BREAKING NEWS

৭  আশ্বিন  ১৪২৯  মঙ্গলবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

সৌজন্য বিনিময়, প্রকাশ্যে আলিঙ্গন কংগ্রেস ও বিজেপি প্রার্থীর

Published by: Tanumoy Ghosal |    Posted: April 2, 2019 9:43 pm|    Updated: April 20, 2019 6:05 pm

Congress and BJP candidate hug in public in Burdwan's Katwa

ধীমান রায়, কাটোয়া: ভোটের মরশুমে প্রকাশ্যে আলিঙ্গন করলেন কংগ্রেস ও বিজেপি প্রার্থী। মঙ্গলবার বিরল সৌজন্যের সাক্ষী থাকলেন বর্ধমানের কাটোয়ার বাসিন্দারা।

[ আরও পড়ুন:নিরাপত্তার দাবিতে উত্তর দিনাজপুরে প্রশিক্ষণ বন্ধ রেখে বিক্ষোভ ভোটকর্মীদের]

বর্ধমান পূর্ব লোকসভা কেন্দ্রে কংগ্রেসের প্রার্থী সিদ্ধার্থ মজুমদার, আর বিজেপির পরেশচন্দ্র দাস। ভোটের আগে দিনভর প্রচারে ব্যস্ত দু’জনেই। কাটোয়ার অগ্রদীপে এখন চলছে গোপীনাথের মেলা। মঙ্গলবার প্রচারের ফাঁকে এই মেলাতেই দেখা হয়ে যায় কংগ্রেস ও বিজেপি প্রার্থীর। জানা গিয়েছে, এদিন ভোটে প্রচার করতে কাটোয়া এসেছিলেন কংগ্রেস প্রার্থী সিদ্ধার্থ মজুমদার ও বিজেপি প্রার্থী পরেশচন্দ্র দাস। গোপীনাথের মেলায় গিয়ে জনসংযোগের সুযোগ হাতছাড়া করতে চাননি কেউই। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, দলের কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে কংগ্রেস প্রার্থী যখন মেলায় পৌঁছান, ঠিক তখনই মেলা প্রাঙ্গনে ঢোকেন বিজেপি প্রার্থীও। মুখোমুখি হতেই আলিঙ্গন করেন সিদ্ধার্থ মজুমদার ও পরেশচন্দ্র দাস। কংগ্রেস প্রার্থী সিদ্ধার্থ মজুমদার বলেন, ‘বাংলার মানুষের জন্য আমাদের লড়তে হবে। মানুষের জন্য ভাল কাজ করার চেষ্টা করতে হবে সব রাজনৈতিক দলকেই।’ পালটা সৌজন্যের বার্তা দেন বিজেপি প্রার্থী পরেশচন্দ্র দাসও। বলেন, ‘এই সৌজন্যই বাংলার সংস্কৃতি। রাজনৈতিক লড়াই থাকবে, কিন্তু মানুষে মানুষে বিভেদ থাকা কখনওই কাম্য নয়।’

গত বছর পঞ্চায়েত ভোটের সময় নজিরবিহীন অশান্তি হয়েছিল বাংলায়। তবে লোকসভা ভোটের নির্ঘণ্ট ঘোষণা হওয়ার পর এখনও পর্যন্ত তেমন কোনও অশান্তির খবর নেই। তবে রাজনৈতিক দলগুলির বাকযুদ্ধ যথারীতি চলছে। এই প্রেক্ষাপটে সাধারণ মানুষ তো বটেই, কাটোয়ার কংগ্রেস ও বিজেপি প্রার্থীর সৌজন্যে অভিভূত দুই দলের কর্মীরাও।

ছবি: জয়ন্ত দাস

[ আরও পড়ুন: ময়দানে মোদি-মমতা, বুধবার থেকে বাংলায় নির্বাচনী প্রচারের ঝড়]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে