১৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

মুখ্যমন্ত্রীর আবেদনে সাড়া, সুরক্ষা নিশ্চিত করে চেম্বারে ফিরলেন চিকিৎসকরা

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: May 6, 2020 6:46 pm|    Updated: May 6, 2020 6:46 pm

An Images

মনিরুল ইসলাম, উলুবেড়িয়া: করোনা আতঙ্কের জেরে বেশ কিছুদিন ধরে উলুবেড়িয়ায় সমস্ত চিকিৎসকরা বন্ধ রেখেছিলেন ব্যক্তিগত চেম্বার। খুব প্রয়োজনে ফোনেই রোগীদের পরামর্শ দিচ্ছিলেন তাঁরা। কিন্তু ধীরে ধীরে স্বাভাবিকের পথে পরিস্থিতি। ফের চেম্বারে বসতে শুরু করেছেন চিকিৎসকরা। বিশেষত প্রসূতি ও শিশুরোগ বিশেষজ্ঞরা শুরু করেছেন রোগী দেখা।

বেসরকারি চিকিৎসকরা চেম্বার বন্ধ রাখার ফলে প্রবল সমস্যায় পড়েছিলেন রোগীরা। সমস্যা সমাধানে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) চিকিৎসকদের কাছে আবেদন করেছিলেন, তাঁরা যেন রোগীদের পরিষেবা দেন। এরপরই সিংহভাগ চিকিৎসক চেম্বার খুলতে উদ্যোগী হন। তবে সুরক্ষার খাতিরে স্যানিটাইজেশনের ব্যবস্থা থাকছে চেম্বারে। ভিতরে প্রবেশের আগে রোগী ও তাঁর পরিবারের লোকেদের হাতে স্যানিটাইজার দেওয়া হচ্ছে। চিকিৎসকরাও পিপিই পরেই রোগী দেখছেন। সেইসঙ্গে রোগীদের সংখ্যা নিয়ন্ত্রণে রাখছেন প্রত্যেকেই।

howrah-1

[আরও পড়ুন: তৃণমূলের পঞ্চায়েত সদস্যার বাড়ি লক্ষ্য করে বোমাবাজি-গুলি, ধারালো অস্ত্রের কোপ স্বামীকে]

স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ মনিরা সর্দার বলেন, “বেশ কিছুদিন চেম্বার প্রায় বন্ধ রাখতে বাধ্য হয়েছিলাম। তবে রোগীদের কথা ভেবে আবার চেম্বার শুরু করেছি। তবে খুব অসুবিধা ছাড়া রোগীদের আসতে মানা করা হচ্ছে। রোগীরা এলেও তাদের মধ্যে যথেষ্ট দূরত্ব বজায় রাখার দিকে কড়া নজর রাখা হচ্ছে।” শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ সৌরভ মান্না বলেন, “চেম্বার একেবারে বন্ধ করিনি। তবে খুব কমই রোগী দেখেছি। তাও পর্যাপ্ত সুরক্ষা ব্যবস্থা বজায় রেখেই। শিশুদের না দেখলেও তো হবে না। তাদের কথা ভেবেই চেম্বারে বসতে হচ্ছে।” দুই চিকিৎসকই জানান ভয় নেই, তাঁরা রোগীদের পাশে রয়েছেন। বেসরকারি চিকিৎসকদের এই সহযোগিতায় সমস্যা কিছুটা কমবে বলেই মনে করছেন স্বাস্থ্য দপ্তরের কর্তারা।

[আরও পড়ুন: বোমা বাঁধার সময় মুর্শিদাবাদে ফের বিস্ফোরণ, প্রাণহানি এক ব্যক্তির]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement