১০ মাঘ  ১৪২৬  শুক্রবার ২৪ জানুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বেলঘড়িয়ায় করুণ পরিণতি অশীতিপর বৃদ্ধার। রোগ-ভোগে কার্যত কুঁকড়ে গিয়েছে শরীর। কিন্তু খোঁজ নেয় না ছেলে-বউমা। শুক্রবার সারাদিনে মেলেনি খাবার। মেয়ে বৃদ্ধাকে দেখতে আসতেই প্রকাশ্যে আসে গোটা বিষয়। যদিও এবিষয়টি নিয়ে পাড়া প্রতিবেশীরা ছিছিকার করলেও তাতে কর্ণপাত করেননি বৃদ্ধার পু্ত্রবধূ।

বেলঘড়িয়ার অভিজাত এলাকার বাসিন্দা ওই বৃদ্ধা প্রাক্তন স্কুল শিক্ষিকা। ছেলে ও মেয়ে দু’জনেরই বিয়ে হয়ে গিয়েছে বহু বছর আগে। দীর্ঘদিন ধরেই ছেলের কাছেই থাকতেন তিনি। শুক্রবার বৃদ্ধার মেয়ে বাড়িতে গিয়ে জানতে পারেন, শুক্রবার সারাদিনে খাবার মেলেনি তাঁর। এবিষয়ে বৃদ্ধার পুত্রবধূ সাফ জানিয়ে দেন, তিনি যা করেছেন ঠিক করেছেন। তাঁর শাশুড়ি দীর্ঘদিন ধরে তাঁর উপর অত্যাচার করেছে, সেই কারণে শাশুড়ির সঙ্গে যা করছেন তার জন্য এতটুকুও অনুতপ্ত নন তিনি। যদিও এপ্রসঙ্গে বৃদ্ধার ছেলের সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

[আরও পড়ুন: CAA-এর প্রতিবাদে কোনা এক্সপ্রেসওয়েতে তাণ্ডব, আগুন-ভাঙচুরে স্তব্ধ জনজীবন]

বৃদ্ধার মেয়ের কথায়, আগেও বৃদ্ধার সঙ্গে এহেন আচরণ করেছিল তাঁর ভাই ও ভাইয়ের স্ত্রী। পরে স্থানীয় কাউন্সিলরের উপস্থিতিতে সমস্যা মিটে যায়। তিনি জানান, ভাইয়ের চাকরির ক্ষেত্রে সমস্যা হতে পারে সেই দিন চিন্তা করে থানায় অভিযোগ দায়ের করেননি। কিন্তু পরিস্থিতি এরকম পর্যায়ে যেতে পারে, তা ভাবতেও পারেননি তিনি। বর্তমান সময়ে দাঁড়িয়ে প্রায়ই প্রকাশ্যে আসছে সন্তানের হাতে বৃদ্ধ-বৃদ্ধার নিগ্রহের ঘটনা। কিন্তু কেন? সেই উত্তরই খুঁজছেন সকলে।

[আরও পড়ুন: বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন রাস্তার বোর্ডে ভুল বানানের ছড়াছড়ি, কটাক্ষ নেটিজেনদের]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং