BREAKING NEWS

১৫  আষাঢ়  ১৪২৯  শুক্রবার ১ জুলাই ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

‘দিলীপ ঘোষ অনুমতি দিলেই মারের বদলা মার দেব’, হুঁশিয়ারি বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁর

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: June 10, 2020 6:09 pm|    Updated: June 10, 2020 6:11 pm

Controversy started over MP soumitra Khan's comment

ফাইল ছবি

দেবব্রত মণ্ডল, বারুইপুর: “রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের অনুমতির অপেক্ষা, তারপর কোনও বিজেপি কর্মীকে মারধর করা হলে, পালটা মার খেতে হবে। আমরা আর চুপ করে বসে থাকব না”, বারুইপুর থানায় ডেপুটেশন দিতে এসে এমনই আক্রমণাত্মক মন্তব্য করেন বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ। তাঁর এই মন্তব্যকে কেন্দ্র করেই ফের শুরু বিতর্ক।

আমফান বিধ্বস্তদের সুষ্ঠভাবে ত্রাণ বিলি, বিজেপি কর্মীদের সর্বত্র ত্রাণ দিতে যাওয়ার অনুমতি-সহ একাধিক দাবিতে স্মারকলিপি জমা দিতে বুধবার কর্মীদের সঙ্গে নিয়ে বারুইপুরের দলীয় কার্যালয় থেকে মিছিল করে বারুইপুর থানার দিকে যাচ্ছিলেন বিতর্কিত সাংসদ সৌমিত্র খাঁ। মাঝ রাস্তায় তাঁদের বাধা দেয় পুলিশ। বারুইপুর রাস মাঠের কাছে বাধা পেয়েই পুলিশের সঙ্গে ধস্তাধস্তিতে জড়িয়ে পড়েন বিজেপি কর্মী-সমর্থকরা। তখনই সৌমিত্র খাঁ ও বেশকিছু কর্মী-সমর্থক বসে পড়েন রাস্তায়। বারুইপুর-ক্যানিং রোডে স্তব্ধ হয়ে যায় যান চলাচল। এরপর ১০ জন বিজেপি কর্মী-সমর্থককে স্মারকলিপি জমা দেওয়ার জন্য বারুইপুর থানা যাওয়ার অনুমতি দেওয়া হয়।

[আরও পড়ুন: অফিসে পৌঁছতে নাকাল সরকারি কর্মীরা, সমস্যা সমাধানে নয়া দাওয়াই মুখ্যমন্ত্রীর]

পুলিশের অনুমতি নিয়ে স্মারকলিপি জমা দেওয়ার পর সৌমিত্র খাঁ বলেন, “তৃণমূলের দুর্নীতি নিয়ে প্রতিটা থানায় ডেপুটেশন দেওয়া হবে। পুলিশ যতই আমাদের আটকানোর চেষ্টা করুক আমরা আমাদের কর্মসূচি থেকে সরে আসব না। এইভাবে পুলিশ আমাদের আটকাতে পারবে না। পুলিশ আটকানোর চেষ্টা করলে আমরাও আর ছেড়ে কথা বলব না। এই জেলায় ভাইপোর রাজ চলছে এটা আমরা কখনও তা হতে দেব না।” 

[আরও পড়ুন: বিক্ষোভ দেখিয়ে বদলি ১৩ জন পুলিশকর্মী, সরানো হল ডিসি কমব্যাটকেও]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে