BREAKING NEWS

৮ কার্তিক  ১৪২৮  মঙ্গলবার ২৬ অক্টোবর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

বাংলা আবাস যোজনায় মৃতের পরিচয় ব্যবহার করে বাড়ি! কাঠগড়ায় পুরুলিয়ার কংগ্রেস পঞ্চায়েত প্রধান

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: January 9, 2021 8:45 pm|    Updated: January 9, 2021 8:50 pm

Dead man's identity used for house allocation in Bengal's Purlia | Sangbad Pratidin

সুমিত বিশ্বাস, পুরুলিয়া: মৃত কাকা শ্বশুরের পরিচয় ব্যবহার করে নিজের দেওরকে বাংলা আবাস যোজনার বাড়ি দেওয়ার অভিযোগ উঠল কংগ্রেস (Congress) প্রধানের বিরুদ্ধে।

[আরও পড়ুন: প্রধান শিক্ষক-শিক্ষিকার সম্পর্কের টানাপোড়েন, স্কুলের মধ্যেই হাতাহাতি, উত্তপ্ত বনগাঁ]

পুরুলিয়ার ঝালদা দু’নম্বর ব্লকের টাটুয়াড়া গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান রেবতী মণ্ডলের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ উঠেছে। গত ৫ জানুয়ারি এই মর্মে ঝালদা দু’নম্বর পঞ্চায়েত সমিতির তৃণমূল সভাপতি সরলা মুর্মু বিডিওকে এই অভিযোগ করেন। অভিযোগের পরই তদন্ত শুরু করেছে ঝালদা দু’নম্বর ব্লক প্রশাসনl তবে এই ঘটনায় কোন বেনিয়ম হয়নি বলেই মনে করেন কংগ্রেস প্রধান রেবতী মন্ডল। ঝালদা দু’নম্বর ব্লকের বিডিও অরুণ কুমার বিশ্বাস বলেন, “অভিযোগ পেয়েছিl ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছেl” ইতিমধ্যেই প্রথম কিস্তির টাকা পেয়ে বাড়ির জন্য ভিত খননও শুরু হয়ে গিয়েছে বলে অভিযোগ।

প্রায় এক দশক আগে ২০১১ সালে বাম আমলে ‘সোসিও ইকনোমিক সেনসাস’ নামে একটি সমীক্ষা করা হয়। অর্থাৎ আর্থ-সামাজিক অবস্থা কেমন সেই তথ্যপঞ্জির ওপর নির্ভর করে এই ধরনের সরকারি প্রকল্প গুলো দেওয়া হয়ে থাকে। সেই নিরিখেই টাটুয়াড়া গ্রাম পঞ্চায়েতের বড়মেটালা গ্রামের বাসিন্দা বুলু মণ্ডলকে বাংলা আবাস যোজনায় তালিকাভুক্ত করা হয়l তাই তার পার্মানেন্ট ওয়েট লিস্ট বা পি ডবলিউ এল নাম্বার ছিল scpmay-1586048l এই আইডি ব্যবহার করাতেই বেনিয়মের অভিযোগ উঠেছেl স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, যার আইডি ব্যবহার করে এই ঘটনা সেই বুলু মণ্ডল আট বছর আগে মারা গিয়েছেন। তিনি প্রধান রেবতী মণ্ডলের কাকা শ্বশুর। তিনি অবিবাহিত ছিলেন। তাঁর দেখাশোনা করতেন দেওর শিবপ্রসাদ মণ্ডল। তাই মৃত কাকা শ্বশুরের আইডি ব্যবহার করে দেওরকেই বাংলা আবাস যোজনার সুবিধা পাইয়ে দিয়েছেন বলে অভিযোগ। ঝালদা দু’নম্বর পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি সরলা মুর্মু বলেন, “বিষয়টি আমার নজরে আসার সঙ্গে সঙ্গেই আমি বিডিওর কাছে অভিযোগ করেছি। বিরোধীরা এভাবেই সরকারি প্রকল্পের বেনিয়ম করছেনl”

তবে এই ঘটনায় কংগ্রেস প্রধান রেবতী মণ্ডল কোনও অন্যায় দেখছেন না। তাঁর সাফ কথা, “বুলু মণ্ডল অবিবাহিত ছিলেন। তার দেখাশোনা করতেন ছোট ভাইপো শিবপ্রসাদ মণ্ডল। তাই বুলু মণ্ডলের পরিচয় ব্যবহার করে শিবপ্রসাদকে বাংলা আবাস যোজনার সুবিধা দেওয়া হয়েছেl এর মধ্যে অন্যায়ের কি আছে?” তবে ভোটের আগে এই নিয়ে এখন হৈচৈ বেঁধে গিয়েছে ঝালদা দু’নম্বর ব্লকে। আসলে এই জেলায় বাংলা আবাস যোজনা প্রকল্প নিয়ে অতীতে একাধিক বেনিয়ম হয়েছিল। যার প্রভাব পড়েছিল পঞ্চায়েত নির্বাচন সহ লোকসভা ভোটেl মুখ পুড়ে ছিল প্রশাসনেরওl এই কারণেই ওই দুই নির্বাচনে এই জেলায় শাসক দলের ভরাডুবি হয় বলে রাজনৈতিক মহলের মতl তাই বছরখানেক আগে পুরুলিয়া জেলা প্রশাসন বাংলা আবাস যোজনা সপ্তাহ শুরু করে উপভোক্তারা বাড়ির অর্থ পাওয়ার আগে কাটমানি দেব না বলে শপথ বাক্য পাঠ করায়। এবার এই বেনিয়মে কংগ্রেস কাঠগড়ায় ওঠায় ঝালদা দু’নম্বর ব্লক তৃণমূল এই বিষয়টিকে ইস্যু করেছে।

[আরও পড়ুন: পণের দাবিতে অকথ্য ‘নির্যাতন’, পুলিশের দ্বারস্থ তৃণমূল বিধায়ক খগেশ্বর রায়ের পুত্রবধূ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement