৫ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৬  রবিবার ১৯ মে ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo নির্বাচন ‘১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও #IPL12 ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
নির্বাচন ‘১৯

৫ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৬  রবিবার ১৯ মে ২০১৯ 

BREAKING NEWS

ভাস্কর মুখোপাধ্যায়, বোলপুর: ‘‘বাড়িতে লাঠি, টাঙ্গি, বঁটি রাখবেন। বাইরের লোক যখন গ্রামে ঢুকতে আসবে ডাকাত বলে পিটিয়ে মারবেন। কোন চিন্তা নেই নিজেদের বাঁচার অধিকার আছে।’’ নানুরে গড়ডিহা গ্রামে গিয়ে দলীয় কর্মীদের এমনই ভয়ংকর নিদান দিলেন বিজেপির বীরভূম জেলার সহ-সভাপতি দিলীপ ঘোষ। আর তার এই মন্তব্যকে ঘিরেই তুঙ্গে বিতর্ক। তৃণমূলের অভিযোগ নির্বাচনে হেরে যাওয়ার ভয়ে শান্ত নানুরকে অশান্ত করার চেষ্টা করছে বিজেপি।

[আরও পড়ুন: বিজেপি নেতাদের গাড়িতে তল্লাশি-ভাঙচুর, গভীর রাতে রণক্ষেত্র বারাসত ]

কয়েক দিন ধরে নানুরের গড়ডিহি গ্রাম বহিরাগতরা গ্রামে এসে বিজেপি কর্মীদের হুমকি দিচ্ছে বলেও অভিযোগ উঠেছে। বিজেপির অভিযোগ বহিরাগত তৃণমূল কর্মীরা গ্রামে ঢুকে অশান্তি করছে। সোমবার গড়ডিহি গ্রামে গিয়ে বিজেপি কর্মীদের সামনে দিলীপ ঘোষ বলেন, “ওদের তাড়া করে গ্রাম ছাড়া করেছেন তো? খুব ভাল কাজ করেছেন। এবার আমি বলছি, আবার যখন ওরা আসবে তক্ষণ ঘরে কাঁসর, ঘণ্টা, ফোন রাখবেন। ফোন করে গ্রামবাসীদের বেড়িয়ে আসতে বলার পাশাপাশি ঘিরে ফেলবেন। সঙ্গে লাঠি, টাঙ্গি, বঁটি সব রাখবেন। বাইরের লোক যখন গ্রাম ঢুকে আসবে ডাকাত বলে পিটিয়ে মারবেন। কোন চিন্তা নেই নিজেদের বাঁচার অধিকার আছে।’’ এই বিষয়ে বিজেপির জেলা সহ-সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘‘২৩ তারিখের পর বিজেপি কর্মীদের গ্রামছাড়া করার হুমকি দিচ্ছে তৃণমূল। আমি কর্মীদের প্রতিরোধ করা কথা বলেছি।’’ নানুরের তৃণমূলের ব্লক সভাপতি সুব্রত ভট্টাচার্য বলেন, ‘‘মানুষ তার গণতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগ করেছে। গ্রামের মানুষ গ্রামে থাকবে। কিন্তু বিজেপি গ্রামে গিয়ে অশান্তি করার চেষ্টা করছে।’’

[আরও পড়ুন: পার্টি অফিসে ধর্ষণের চেষ্টা, বিজেপি নেতাকে গ্রেপ্তারের দাবিতে পুলিশের দ্বারস্থ নেত্রী ]

লোকসভা ভোটের পর থেকে নানুর, লাভপুর বিধানসভা এলাকাতে বিজেপি সর্মথদের সঙ্গে একের পর এক সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েছে তৃণমূল। ভোটের পর লাভপুর থানার ঠিবা গ্রামে বিজেপি-তৃণমূল সংঘর্ষ হয়। বিজেপির পোলিং এজেন্ট নীলকমল বাগদি এবং তার মা’কে বাড়িতে ঢুকে লাঠি দিয়ে মারধর করার অভিযোগ উঠেছে। একই ভাবে ইলামবাজারের পাইকুনি গ্রামে সিপিএমের পোলিং এজেন্ট সেখ খিলাফতের বাড়িতে আগুন লাগিয়ে দেওয়ারও অভিযোগ পাওয়া গিয়েছে। বোলপুর থানার রজতপুর গ্রামে ২০-২৫ জন তৃণমূল কর্মীর বিরুদ্ধে বিজেপি কর্মী অসীম সমাদ্দারের বাড়ি আক্রমণ করে। অসীমকে রাস্তায় ফেলে মারা হয়। তার মা এবং বাবা, আসীমকে বাঁচাতে এলে তাদেরও মারধর করা হয়। প্রতিটি ক্ষেত্রে অভিযোগের তির তৃণমূলের দিকে। রবিবার বিজেপির একটি প্রতিনিধি দল লাভপুর, নানুর, বোলপুরের বিভিন্ন গ্রামে গিয়ে বিজেপি কর্মীদের সঙ্গে কথা বলে। প্রতিনিধি দলে ছিলেন বিজেপির জেলা সহ-সভাপতি দিলীপ ঘোষ, বোলপুর কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী রামপ্রসাদ দাস-সহ অন্যান্যরা।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং