৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘কেন্দ্রীয় বাহিনী বুথে ঢুকলে ভোট বন্ধ করে দিন’, নিদান অনুব্রতর

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: April 26, 2019 8:26 pm|    Updated: April 26, 2019 8:26 pm

An Images

ধীমান রায়, কাটোয়া:  বিতর্ক যেন কিছুতেই পিছু ছাড়ে না অনুব্রত মণ্ডলের। কয়েকদিন আগে কেন্দ্রীয় বাহিনীকে নকুলদানা খাওয়ানোর কথা বলেছিলেন তিনি। তা নিয়ে বিস্তর জলঘোলাও হয়। ফের বেফাঁস মন্তব্য করলেন বীরভূমের তৃণমূল জেলা সভাপতি। এবার ভোটের সময় বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী ঢুকলে তাঁদের বের করে দেওয়ার নিদান দিলেন অনুব্রত মণ্ডল। তাঁর এই মন্তব্যকে ঘিরেই মাথাচাড়া দিয়েছে নয়া বিতর্ক৷ 

[আরও পড়ুন:  মহুয়াকে কুরুচিকর মন্তব্য, বিজেপি নেতার ভোটপ্রচারে নিষেধাজ্ঞা কমিশনের]

শুক্রবার বিকেলে তৃণমূল প্রার্থী অসিত মালের সমর্থনে বোলপুর লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত মঙ্গলকোটে একটি সভার আয়োজন করে তৃণমূল নেতৃত্ব। সেখানেই উপস্থিত ছিলেন অনুব্রত মণ্ডল। বরাবরের মতোই এদিনের জনসভা থেকে রাজ্য সরকারের প্রকল্পের কথা সকলের সামনে তুলে ধরেন তিনি। পাশাপাশি, দলের জয়ের বিষয়ে কর্মীদের আশ্বাসও দেন। বক্তব্য শেষ করে নিজের আসনে বসেন তিনি। এই পর্যন্ত স্বাভাবিক ছিল পরিস্থিতি। এরপর ফের মাইক্রোফোন চেয়ে নেন অনুব্রত মণ্ডল। তখনই কেন্দ্রীয় বাহিনী প্রসঙ্গে বিতর্কিত মন্তব্য করে বসেন বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি। তিনি বলেন, ‘‘কেন্দ্রীয় বাহিনীর কাজ বুথের বাইরে৷ তাঁরা বুথের বাইরেই থাকবেন। কেন্দ্রীয় বাহিনী বুথের ভিতরে ঢুকলে বুথ এজেন্ট যাঁরা থাকবেন, তাঁরা তাঁদের বের করে দিন। পরিস্থতি প্রতিকূল হলে ভোটগ্রহণ বন্ধ করে বিডিওর কাছে অভিযোগ জানান৷’’ প্রয়োজনে তাঁদের বিরুদ্ধে এফআইআরের নিদান দেন পোড়খাওয়া ওই তৃণমূল নেতা।  আর তাঁর এই মন্তব্যকে ঘিরে জোর সমালোচনা শুরু হয়েছে রাজনৈতিক মহলে। 

[আরও পড়ুন: ইভিএম-এ প্রতীকের নিচে লেখা বিজেপির নাম! বারাকপুরে বন্ধ মক পোলিং]

তবে এহেন মন্তব্যের পরেই সুর কিছুটা নরম করে তিনি বলেন, ‘‘কেন্দ্রীয় বাহিনীকে আমি শ্রদ্ধা করি। বুথের বাইরে থাকার অধিকার অবশ্যই তাঁদের আছে।’’ কেন্দ্রীয় সরকারকে কটাক্ষ করে তিনি বলেন, ‘‘১০০ কোম্পানি কেন, ৪০০ কোম্পানি ফোর্স দিলেও কিছু হবে না। তৃণমূল বিপুল ভোটে জিতবেই।’’  তিনি আরও বলেন, ‘‘আমরা জিতে বসে আছি। নদিয়া, বোলপুরে জিতে বসে আছি। গোল কীভাবে আটকাতে হয় আমার জানা আছে। গোল আমি দিই। খাই না।’’ অর্থাৎ বরাবরের মতো এদিনের সভাতেও আত্মবিশ্বাসের সুর শোনা গেল অনুব্রত মণ্ডলের গলায়৷ 

দেখুন ভিডিও:

ছবি: জয়ন্ত দাস

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement