BREAKING NEWS

২৮ শ্রাবণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১৩ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

চোখের সামনে ছাগলের ঘাড় মটকে দিল কুকুর! ফের আতঙ্ক ছড়াল পূর্ব বর্ধমানে

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 3, 2018 10:27 am|    Updated: June 3, 2018 10:30 am

An Images

ধীমান রায়, কাটোয়া: কাটোয়ার বাঁদরা গ্রামের পর এবার ভাতার৷ শিকারি কুকুরের উপদ্রবে ফের আতঙ্ক ছড়াল পূর্ব বর্ধমানে৷ স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি, গত কয়েক দিনে ভাতার বাজার এলাকায় ছ’টি ছাগলকে মেরে ফেলেছে শিকারি কুকুরের দল৷

[কাটোয়ায় আতঙ্ক, অজানা ঘাতকের হাতে প্রাণ গেল ৬৮টি ভেড়ার]

গাঁ-গঞ্জে মাঠেঘাটে চরে বেড়ায় গরু ও ছাগল৷ রাস্তায় কুকরেরও অভাব নেই৷ কুকুরদের সঙ্গে গরু কিংবা ছাগলের এতদিন কোনও বিরোধ ছিল না৷ কিন্তু, এখন গরু ও ছাগলদের উপর হামলা করতে শুরু করেছে কুকুর৷ বেঘোরে প্রাণ যাচ্ছে অবলা প্রাণীগুলির৷ রাস্তার কুকুরের এমনই শিকারি প্রবৃত্তিতে আতঙ্কিত গ্রামবাসীরা৷ স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি, শনিবার সকালে ভাতারে কৃষিখামার লাগোয়া মাঠে চড়ছিল কয়েকটি গরু ও ছাগল৷ আমচকাই একটি ছাগলের ঘাড় মটকে দিয়ে কুকুর৷ কুকুরটিকে তাড়া করেন স্থানীয় বাসিন্দারা৷ পালিয়ে যায় শিকারি কুকুরের দল৷ চোখের সামনে এমনই ঘটনায় ছড়িয়ে পড়েছে আতঙ্ক৷ ভাতারের বাসিন্দাদের আশঙ্কা, শিকারি কুকুরের হামলায় আরও গৃহপালিত পশুর প্রাণ যাবে৷

[শিকারি কুকুরের হানায় ৯০টি ভেড়ার মৃত্যু, আতঙ্কে ঘুম ছুটেছে বাসিন্দাদের]

দিন কয়েক আগে পূর্ব বর্ধমানেরই কাটোয়ার বাঁদরায় ভেড়াদের মেরে ফেলছিল শিকারি কুকুর৷ গ্রামবাসীদের দাবি, প্রায় দুই সপ্তাহ ধরে রাতের অন্ধকারে গোয়ালঘরে ঢুকে ৬৮টি ভে়ড়াকে মেরে ফেলেছে কুকুর৷ এমনকী, ভাগাড়ে গিয়ে মৃত পশুদের মাংস খেয়েছে সারমেয়রা৷ পরিস্থিতি এমন জায়গায় পৌঁছয়, যে কুকুর বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে জরুরি বৈঠকও করেন কাটোয়ার মহকুমাশাসক৷ ভাতার রাজ্য প্রাণি স্বাস্থ্যকেন্দ্রের চিকিৎসক দেবাশিষ মাহান্ত বলেন,  ‘চরিত্রগতভাবে কুকুরেরা হিংস্র ও শিকারি৷ গৃহস্থ বাড়ির ভাতের থেকে কাঁচা মাংসই বেশি পছন্দ সারমেয়দের৷ দীর্ঘদিন ধরে কাঁচা মাংস খেতে খেতে ফের শিকার প্রবৃতি জেগে ওঠেছে রাস্তার কুকুরদের৷’ পশু চিকিৎসকের পরামর্শ, পাঁচ-ছয় মাস ধরে নিরামিষ খাইয়ে সারমেয়দের চরিত্র বদলানো সম্ভব৷ শিকারি কুকুরে উপদ্রবের বিষয়ে খোঁজ নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন ভাতারের বিডিও শুভ্র চট্টোপাধ্যায়৷

[খেলতে বেরিয়ে নিখোঁজ দু’বছরের শিশু, জগদ্দলে চাঞ্চল্য]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement