১৪  আশ্বিন  ১৪২৯  রবিবার ২ অক্টোবর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

‘করোনা চলে গিয়েছে, বিজেপিকে আটকাতেই রাজ্যে লকডাউন’, ফের বেফাঁস মন্তব্য দিলীপের

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: September 11, 2020 11:44 am|    Updated: September 11, 2020 11:46 am

'Corona has gone', another controversial comment by Dilip Ghosh

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের করোনা নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করে বসলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh)। বৃহস্পতিবার হুগলির ধনেখালির এক জনসভায় যোগ দিয়ে তিনি বললেন, ”করোনা তো চলে গিয়েছে। দিদিমনি লকডাউন করছেন যাতে আমরা কোনও মিটিং, মিছিল না করতে পারি। কিন্তু জেনে রাখুন, এভাবে আমাদের আটকানো যাবে না।” তাঁর এই মন্তব্য ঘিরে ফের রাজনৈতিক মহলে শুরু সমালোচনা।

আনলক ফোরেও (Unlock 4) গোটা দেশের পাশাপাশি রাজ্যে বেড়ে চলেছে করোনা সংক্রমণ (Coronavirus)। দৈনিক সংক্রমণের হারে বাড়ছে উদ্বেগও। মাঝের কয়েকটা দিন এ রাজ্যে সংক্রমণ, মৃত্যু ক্ষণিক স্বস্তি দিলেও ফের করোনা গ্রাফ ঊর্ধ্বমুখী। সংক্রমণের শৃঙ্খল ভাঙতে ‘ব্রেক দ্য চেন’ নিয়মে রাজ্যে প্রতি সপ্তাহে দু’দিন করে চলছে সম্পূর্ণ লকডাউন। আর তাতেই ঘোর আপত্তি বিজেপির। তাঁরা বরাবর এর পিছনে রাজনৈতিক কারণ রয়েছে বলে মনে করেন। তাঁদের অভিযোগ, করোনা রুখতে নয়, আসলে বিজেপিকে রুখতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারের এই লকডাউনের সিদ্ধান্ত। আগস্ট মাসের ৫ তারিখ, রাম মন্দিরের ভূমিপুজোর দিন রাজ্যে পূর্ণ লকডাউন নিয়ে বিস্তর সমালোচনা করেছেন বিজেপি নেতারা। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ‘হিন্দু বিরোধী’ বলেও তোপ দেগেছেন বিজেপি সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা।

[আরও পড়ুন: সাতসকালে হুগলিতে ভয়াবহ দুর্ঘটনা, মৃত রাজ্য পুলিশের আধিকারিক-সহ ৩]

এরপর বৃহস্পতিবার হুগলির ধনেখালির সভায় গিয়ে আরও বিতর্কিত মন্তব্য করে বসেন দলের রাজ্য সভাপতি। মহামারীকে কার্যত বিদায়ই দিয়ে দিলেন তিনি! স্পষ্টই বললেন, ”করোনা চলে গিয়েছে।” এই মুহূর্তে রাজ্যে সপ্তাহে দু’দিন করে সম্পূর্ণ লকডাউনের যৌক্তিকতা নিয়ে ফের প্রশ্ন তুললেন তিনি। আর সেসব করতে গিয়ে ফের হাসির খোরাক হয়ে পড়লেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

[আরও পড়ুন: ফের ঊর্ধ্বমুখী রাজ্যের করোনা গ্রাফ, মোট সংক্রমিতের সংখ্যা ২ লক্ষ ছুঁইছুঁই]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে