Advertisement
Advertisement

পুলিশ সেজে ঘরে ঢুকে স্ত্রী-কন্যার সামনেই যুবককে খুন দুষ্কৃতীদের

কী উদ্দেশ্যে এই নৃশংস খুন?

Dressed as cops goons murder youth in Bandel

প্রতীকী ছবি।

Published by: Sangbad Pratidin Digital
  • Posted:March 21, 2017 9:07 am
  • Updated:January 2, 2020 2:35 pm

নিজস্ব সংবাদদাতা, হুগলি: পুলিশের ছদ্মবেশে বাড়িতে ঢুকে তাঁর স্ত্রী ও মেয়ের সামনে এক হকারকে খুন করল দুষ্কৃতীরা৷ মর্মান্তিক এই ঘটনায় মঙ্গলবার সকালে চাঞ্চল্য ছড়াল হুগলির ব্যান্ডেলে৷ সোমবার রাত পৌনে ১২ টা নাগাদ ব্যান্ডেলের কানাগড়ের শরৎপল্লিতে এই ঘটনাটি ঘটেছে৷ পুলিশের ছদ্মবেশে বাড়িতে ঢুকে দুই দুষ্কৃতী গুলি করে বাইক নিয়ে চম্পট দিয়েছে৷ স্বরূপ বণিক নামে ওই হকারকে খুনের ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে৷

স্বরূপের স্ত্রী মিতালি বণিকের অভিযোগ, সোমবার রাতে দুই দুষ্কৃতী মুখে কালো কাপড় বেঁধে বাড়ির দরজায় ধাক্কা দেয়৷ সেই সময় তাঁদের পরিবারের লোকেরা শুয়ে পড়েছিলেন৷ মিতালিদেবী উঠে দরজা খুলতে যান৷ স্বরূপবাবু ও তাঁর মেয়ে তখন ঘরে শুয়েছিলেন৷ মিতালিদেবী ভিতর থেকে তাদের পরিচয় জানতে চাইলে ওই দুষ্কৃতীরা বলে তারা পুলিশের লোক৷ ব্যান্ডেল পিপি থেকে আসছে৷ এই কথা শুনে মিতালিদেবী দরজা খুলে দেন৷ দরজা খোলা মাত্রই দুই দুষ্কৃতী হুড়মুড়িয়ে তাঁদের বাড়িতে ঢুকে পড়ে৷ মিতালিদেবী, তাঁর মেয়ে ও তাঁর স্বামী স্বরূপের মাথায় বন্দুক ঠেকায় তারা৷ পাশের দু’টি ঘরেই স্বরূপের বাবা-মা ও দাদা-বউদি শুয়েছিলেন৷ ওই ঘর দুটি বাইরে থেকে বন্ধ করে দেয় দুষ্কৃতীরা৷ যাতে পরিবারের লোক তাদের তাণ্ডবের কথা জানতে না পারেন৷ তার পর হঠাৎই স্বরূপের বুকে ও কানে গুলি করে এই দুষ্কৃতীরা৷ ওই সময় স্বরূপের স্ত্রী ও মেয়ে বাধা দিতে গেলে দুষ্কৃতীরা তাঁদের উপরও আক্রমণ করে৷ স্ত্রী ও মেয়ের মাথায় বন্দুক ঠেকিয়ে ভয় দেখিয়েই স্বরূপকে খুন করে তারা৷ গুরুতরভাবে আহত হন স্বরূপের স্ত্রী ও মেয়ে৷ স্বরূপের স্ত্রী ও মেয়ের চেঁচামেচিতে বাড়ির বাইরে রাখা বাইক নিয়ে চম্পট দেয় দুই দুষ্কৃতীরা৷ এই ঘটনায় হতবাক হয়ে পড়েন স্বরূপের পরিবারের লোকেরা৷ পরিবারের তরফে জানানো হয়েছে, স্বরূপের কোনও শত্রূ নেই৷ তাহলে কী উদ্দেশ্যে কারা তাকে খুন করল সে নিয়েই এখন প্রশ্ন উঠেছে৷ এদিন রাতে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় স্বরূপের৷ তার পর তাঁকে চুঁচুড়া ইমামাবাড়া হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়৷ সেখানে চিকিৎসকরা স্বরূপকে মৃত বলে ঘোষণা করেন৷ চুঁচুড়া থানার পুলিশ গিয়ে দেহটি ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে৷

Advertisement

পেশায় হকার স্বরূপকে কেন দুষ্কৃতীরা খুন করল তা নিয়েই তদন্ত শুরু করেছে চুঁচুড়া থানার পুলিশ৷ এই ঘটনায় এলাকার বাসিন্দারা ক্ষুব্ধ হন৷ তাঁদের অভিযোগ, চুঁচুড়া থানা এলাকায় খুনের ঘটনা বাড়ছে৷ গত ছ’মাসে এলাকায় ২০টির বেশি খুন হয়েছে বলে অভিযোগ এলাকার বাসিন্দাদের৷ স্বরূপের খুনের ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে চুঁচুড়া থানার পুলিশ৷ পুলিশের প্রাথমিক অনুমান, পুরোনো কোনও শত্রূতার জেরেই এই খুন হতে পারে৷ তবে স্বরূপের বিরু‌দ্ধে অপরাধ নিয়ে পুলিশের খাতায় কোনও অভিযোগ নেই বলেই পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে৷ পুরো বিষয়টিই খতিয়ে দেখছে চুঁচুড়া থানার পুলিশ৷ তাহলে কে বা কারা, কী উদ্দেশ্যে স্বরূপকে খুন করল খতিয়ে দেখছে পুলিশ৷ দুষ্কৃতীদের মুখে কালো কাপড় বাঁধা থাকায় তাদের চিহ্নিত করতে এলাকায় জোর তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ৷ মঙ্গলবার দুপুর পর্যন্ত কেউ গ্রেফতার হয়নি বলে পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে৷

Advertisement

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ