BREAKING NEWS

০২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  বুধবার ১৮ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

ভদ্রেশ্বরে উদ্ধার আরও ২ দেহ, ধৃত ঘাট মালিক-সহ ৪

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: April 27, 2017 9:14 am|    Updated: April 27, 2017 10:31 am

Death toll rises to 5 in Bhadreshwar Jetty Mishap

নিজস্ব সংবাদদাতা, হুগলি: ভদ্রেশ্বরের তেলেনিপাড়ায় জেটি ভেঙে দুর্ঘটনায় আরও দু’টি মৃতদেহ উদ্ধার হল বৃহস্পতিবার সকালে৷ মৃতদের মধ্যে একজনের নাম সাদাফ মুস্তাফা(২৪), অপরজন এক মাঝবয়সি পুরুষ৷ তাঁর পরিচয় জানা যায়নি৷ ভদ্রেশ্বরে গঙ্গা থেকেই দেহ দু’টি পাওয়া যায়৷ এই নিয়ে এখনও পর্যন্ত জেটি দুর্ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে হল পাঁচ৷ আরও বেশ কয়েকজন নিখোঁজ রয়েছেন বলে অনুমান৷

এই দুর্ঘটনার জেরে চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ৷ এদের মধ্যে রয়েছে ঘাটমালিক সুকোমল চক্রবর্তী ও তার তিন সঙ্গী সুমিত গঙ্গোপাধ্যায়, সুভাষ পাল ও দীপঙ্কর বন্দ্যোপাধ্যায়৷ বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে তাদের ভদ্রেশ্বর মহকুমা আদালতে তোলা হয়৷ ধৃত চারজনের বিরুদ্ধেই জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে৷ স্থানীয় প্রশাসনের অভিযোগ, তেলেনিপাড়ার এই জেটিটি দীর্ঘদিনের পুরনো৷ জীর্ণ ও ভঙ্গুর হয়ে গিয়েছিল৷ তা সত্ত্বেও নিত্যযাত্রীদের নিরাপত্তার বিষয়টি বিন্দুমাত্র গুরুত্ব দেয়নি ঘাটমালিক৷

[OMG! মাত্র ১০ টাকায় মিলছে ‘বাহুবলী ২: দ্য কনক্ল্যুশন’-এর টিকিট!]

 

এদিকে, ওই ঘাটকে কেন্দ্র করে বারাকপুর, নৈহাটি, শ্রীরামপুর-সহ গঙ্গার বিভিন্ন ঘাটেও তল্লাশি চলছে৷ তল্লাশি করছেন এনডিআরএফ ও বিপর্যয় মোকাবিলা দপ্তরের অভিজ্ঞ কর্মীরা৷ কৃষি বিপণন মন্ত্রী তপন দাশগুপ্ত এদিনও সকালে দুর্ঘটনাস্থলে যান তল্লাশির কাজ তদারকি করতে৷ ওখানেই কংক্রিটের জেটি তৈরি হবে৷ পরিবহণ দপ্তর ইতিমধ্যেই টেন্ডার করেছে৷ বৃহস্পতিবারই দপ্তরের কর্মীরা আসছেন বিষয়টি নিয়ে সরেজমিনে আলোচনা করতে৷ বুধবার সকালে হুগলির ভদ্রেশ্বর তেলেনিপাড়া ঘাটে দুর্ঘটনার পর রাত ১১টা পর্যন্ত তল্লাশি চালানো হয়৷ এদিন সকালেও নিখোঁজ ব্যক্তিদের পরিবারের সদস্যরা জেটিঘাটে হাজির হন৷ স্বজন হারানোর কান্নায় ভেঙে পড়েন তাঁরা৷

প্রশাসনের প্রাথমিক অভিমত, জোয়ারের জলে ও মানুষের ভারে দীর্ঘদিনের পুরনো এই জেটিটি বহন ক্ষমতা রাখতে পারেনি৷ তাই এত বড় দুর্ঘটনা ঘটেছে৷ বিপর্যয় মোকাবিলা দপ্তরের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, জেটিটি এতটাই জীর্ণ হয়ে গিয়েছিল যে কাল রাতে ফের জোয়ারের তোড়ে দুর্ঘটনাগ্রস্ত জেটির আরও একটা অংশ ভেঙে খানিকটা দূরে চলে যায়৷ ডুবুরিদের অনুমান, দুর্ঘটনাস্থলের ৫০০ মিটার থেকে ১ কিলোমিটারের মধ্যে দেহ থাকার সম্ভাবনা বেশি তাই ওইখানেই তল্লাশিতে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে৷

[সম্পূর্ণ ডিজিটাল হয়ে ৬০,০০০ কোটি টাকা বাঁচাবে রেল, দাবি প্রভুর]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে