৪ আশ্বিন  ১৪২৬  রবিবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

কৃষ্ণকুমার দাস, ভাঙড়: দক্ষিণ ২৪ পরগনার ভাঙড়ে দলের এজেন্টকে বুথে বসাতে গিয়ে বিক্ষোভের মুখে পড়লেন যাদবপুর কেন্দ্রের সিপিএম প্রার্থী বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য। রানিগাছি অবৈতনিক বিদ্যালয়ে তাঁকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখানোর অভিযোগ তৃণমূল সমর্থকদের বিরুদ্ধে। সঙ্গে ছিলেন সাধারণ ভোটাররাও।

[আরও পড়ুন: বিক্ষিপ্ত অশান্তি এবং চাপা উত্তেজনার মধ্যেও ভোটে ব্যাপক সাড়া ভাঙড়বাসীর]

সকাল থেকেই ভাঙড়ে কার্যত চষে বেড়াচ্ছেন সিপিএম প্রার্থী বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য। এলাকা ধরে ধরে প্রতিটি বুথেই যাচ্ছেন তিনি। ভাঙড়ের রানিগাছি অবৈতনিক প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বুথে সিপিএমের এজেন্ট জলিল ঘরামি। প্রার্থী বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য এলাকায় গেলে, সিপিএম এজেন্ট প্রার্থীর কাছে অভিযোগ করেন, তাঁকে জোর করে বুথ থেকে বের করে দেওয়া হয়েছে। এরপরই এজেন্টকে নিজের গাড়িতে তুলে সটান বুথে হাজির হন যাদবপুরের বামপ্রার্থী। বুথের ভিতরে প্রিসাইডিং অফিসারের সঙ্গে রীতিমতো বচসা শুরু হয়ে যায় তাঁর। রানিগাছি অবৈতনিক প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রিসাইডিং অফিসার বলেন, সিপিএম এজেন্ট জলিল ঘরামিকে কেউ বুথে থেকে বের করে দেয়নি। কিছুক্ষণ থাকার পর তিনি নিজেই বুথ থেকে বেরিয়ে গিয়েছেন।

ততক্ষণে প্রার্থী বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্যকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেছেন তৃণমূল কংগ্রেস সমর্থকরা। একসময়ে সেই বিক্ষোভে শামিল হন ভোটাররাও। বিক্ষোভকারীদের অভিযোগ, রানিগাছি অবৈতনিক বিদ্যালয়ে শান্তিপূর্ণভাবেই ভোট চলছি। বামপ্রার্থী বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য অযথা অশান্তি বাঁধানোর চেষ্টা করছেন। বিক্ষোভের মুখে পড়ে শেষপর্যন্ত বুথ ছেড়ে চলে যান প্রার্থী। ভাঙড় হাইস্কুলে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, দু’চারটি বিক্ষিপ্ত ঘটনা বাদ দিলে ভাঙড়ে ভোট শান্তিপূর্ণই। এদিকে সকালে ভোটগ্রহণ শুরু হতেই ভাঙড়ে কাশীপুরে জড়ো হন জমিরক্ষা কমিটি ও তৃণমূল সমর্থকরা। ভোটে নিরাপত্তার কারণে ওই ১৪৪ ধারা জারি করেছে প্রশাসন। দু’পক্ষকেই সরিয়ে দেয় পুলিশ। মৃদু লাঠিচার্জও করা হয় বলে অভিযোগ। তবে ভোটে কোনও অশান্তির খবর নেই বলে জানিয়েছেন কাশীপুর থানার ওসি।

দেখুন ভিডিও:

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং