Advertisement
Advertisement
TMC

‘উপহার নেব না, কারও বাড়ি খাবও না’, সম্পত্তিবৃদ্ধি বিতর্কের মাঝে ঘোষণা শোভনদেব

শোভনদেবের মন্তব্যে জোর চর্চা বিভিন্ন মহলে।

Controversy started over MLA Sovandev Chatterjee's comment | Sangbad Pratidin

ফাইল ছবি।

Published by: Tiyasha Sarkar
  • Posted:September 12, 2022 6:32 pm
  • Updated:September 12, 2022 6:32 pm

অর্ণব দাস, বারাকপুর: একের পর এক দুর্নীতিতে নাম জড়াচ্ছে তৃণমূল (TMC) নেতাদের। কোনও কোনও ক্ষেত্রে অন্যের সম্পত্তি বৃদ্ধিতে তৃণমূল নেতাদের বিরুদ্ধে সহযোগিতার অভিযোগও উঠছে। এই নিয়ে টানাপোড়েনের মাঝেই খড়দহের বিধায়ক বুঝিয়ে দিলেন তিনি যথেষ্ট সাবধানী। মাথা উচু করে রাজনীতি করতেই পছন্দ করেন। বললেন, “আমি কারও উপহার গ্রহণ করব না, চাই না কেউ কাদা ছেটাক।”

রবিবার তৃণমূলের তরফে খড়দহের ঘোলা মহিষাপোতায় দলীয় অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিলেন। সেখানে উপস্থিত ছিলেন খড়দহের বিধায়ক শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় (Sovandeb Chattopadhyay)। সেখানেই তিনি বলেন, “আমি এসেছি কাজ করতে। পাঁচ বছর পর চলে যাব। সকলের সহযোগিতা চাই। আমি আপনাদের থেকে এক নয়া পয়সা নিয়ে যাব না। খড়দহে যতদিন আছি আমাকে কোনও উপহার দেওয়া যাবে না। আমি কারও কোনও উপহার গ্রহণ করব না। কারও বাড়িতে খাব না। চাই না আমার গায়ে কেউ কালো দাগ ছিটিয়ে দিক। চাই না এতো বয়সে মাথা নিচু করতে। চাই না কেউ আমাকে ব্যবহার করে তার নিজের সম্পদ বাড়িয়ে নিক।”

Advertisement

[আরও পড়ুন: ‘ড্রাগের নেশা করত’, বাগুইআটির মৃত ছাত্রদের নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য সৌগত রায়ের, পালটা দিলেন দিলীপ]

শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় আরও বলেন, “আপনাদের বলছি, দয়া করে আপনারা আমাদের খেয়াল রাখুন। আমাকে ভোট দিলেন, আমার ব্যবহার কেমন আমার চালচলন কেমন, আমি কি সত্যিই কাজ করছি নাকি আমার ক্ষমতা বলে আমার সম্পদ বাড়ানোর চেষ্টা করছি সেটা খেয়াল রাখুন। তা না হলে আমাদের দেশ সমাজ ধ্বংস হয়ে যাবে। মানুষ তাদের প্রাপ্য অধিকার থেকে বঞ্চিত হবে। আমার কিছু ছিল না, দেখা গেল আমার অনেক সম্পদ হয়ে গেল। বাসের কন্ডাক্টর থেকে দেখা গেল ৫০ বিঘা জমির মালিক হয়ে গেলাম। কোথা থেকে আসবে টাকা, কে দিচ্ছে টাকা। কাউকে টাকা দেবেন না। সজাগ হয়ে যান। না হলে আগামী দিনে আপনাদের ছেলে মেয়ে কারও কোন নিরাপত্তা থাকবে না। এখন টিভি খোলা যাচ্ছে না। এমনকি আমাদের দলের যারা অন্যায় করছে, অনেকেই ধরা পড়েছে। আমরা কারও দায়িত্ব নেব না।”

Advertisement

মন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ের এই বক্তব্যে স্পষ্ট যে, দলের নেতাদের কীর্তিতে বেশ অস্বস্তিতে তিনি। যা দলের অন্দরের অশান্তি নিয়ে প্রশ্ন তুলে দিয়েছে। শোভনদেবের ভিডিও ভাইরাল হতেই শুরু হয়েছে জোর চর্চা।

[আরও পড়ুন: পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে ৪ দিনের জেলা সফরে মুখ্যমন্ত্রী, একগুচ্ছ কর্মসূচি দুই মেদিনীপুরে]

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ