৯ জুন ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

জেলাসফরে আজও মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে আলাপন, মুখ্যসচিবের ভবিষ্যৎ নিয়ে কোন পথে রাজ্য?

Published by: Sulaya Singha |    Posted: May 29, 2021 1:02 pm|    Updated: May 29, 2021 1:23 pm

CM Mamata Banerjee and Alapan Banerjee conduct aerial survey of Cyclone Yaas hit areas | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আজ, শনিবারও ঘূর্ণিঝড় ‘যশে’ ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শনে বেরিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। গতকালের মতো আজও তাঁর সফরসঙ্গী আলাপন বন্দ্যোপাধ্য়ায়। কিন্তু শুক্রবার কেন্দ্রের তরফে নির্দেশ এসেছে, রাজ্যের কাজে অব্যাহতি দিতে হবে আলাপনকে। কেন্দ্রের হয়ে কাজ করবেন IAS  আধিকারিক। মোদি সরকারের যে সিদ্ধান্তে বেশ অসন্তুষ্ট রাজ্য। শোনা যাচ্ছে, কেন্দ্রকে চিঠি দিয়ে রাজ্য জানিয়ে দিতে পারে মুখ্যসচিবকে ছাড়া হবে না।

আজ সকালেই দিঘার ক্ষতিগ্রস্ত এলাকাগুলি পরিদর্শন করেন মুখ্যমন্ত্রী। ইতিমধ্যেই এই পর্যটন স্থলের সৌন্দর্য ফেরাতে দিঘা উন্নয়ন পর্ষদের দায়িত্ব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়কেই দিয়েছেন মমতা। এদিন মুখ্যসচিবকে সফরসঙ্গী করেই নন্দীগ্রাম, খেজুরি, কাঁথির ক্ষতিগ্রস্ত জায়গাগুলি ঘুরে দেখবেন তিনি।এরপর নবান্নে ফিরে বিকেল তিনটে নাগাদ সাংবাদিকদের মুখোমুখি হওয়ার কথা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। সেখানেই মুখ্যসচিবকে নিয়ে রাজ্যের কী পরিকল্পনা বা ভাবনা, তা অনেকটা স্পষ্ট হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। 

[আরও পড়ুন: হার মেনে নিতে না পেরে বাংলার ক্ষতি করছে কেন্দ্র! মুখ্যসচিবের বদলির নির্দেশে ক্ষুব্ধ তৃণমূল]

সদ্যই মুখ্যসচিব পদে তিন মাসের এক্সটেনশন পেয়েছেন আলাপন। এর মধ্যে একপ্রকার হঠাৎই কেন্দ্র থেকে ডাক আসে আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Alapan Banerjee)। এবার তাঁকে কাজ করতে হবে কেন্দ্র সরকারের সঙ্গে। কেন্দ্রের তরফে রাজ্যকে চিঠি দিয়ে জানিয়ে দেওয়া হয়, ক্যাবিনেট কমিটির বৈঠকে আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়কে কেন্দ্রের কাজে নিয়োগ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আগামী ৩১ মে সকাল ১০টায় দিল্লিতে নর্থ ব্লকে গিয়ে কাজে যোগ দিতে হবে এই আমলাকে। সেইমতো তাঁকে যেন রাজ্য সরকার তাৎক্ষণিকভাবে মুখ্যসচিবের পদ থেকে অব্যাহতি দেয়। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, রাজ্যের তরফে আগেই কেন্দ্রের কাছে তাঁকে এই পদে বহাল রাখার আরজি জানানো হয়েছিল। রাজ্যের সেই দাবি মেনেও নেয় কেন্দ্র। কিন্তু তারপরই এমন পদক্ষেপে বিরক্ত নবান্ন।

সরকারের এমন নির্দেশে ফের চরমে পৌঁছেছে কেন্দ্র-রাজ্য সংঘাত। তৃণমূলের দাবি, হার মানতে না পেরেই নানারকম ভাবে বাংলার ক্ষতি করার চেষ্টা করে চলেছে বিজেপি সরকার। তাই শোনা যাচ্ছে, চিঠি দিয়ে রাজ্য সরকারের তরফে জানানো হতে পারে, আলাপনকে ছাড়া হবে না। আজ সাংবাদিক সম্মেলনেই এনিয়ে একাধিক প্রশ্নের উত্তর মেলার সম্ভাবনা রয়েছে।

[আরও পড়ুন: কোভিড পরিস্থিতিতেই বদলির ফলে ছাড়তে হবে মেট্রোর সুরক্ষার দায়িত্ব, ক্ষুব্ধ আরপিএফ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement