BREAKING NEWS

২৩ শ্রাবণ  ১৪২৭  রবিবার ৯ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

এলাকা অপরিচ্ছন্ন করার ‘অপরাধ’, সবক শেখাতে সারমেয়কে ধারালো অস্ত্রের কোপ

Published by: Sayani Sen |    Posted: May 30, 2019 1:26 pm|    Updated: May 30, 2019 1:26 pm

An Images

সৌরভ মাজি, বর্ধমান: এলাকা অপরিচ্ছন্ন করত প্রতিদিন৷ তার জেরে ফের সারমেয়র উপর পাশবিক আক্রমণ বর্ধমানে। ধারালো অস্ত্র দিয়ে একটি সারমেয়র পেটের ডানদিকের একাংশ কেটে দেওয়া হয়৷ কে বা কারা এই কাণ্ড ঘটাল তা জানা যায়নি। কয়েকজন পশুপ্রেমীর প্রচেষ্টায় সারমেয়টির চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এক পশু চিকিৎসকের তত্ত্বাবধানে অস্ত্রোপচারও হয়েছে ওই সারমেয়র৷ ওষুধপত্রের বন্দোবস্ত করা হয়েছে৷ 

[ আরও পড়ুন: গ্যারেজ থেকে উদ্ধার যুগলের অর্ধনগ্ন দেহ, বাড়ছে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের তত্ত্ব]

বর্ধমান শহরের প্রাণকেন্দ্র বংশগোপাল টাউন হল। টাউন হল ময়দানেই থাকে একদল সারমেয়। সেখানে ঘুরতে আসা অনেকেই সেই কুকুরগুলিকে খাবার দেন। আবার সেখানকার প্রহরী সৌগত মিত্রও কুকুরগুলিকে দেখভাল করেন। মূলত তাঁর উদ্যোগেই জখম কুকুরটির চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে। মঙ্গলবার টাউন হলে আসা লোকজন একটি কুকুরকে রক্তাক্ত অবস্থায় দেখেন৷ পেটের ডানদিকে সামনের পা থেকে প্রায় পিছনের পা পর্যন্ত কাটা দাগও দেখতে পাওয়া যায়৷ পেটের ভিতরের অংশ বাইরে বেরিয়ে এসেছিল। যা দেখে অনেকেরই গায়ে কাঁটা দিয়েছে। ওই অবস্থাতেই ঘুরে বেড়াচ্ছিল সারমেয়টি। সৌগত মিত্র ওই কুকুরটির খাবারের ব্যবস্থা করেছেন। চিকিৎসক ডেকে সুস্থ করে তোলার ব্যবস্থা করেন৷ তাঁর উদ্যোগেই কুকুরটির অস্ত্রোপচার করা হয়েছে৷

[ আরও পড়ুন: শৃঙ্গে ফেলে আসা গণেশ মূর্তি আনতে গিয়েই কি মৃত্যুর মুখে দীপঙ্কর? বাড়ছে জল্পনা]

সৌগত মিত্র বলেন,‘‘কীভাবে কুকুরটির পেট কেটে গিয়েছে জানি না। তবে দেখে মনে হচ্ছে কেউ ধারালো কিছু দিয়ে কেটে দিয়েছে। অবলা জীব। কিছুই তো বলতে পারে না। নিশ্চয়ই খুব কষ্ট হচ্ছে।” এলাকার প্রায় সকলে এই অমানবিক ঘটনার নিন্দায় সরব৷ পশুপ্রেমীরাও ধিক্কার জানিয়েছেন৷ যে বা যারা এ কাজ করেছে তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন প্রত্যেকেই৷ তবে শুধু বর্ধমানই নয়৷ এর আগে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তেই সারমেয়দের উপর অত্যাচারে ঘটনা শিরোনামে উঠে এসেছে৷ শহরের এনআরএস হাসপাতালে সারমেয়দের প্যাকেটবন্দি দেহ উদ্ধারের ঘটনায় রীতিমতো শোরগোল পড়ে গিয়েছিল৷এই ঘটনাও ফের এনআরএস হাসপাতালের কাণ্ড মনে করিয়ে দিচ্ছে৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement